Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২২ জুন ২০২১, ০৮ আষাঢ় ১৪২৮, ১০ যিলক্বদ ১৪৪২ হিজরী

সুন্দরবনে হরিণের গোশতসহ দুই শিকারি আটক

বাগেরহাট জেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১০ জুন, ২০২১, ১১:৫১ পিএম

সুন্দরবনের শরণখোলায় হরিণের গোশতসহ দুই চোরা শিকারিকে আটক করেছে বনবিভাগ। গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে শরণখোলা রেঞ্জের ডুমুরিয়া টহল ফাঁড়ি সংলগ্ন বলেশ্বর নদ থেকে তাদেরকে আটক করা হয়। আটক শিকারিরা হলো, হানিফ মিস্ত্রি (৪৮) এবং তার ছেলে মাসুম মিস্ত্রি (২৮)। এদের বাড়ি পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া উপজেলার খেতাচিরা গ্রামে। শিকারিদের কাছ থেকে একটি ইঞ্জিন চালিত ট্রলার, ১২ কেজি হরিণের গোশত, হরিণের চারটি পা, ২০০ হাত দড়ির ফাঁদ, একটি নৌকা, ৫০ ফুট ছান্দি জাল, একটি দা, একটি চাপাতি, একটি কুড়ালসহ বিভিন্ন মালামাল উদ্ধার করা হয়েছে।
পূর্বসুন্দরবনের শরণখোলা রেঞ্জের সহকারী বন সংরক্ষক (এসিএফ) মো. জয়নাল আবেদীন জানান, হরিণের গোশত পাচারের গোপন সংবাদ পেয়ে বগী স্টেশন কর্মকর্তা মো. সাদিক মাহামুদ ও ডুমুরিয়া টহল ফাঁড়ির ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. সিদ্দিকুর রহমানের নেতৃত্বে বনরক্ষীদের তিনটি দল ভোররাত থেকে বলেশ্বর নদে অবস্থায় নেয়। সকাল ৬টার দিকে একটি ইঞ্জিনচালিত ট্রলার সুন্দরবন থেকে বের হলে ট্রলারটি থামিয়ে তল্লাশি করেন বনরক্ষীরা। ওই ট্রলার থেকে হরিণের গোশত, শিকারের সরঞ্জাম, বিভিন্ন মালামাল উদ্ধার ও শিকারি দলের দুই সদস্যকে আটক করা হয়। এ সময় বনের মধ্যে একটি ডিঙি নৌকায় থাকায় আরো ৪-৫জন শিকারি পালিয়ে যায়।
এসিএফ জয়নাল আবেদীন জানান, আটক দুই শিকারি, জব্দকৃত ট্রলার, গোশত ও সরঞ্জামাদি বিকেল তিনটার দিকে শরণখোলা রেঞ্জ অফিসে আনা হয়। পরে আটকদের বিরুদ্ধে বন আইনে মামলা দিয়ে বাগেরহাট আদালতে পাঠানো হয়েছে। উদ্ধার হওয়া হরিণের গোশত রেঞ্জ অফিস চত্বরে মাটিচাপা দেয়া হয়েছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: হরিণের গোশত
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ