Inqilab Logo

মঙ্গলবার, ০৩ আগস্ট ২০২১, ১৯ শ্রাবণ ১৪২৮, ২৩ যিলহজ ১৪৪২ হিজরী

লকডাউন শিথিল হতেই প্রেক্ষাগৃহে ‘রাধে’

বিনোদন ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৪ জুন, ২০২১, ১২:০৪ পিএম

করোনা ভাইরাসের কারণে সালমান খানের অ্যাকশনে ভরপুর ছবি ‘রাধে’ সিনেমা হলে গিয়ে দেখার সুযোগ হয়নি ভক্তদের। ঈদে ওটিটিতে মুক্তি পেয়েছিল ভাইজানের সিনেমাটি। কিন্তু মহারাষ্ট্রে লকডাউন খানিক শিথিল হতেই যে সব জায়গায় সিনেমা হল খোলার অনুমতি মিলেছে সেই সব অঞ্চলের দুই সিনেমা হলে মুক্তি পেল ‘রাধে’। মালেগাঁওয়ের ড্রাইভ ইন সিনেমা ছাড়াও ওরঙ্গাবাদের এক সিনেমা হলে প্রদর্শন শুরু হল ছবিটির।

কিন্তু ‘রাধে’কে সিনেমা হলে মুক্তি দেওয়ার সিদ্ধান্ত লজ্জাজনক বলে প্রমাণিত হচ্ছে। প্রাপ্ত খবর অনুযায়ী, সালমান খানের নতুন সিনেমা দেখার জন্য প্রথমদিন মোট ৮৪টি টিকিট বিক্রি হয়েছিল। যা থেকে মোট ৬ হাজার ১৭ টাকার কালেকশন হয়েছে।

ওই দুই সিনেমা হলের একটির (ড্রাইভ ইন সিনেমা) মালিক তুষার তিসাগের কথায়, “সন্ধ্যা সাড়ে সাতটার শো’তে গাড়িতে বসে ২২ জন সিনেমাটি দেখেছেন। আর চেয়ারে বসে দেখেছেন ৪০ জন। ” সিনেমা হল সূত্রে খবর রাত সাড়ে ৯টার শো’টি তাদের বাতিল করতে হয় কারণ, কোনও দর্শক আসেননি।

অন্যদিকে ওরঙ্গাবাদের সিনেমা হলটির মালিকের কথায়, “আমাদের শুক্রবার মোট ২২টি টিকিট বিক্রি হয়েছে ৪ টি শো মিলিয়ে।” সূত্র বলছে গতকাল ওই দুই সিনেমা হল থেকে রাধের দৌলতে উঠে এসেছে আনুমানিক ৬ হাজার ১৭ টাকা।

এর আগে প্যান্ডেমিকের কারণে ‘রাধে’র ওটিটি মুক্তি নিয়ে সালমান বলেছিলেন, “সব হল মালিকদের কাছে আমি ক্ষমা চাইছি। আমাদের ইচ্ছে ছিল যখন প্যান্ডেমিক শান্ত হবে তখন রাধের মুক্তি হবে। ভেবেছিলাম গত বছর ডিসেম্বরে মুক্তি করা হবে রাধে। কিন্তু তা হয়নি। যেহেতু আমি আগে থেকেই বলে রেখেছি তাই ওটিটি এবং সিনেমা হলে যেখানে যেখানে খোলা রয়েছে সেখানে সেখানেই মুক্তি পাবে রাধে।” সেই মতোই ১৩ মে মুক্তি পায় ‘রাধে’।

তবে সে সময় হল মালিকদের আশার বাণীও শুনিয়েছিলেন সালমান। তিনি যোগ করেছিলেন, “পরিস্থিতি একটু স্বাভাবিক হলে আমি চেষ্টা করব আবারও যদি সিনেমাটিকে বড় পর্দায় মুক্তি দেওয়া যায়।” সেই কথাই রাখলেন ভাইজান।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: বলিউড


আরও
আরও পড়ুন