Inqilab Logo

ঢাকা মঙ্গলবার, ২৭ জুলাই ২০২১, ১২ শ্রাবণ ১৪২৮, ১৬ যিলহজ ১৪৪২ হিজরী

আন্দোলন-সংগ্রামে কখনো পিছু হটেনি মোহাম্মদ নাসিম: আমির হোসেন আমু

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৩ জুন, ২০২১, ৭:৪৭ পিএম

আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদ সদস্য, ১৪ দলের সমন্বয়ক ও মুখপাত্র আমির হোসেন আমু এমপি বলেছেন, এরশাদ ও খালেদা জিয়া বিরোধী আন্দোলনসহ সকল গণতান্ত্রিক আন্দোলনে মোহাম্মদ নাসিমের সাহসী অবদান ভোলার নয়। শত প্রতিকূল অবস্থাতেও কখনো পিছু হটেনি মোহাম্মদ নাসিম।

রোববার সকালে ১৪ দলের উদ্যোগে ভার্চুয়াল মাধ্যমে জোটের সাবেক মুখপাত্র ও আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য প্রয়াত মোহাম্মদ নাসিমের প্রথম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষ্যে আয়োজিত স্মরণসভায় সভাপতির বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি।

আমির হোসেন আমু বলেন, নাসিম ছিলেন আওয়ামী লীগের একজন পরীক্ষিত নেতা। বাবা শহীদ ক্যাপ্টেন এম মনসুর আলী যেমন বঙ্গবন্ধুর বিশ্বস্ত ছিলেন, তেমনি মোহাম্মদ নাসিমও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অত্যন্ত বিশ্বস্ত ছিলেন। নাসিমের মৃত্যুর পর প্রধানমন্ত্রীর শোকবার্তায় সেই বিশ্বাসের প্রতিফলন ছিলো। রাজনীতিতে মোহাম্মদ নাসিমের সাহসী ভুমিকা অনুকরণীয় ও অনুসরণীয় হয়ে থাকবে।

আমির হোসেন আমু বলেন, মোহাম্মদ নাসিম ১৪ দলকে জাতীয় পর্যায়ে একটা বিরাট পরিচিতি দিয়ে গেছেন। তাঁর সেই ত্যাগ ও তিতিক্ষার পথ ধরেই ১৪ দলকে আরো সুংগঠিত করা হবে।

আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য তোফায়েল আহমেদ বলেন, একদিকে রাজনীতি অন্যদিকে মন্ত্রণালয় দুটো ক্ষেত্রেই দক্ষতা ও আন্তরিকতার সাথে দায়িত্ব পালন করে গেছেন মোহাম্মদ নাসিম। লক্ষ্য অর্জনে সব সময় অটুট থাকতেন তিনি।

বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেনন বলেন, সাম্প্রদায়িক অপশক্তির বিরুদ্ধে সব সময় সোচ্চার ছিলেন মোহাম্মদ নাসিম। অসাম্প্রদায়িক সমতাভিত্তিক রাষ্ট্র গড়ে তোলার অঙ্গীকার থেকে কখনো বিচ্যুত হননি ‍তিনি।

জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল জাসদের সভাপতি হাসানুল হক ইনু বলেন, দেশ আজ করোনা, জঙ্গি ও দুর্নীতির ভাইরাসে আক্রান্ত। এই তিন ভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াই করতে মোহাম্মদ নাসিমের মতো একজন সাহসী দেশপ্রেমিক আজ বড় বেশি প্রয়োজন।

আওয়ামী লীগের মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট মৃনাল কান্তি দাসের সঞ্চালনায় অলোচনাসভায় অন্যান্যদের মধ্যে আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদ সদস্য মোজাফফর হোসেন পল্টু, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, কেন্দ্রীয় নেতা মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া বীরবিক্রম , জাতীয় পার্টি জেপির সাধারণ সম্পাদক শেখ শহীদুল ইসলাম , বাংলাদেশের সাম্যবাদী দলের সাধারণ সম্পাদক কমরেড দিলীপ বড়ুয়া, বাংলাদেশ তরিকত ফেডারেশনের চেয়ারম্যান নজিবুল বশর মাইজভাণ্ডারী, গণআজাদী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট এস কে শিকদার, কমিউনিস্ট কেন্দ্রের নেতা ডা. ওয়াজেদুল ইসলাম খান, গণতন্ত্রী পার্টির নেতা ডা. শাহাদাৎ হোসেন, ন্যাপ নেতা ইসমাইল হোসেন, বাসদের আহ্বায়ক রেজাউর রশিদ প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ