Inqilab Logo

মঙ্গলবার, ০৩ আগস্ট ২০২১, ১৯ শ্রাবণ ১৪২৮, ২৩ যিলহজ ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

তুরস্কের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করল তালেবান

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১২ জুন, ২০২১, ১১:৪৩ এএম

অবিলম্বে তুরস্কের সেনাদের আফগানিস্তান ছাড়ার আহবান জানিয়েছে তালেবান। ২০২০ সালের চুক্তি মেনে দ্রæত তুরস্ককে সেনা প্রত্যাহার করতে হবে বলে জানিয়েছে সংগঠনটি। এর আগে তুরস্ক প্রস্তাব দেয়, মার্কিন সেনা প্রত্যাহারের পর কাবুলের বিমানবন্দরের নিরাপত্তা নিশ্চিতে আফগানিস্তানে থেকে যেতে চায় তারা। এ খবর দিয়েছে কাতারভিত্তিক গণমাধ্যম আল-জাজিরা।

আফগানিস্তান যেকোনো সমুদ্র পথ থেকে বিচ্ছিন্ন হওয়ায় দেশটির বিমানবন্দর অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। এগুলো ব্যবহার করেই সেনা প্রত্যাহার করতে হচ্ছে আন্তর্জাতিক বাহিনীকে। তুরস্কের সেনাবাহিনী শেষ সময় পর্যন্ত এটির নিরাপত্তা দিতে পারলে পুরো প্রক্রিয়াটি নিরাপদ হতে পারবে। তুরস্কও এটি করতে চাইছে যাতে যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে তারা সম্পর্কোন্নয়ন করতে পারে।
তুরস্ক জানিয়েছিল, যতদিন না বিদেশি সকল সেনা আফগানিস্তান না ছাড়ছে ততদিন তারা কাবুল বিমানবন্দরের নিরাপত্তা দিতে চায়। কিন্তু তালেবান তুরস্কের এমন দাবি মেনে নিতে নারাজ। তালেবান বলছে, অন্য দেশের সেনাদের সঙ্গে তুরস্কের সেনাদেরও চলে যেতে হবে। তুরস্ক যেহেতু ন্যাটোর হয়ে তালেবানের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করেছে তাই চুক্তি অনুযায়ী ন্যাটোর সকল সেনাদের ন্যায় তাদেরও ফিরে যেতে হবে। সূত্র : আল জাজিরা



 

Show all comments
  • Dadhack ১২ জুন, ২০২১, ১২:২৩ পিএম says : 1
    তুরস্ক নাইন ইলেভেনের পর থেকে ন্যাটোর জোট হিসেবে তারা তালেবানের বিরুদ্ধে সেনাবাহিনী সেনাবাহিনী পাঠায় এবং তালেবানের বিরুদ্ধে তুরস্ক যুদ্ধ করে এটা জঘন্যতম হারাম কাজ করেছে তুরস্ক. তুরস্কের উচিত তালেবানদেরকে ড্রোন দিয়ে এবং অন্যান্য অস্ত্র দিয়ে সাহায্য করা
    Total Reply(0) Reply
  • Rasel Jaman ১২ জুন, ২০২১, ১২:৩৮ পিএম says : 0
    তুরস্ক ন্যাটর হয়ে কাজ করেছে এটা আমার জানা ছিল না।
    Total Reply(0) Reply
  • সাইফুল ইসলাম ১২ জুন, ২০২১, ১২:৩৯ পিএম says : 0
    অবিলম্বে তুরস্কের সেনাদের আফগানিস্তান ছাড়া উচিত
    Total Reply(0) Reply
  • আরমান ১২ জুন, ২০২১, ১২:৪০ পিএম says : 0
    তুরস্কের উচিত তালেবানদের সাথে সমন্বয় করে আফগানিস্তানকে একটি শক্তিশালী রাষ্ট্রে পরিণত করার চেষ্টা করা।
    Total Reply(0) Reply
  • মোঃ+দুলাল+মিয়া ১২ জুন, ২০২১, ১২:৪৫ পিএম says : 0
    কেউ থাকার দরকার নেই।তাদের দেশ তারা শাসন করবে।
    Total Reply(0) Reply
  • কাওসার আহমেদ ১২ জুন, ২০২১, ১২:৪১ পিএম says : 0
    দেশের সার্থে তুরস্ক আর তালেবানের মধ্যে দ্বন্ধ নয়, বন্ধুত্ব প্রয়োজন
    Total Reply(0) Reply
  • মাহমুদ গজনবী ১২ জুন, ২০২১, ৩:৩৬ পিএম says : 0
    ব্রিটিশ, সোভিয়েত, আমেরিকার অপরাজয় থেকে শিক্ষা নিয়ে তুরষ্কের উচিৎ আফগানিস্তান ত্যাগ করা। না হয় তাদের অবস্থাও পূর্বোক্ত সাম্রাজ্যবাদী রাষ্ট্র সমূহের মতোই হবে। ভুলে গেলে চলবে না, আফগানিস্তান হলো সাম্রাজ্যবাদের কবরস্থান। বৃটিশরা পুরো ভারতীয় উপমাদেশ দখল করতে পারলেও আফগানিস্তানে তিন বার অভিযান চালিয়েও দখল তো করতেই পারে নি বরং তিনবারই ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতির স্বীকার হয়েছে। তৎকালীন আরেক পরাশক্তি সোভিয়েতরাও দখল করতে এসেছিলো। পরে এতোটাই ক্ষয়ক্ষতির স্বীকার হয়েছিলো যে তা সামাল দিতে গিয়ে পরে সোভিয়েত ইউনিয়নেরই পতন হয়েছে। আমেরিকা তার সব উন্নত অস্ত্র-শস্ত্র ও উন্নত প্রযুক্তি নিয়ে, ট্রিলিয়ন ট্রিলিয়ন ডলার ব্যায় করেও শুধু নিজেদের সৈন্যদের লাশের স্তুপ আর কবরের সারি ছাড়া আর কিছুই অর্জন করতে পারে নি। তাদের ন্যাটো মিত্র সব দেশও তাদের সাথে পরাজিত হয়েছে। পুরো বিশ্ব আফগানের পাহাড়ি মোল্লাদের কাছে মাথানত করতে বাধ্য হয়েছে। এসব দেখে তুরষ্কের শিক্ষা নেয়া উচিৎ। না হয় অন্যদের মতো অবস্থা বরণ করার জন্য প্রস্তুতি নেয়া উচিৎ।
    Total Reply(0) Reply
  • Abu Taher ১৪ জুন, ২০২১, ২:২৬ পিএম says : 0
    আফঘানিসতানে ইসলামী শাসন কায়েম হোক
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: তালেবান


আরও
আরও পড়ুন