Inqilab Logo

ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২৯ জুলাই ২০২১, ১৪ শ্রাবণ ১৪২৮, ১৮ যিলহজ ১৪৪২ হিজরী

ওমানের বিপক্ষে বড় হারে মিশন শেষ বাংলাদেশের

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৬ জুন, ২০২১, ১:১১ এএম | আপডেট : ২:২৩ এএম, ১৬ জুন, ২০২১

ওমানের বিপক্ষে বড় হারে বিশ্বকাপ ও এশিয়ান কাপ বাছাই মিশন শেষ করলো বাংলাদেশ। মঙ্গলবার রাতে কাতারের রাজধানী দোহার জসিম বিন হামাদ স্টেডিয়ামে ফিরতি লেগের ম্যাচে ওমান ৩-০ গোলে হারায় লাল-সবুজদের।প্রথমার্ধে ১-০ গোলে এগিয়ে থাকলেও বিরতির পর আরো দু’গোল আদায় করে নেয় ওমান।

ওমানের বিপক্ষে বাছাইয়ের শেষ ম্যাচে বাংলাদেশ হারবে সেটা সবারই ধারণা ছিল। ফিফা র‍্যাঙ্কিংয়ে দুই দলের মধ্যে বিস্তর ব্যবধান। র‍্যাঙ্কিংয়ে ওমান আছে ৮০ নম্বরে। আর বাংলাদেশের অবস্থান ১৮৪ তম স্থানে। মধ্যপ্রাচ্যের দেশটির চেয়ে র‍্যাঙ্কিংয়ে ১০৪ ধাপ পিছিয়ে থাকলেও এক পয়েন্টের আশায় মঙ্গলবার মাঠে নেমেছিল লাল-সবুজরা। কিন্তু ম্যাচে বাংলাদেশ দাঁড়াতেই পারেনি।প্রথম লেগের ম্যাচে ২০১৯ সালের নভেম্বরে মাসকটে ওমানের কাছে ৪-১ গোলে হেরেছিল বাংলাদেশ। এতেই প্রমাণ করে দুই দেশের শক্তির পার্থক্য। তবে শেষ ম্যাচে সবার কৌতূহল ছিল ওমানকে কত গোলে আটকিয়ে রাখতে পারে বাংলাদেশ সেটা দেখার।

এবারের বিশ্বকাপ বাছাইয়ের আগে ওমানের বিপক্ষে খেলার অভিজ্ঞতা ছিল না লাল-সবুজদের। করোনাভাইরাসের কারণে এবার ফিরতি লেগ খেলতে হয়েছে কাতারে। বাংলাদেশ দল চোট ও  কার্ড জটিলতায় জর্জরিত ছিল এ ম্যাচে মাঠে নামার আগে।ইনজুরি আর কার্ডের কারণে বাংলাদেশ দলে নিয়মিত একাদশের পাঁচজন ছিলেন না। ফলে ওমান ম্যাচে তারুণ্যনির্ভর দলই মাঠে নামাতে হয়েছে বাংলাদেশের ব্রিটিশ কোচ জেমি ডে’কে। খেলায় বাংলাদেশের ফুটবলাররা ওমানের আক্রমণ রুখতেই ব্যস্ত সময় পাড় করেছেন।তবে কাজের কাজ কিছুই করতে পারেননি তপু বর্মণরা। একে একে তিন গোল হজম করে মাঠ ছাড়েন তারা।

ম্যাচের শুরু থেকে আক্রমণাত্মক ফুটবল উপহার দিয়ে সুযোগের পর সুযোগ তৈরী করে ওমান। ২২ মিনিটে সংঘবদ্ধ এক আক্রমণ থেকে তারা এগিয়ে যায় আল গাফরির গোলে। ডানপ্রান্ত থেকে ওমানের উইঙ্গারের বাড়ানো ক্রসে বল পান আল গাফরি। লাল-সবুজের দুই ডিফেন্ডারের পেছন থেকে এসে গোলরক্ষকের খুব কাছ থেকে প্লেসিং শটে গোল করেন তিনি (১-০)। এগিয়ে থেকে বিরতিতে গেলেও দ্বিতীয়ার্ধে গোলক্ষুধা কমেনি ওমানের। ম্যাচের ৬০ মিনিটে দ্বিতীয় গোল করে তারা। এসময় সতীর্থের কাটব্যাক একজনের পা হয়ে পাওয়ার পর ডি-বক্সে ফাঁকায় বল পান ফরোয়ার্ড আল হাজরি। সুযোগ কাজে লাগাতে ভুল করেননি তিনি (২-০)। ম্যাচের ৭৩ মিনিটে আল হাজরি জোড়া গোলের সুযোগ তৈরি করেন। ভাগ্য সহায় হয়নি তার। পোস্টে লেগে বল ফিরে আসে। তবে ৮০ মিনিটে ঠিকই দলের তৃতীয় গোল আদায় করে নেন এই ফরোয়ার্ড। এসময় আব্দুল আজিজের পাস ধরে সুলাইমান আল আকবারি ছোট করে বাড়ান আল হাজরিকে। বাংলাদেশ গোলরক্ষক আনিসুর রহমান জিকো পোস্ট ছেড়ে বেরিয়ে যাওয়ায় অনায়াসে নিজের জোড়া গোল পূরণ করেন হাজরি।

ওমানের জয়ের ব্যবধানটা দ্বিগুণ হলেও অবাক হওয়ার কিছু ছিল না। দুইবার গোললাইন সেভ করেছেন ইব্রাহিম, পোস্ট আর ক্রসবারে লেগে বল ফিরেছে চারবার।

গোটা ম্যাচে গোল করার মতো একটি সুযোগ তৈরি করতে পেরেছিল বাংলাদেশ। ম্যাচের শেষ দিকে কর্নার থেকে ইয়াছিন আরাফাতের দারুণ হেড কর্নারের বিনিময়ে দলকে বিপদমুক্ত করেন ওমানের গোলরক্ষক।

৮ ম্যাচে দুই ড্র ও ছয় হারে মাত্র ২ পয়েন্ট নিয়ে বিশ্বকাপ ও এশিয়ান কাপ বাছাইয়ের গ্রুপ পর্ব শেষ করলো বাংলাদেশ। ‘ই’ গ্রুপে খেলা ৫ দেশের মধ্যে বাংলাদেশের অবস্থান সবার শেষে। আর সমান ম্যাচ খেলে ওমান ১৮ পয়েন্ট নিয়ে আছে দ্বিতীয়স্থানে। ২২ পয়েন্ট নিয়ে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন কাতার। ভারত ৭ পয়েন্ট নিয়ে তৃতীয় এবং আফগানিস্তান ৬ পয়েন্ট পেয়ে তালিকায় চতুর্থস্থানে থেকে বাছাই শেষ করলো।



 

Show all comments
  • মোঃ+দুলাল+মিয়া ১৬ জুন, ২০২১, ২:০২ এএম says : 0
    ওমানি যে খাওয়া দাওয়া খায় তাদের গায়ে যে শক্তি,তাদের যে শক্তি তাদের সাথে জিততে পারাটা সত্যিই অসম্ভব।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ফুটবল


আরও
আরও পড়ুন