Inqilab Logo

রোববার, ০১ আগস্ট ২০২১, ১৭ শ্রাবণ ১৪২৮, ২১ যিলহজ ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

মোদি সরকারের হিন্দুত্ববাদী নীতির কঠোর সমালোচনায় দিল্লি হাইকোর্ট

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৬ জুন, ২০২১, ৬:৩২ পিএম

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি সরকারের একপেশে হিন্দুত্বাবাদী নীতির কঠোর সমালোচনা করে ক্ষুব্ধ মনোভাব ব্যক্ত করেছেন দিল্লি হাইকোর্ট। কড়া ভাষায় এক আদেশে দেশটির উচ্চ আদালত বলেছে, ‘মনে হচ্ছে, ভিন্নমত দমনের তাড়নায় রাষ্ট্র সাংবিধানিকভাবে স্বীকৃত প্রতিবাদের অধিকার ও সন্ত্রাসী কার্যক্রমের ভেদরেখা গুলিয়ে ফেলেছে। -বিবিসি, আনন্দবাজার

এ মানসিকতা বেগবান হলে তা হবে গণতন্ত্রের জন্য এক দুঃখজনক দিন। মঙ্গলবার আদালত একটি জামিন আবেদন মঞ্জুর করে দেয়া রায়ে এই মন্তব্য করে। মঙ্গলবার ‘পিঞ্জরা তোড়’ (খাঁচা ভাঙো) সংগঠনের দুই সদস্য দেবাঙ্গনা কলিতা, নাতাশা নারওয়াল ও জামিয়া মিলিয়া ইসলামিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র আসিফ ইকবাল তানহার জামিন মঞ্জুর করেছে দিল্লি হাইকোর্ট। ২০১৯ - এ নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন নিয়ে দিল্লিতে হিংসার ঘটনায় ইউএপিএ মামলায় গ্রেফতার হয়েছিলেন ওই তিনজন । বিচারপতি সিদ্ধার্থ মৃদুল ও জয়রাম ভাম্বানির বেঞ্চে মামলাটি ওঠে মঙ্গলবার। বিচারপতিরা নিম্ন আদালতে রায়কে খারিজ করে শর্তসাপেক্ষে তিনজনের জামিন মঞ্জুর করে । দিল্লিতে সহিংসতা উস্কানি দেয়ার অভিযোগে ২০২০ সালে নাতাশা ও দেবাঙ্গনাকে গ্রেফতার করা হয় ।

এদিকে এক বিবৃতিতে ‘পিঞ্জরা তোড়’ জানিয়েছে, নাতাশা ও দেবাঙ্গনা নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের বিরুদ্ধে সরব হওয়ায় মুখ বন্ধ করতে তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ আনা হয়। গ্রেফতারও করা হয়। ২০১৯ - এর শেষের দিকে নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের বিরোধিতায় অগ্নিগর্ভ পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছিল দিল্লিতে। ওই ঘটনাকে কেন্দ্র করে যে হিংসা পরিস্থিতি সৃষ্টি হয় তাতে ৫৩ জনের মৃত্যুও হয়। যার বেশির ভাগই মুসলমান। হিংসায় উস্কানি দেয়ার অভিযোগ ওঠে বেশ কয়েকজনের বিরুদ্ধে। এ নিয়ে মামলাও হয়।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ভারত


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ