Inqilab Logo

সোমবার, ০২ আগস্ট ২০২১, ১৮ শ্রাবণ ১৪২৮, ২২ যিলহজ ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

‘২০টি গাছ লাগালে পরীক্ষায় অতিরিক্ত ২০ নম্বর মিলবে’

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১১ জুন, ২০২১, ৩:২৭ পিএম

পাকিস্তানের জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী জারতাজ গুল বলেছেন, গাছ লাগাতে সরকার শিক্ষার্থীদের উৎসাহ দেয়ার পরিকল্পনা হাতে নিয়েছে। যেসব শিক্ষার্থী ২০টি চারা রোপণ করবে তারা পরীক্ষায় অতিরিক্ত ২০ নম্বর পাবে।

‘টেন বিলিয়ন ট্রি সুনামি প্লান্টেসন প্রজেক্ট’ নামে এ বিষয়ে পার্লামেন্টে একটি আইন পাশ করা হচ্ছে যার লক্ষ্য যুবকদের এই প্রকল্পে সম্পৃক্ত করণ।
মন্ত্রী বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান পরিচ্ছন্ন এবং সবুজ পাকিস্তানের যে লক্ষ্য স্থির করেছেন তার অংশ হিসেবে প্রতিটি বিশ্ববিদ্যালয়ের স্নাতক পর্যায়ের শিক্ষার্থীরা যেনো তাদের কোর্স শেষ হওয়ার আগেই কমপক্ষে ২০টি করে গাছ রোপন করে সেই প্রচেষ্টা করা হচ্ছে।

গত সপ্তাহে ইসলামাবাদে বিশ্ব পরিবেশ দিবস উপলক্ষে আয়োজিত একটি অনুষ্ঠানে জলবায়ু পরিবর্তন ও পরিবেশ সংরক্ষণের চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় যুবকদের জড়িত হবার বিষয়ে জোড় দিয়েছিলেন। তিনি বলেছিলেন, পাকিস্তানের সবেচেয়ে বড় শক্তি হলো যুব সমাজ। পরিবেশ রক্ষায় তাদের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখা দরকার।
প্রস্তাবিত প্রকল্পটির ব্যাখ্যা দিতে গিয়ে গুল বলেন, শিক্ষাব্যবস্থার অংশ হিসাবে শিক্ষার্থীদের গাছ লাগানোর জন্য অতিরিক্ত নম্বর দেয়া হবে; জাতীয় ক্যাডেট কর্পস প্রোগ্রামের আওতায় যেভাবে অতিরিক্ত নম্বর যোগ করা হয় এটা হবে তার অনুকরণে।

তিনি বলেন, এই আইনটি বিশ্ববিদ্যালয়ের স্নাতকদের জন্য ২০টি চারা রোপণ বাধ্যতামূলক করবে এবং বিশ্ববিদ্যালয় ও জেলা প্রশাসনগুলি সম্ভাব্য বৃক্ষরোপণ স্থান সনাক্ত করতে সহায়তা করবে।

মন্ত্রী বলেন, এই প্রকল্পের আওতায় প্রতি বছর কয়েক মিলিয়ন চারা রোপণ করা যেতে পারে, যা দেশের ভবিষ্যত এবং আগত প্রজন্মের জন্য এক মূল্যবান সম্পদ হিসাবে টিকে থাকবে। সূত্র : ডন



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: পাকিস্তান


আরও
আরও পড়ুন

কাশ্মীর লীগকে স্বীকৃতি না দিতে আইসিসিকে ভারতের চিঠি!

img_img-1627918969

আগামী ৬ আগস্ট থেকে কাশ্মীরে শুরু হতে যাওয়া ক্রিকেট লীগ নিয়ে উত্তাল ক্রিকেট বিশ্ব। তবে এই লীগ নিয়ে এবারো কড়া অবস্থান নিলো সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের নেতৃত্বাধীন বিসিসিআই। কাশ্মীর ক্রিকেট লীগকে স্বীকৃতি না দিতে এবার আইসিসিকে চিঠি দিলো ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ড। চিঠিতে বলা হয়, কোনোভাবেই যেন কাশ্মীর প্রিমিয়ার লীগকে (কেপিএল) স্বীকৃতি দেয়া না হয়। -সংবাদ প্রতিদিন কাশ্মীর নিয়ে পাকিস্তান-ভারত বিবাদ দীর্ঘদিনের। বিষয়টি নিয়ে বরাবরই সোচ্চার হয়েছে নয়াদিল্লি। অঞ্চলটিতে নির্বাচন আয়োজনের পর এবার সেখানে ক্রিকেট লীগেরও আয়োজন করতে চলেছে পাকিস্তান। আর সেকারণেই বিষয়টিকে ভালোভাবে নেয়নি বিসিসিআই। পাকিস্তান সুপার লীগ আয়োজন করা নিয়ে কোনো আপত্তি না থাকলেও জাতীয় সুরক্ষার খাতিরে কাশ্মীর প্রিমিয়ার লীগকে কোনোভাবেই স্বীকৃতি দেবে না বিসিসিআই। ইতোমধ্যে বিশ্বের সমস্ত ক্রিকেট বোর্ডকে মৌখিকভাবে সেকথাও জানিয়ে দিয়েছেন সৌরভরা। শুধু তাই নয়, এই লীগে অংশগ্রহণকারী ক্রিকেটারদের ভারতে ক্রিকেট সম্পর্কিত সমস্ত কার্যকলাপে নিষিদ্ধ করা হবে বলেও হুমকি দেয়া হয়। সেই কথাও স্পষ্ট করে ঘোষণা দেয়া হয়। আর এবার এ ব্যাপারে সরাসরি আইসিসিকে চিঠি দিলো ভারতীয় বোর্ড। একটি ক্রীড়াবিষয়ক ওয়েবসাইটে প্রকাশিত প্রতিবেদন অনুযায়ী, চিঠিতে ভারতীয় বোর্ডের পক্ষ থেকে ক্রিকেটের সর্বোচ্চ নিয়ামক সংস্থাকে বলা হয়েছে, কাশ্মীর নিয়ে দীর্ঘ দিন ধরে রাজনৈতিক বিবাদ রয়েছে ভারত-পাকিস্তানের মধ্যে। তাই ওই অঞ্চলে আয়োজিত এই ক্রিকেট লীগকে যেন কোনোভাবেই স্বীকৃতি দেয়া না হয়। এদিকে এই লীগ আয়োজনে বাধা দেয়ার অভিযোগ তুলে বিসিসিআইয়ের বিরুদ্ধে সরব হয়েছে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড।কাশ্মীরে আয়োজিত ক্রিকেট লীগে না খেলার জন্য তার উপর চাপ সৃষ্টি করছে বিসিসিআই। এমনকি ভারতে প্রবেশের উপরও নিষেধাজ্ঞা জারি করা হতে পারে। এর আগে টুইটে এমনই অভিযোগ তুলেছিলেন দক্ষিণ আফ্রিকার প্রাক্তন ক্রিকেটার হার্শেল গিবস। শুধু গিবস নন, আরেক প্রাক্তন ক্রিকেটার পাকিস্তানের রশিদ লতিফও একই অভিযোগ করেছেন। আর এই নিয়েই উত্তাল ক্রিকেট দুনিয়া।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ