Inqilab Logo

সোমবার, ২৩ মে ২০২২, ০৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ২১ শাওয়াল ১৪৪৩ হিজরী

নারী নির্যাতন বন্ধ হোক

চিঠিপত্র

| প্রকাশের সময় : ১৭ জুন, ২০২১, ১২:০২ এএম

নারীর অবমাননা বা নির্যাতন সমাজে ভয়াবহ রূপ নিয়েছে। দেশে ধর্ষণ, গণধর্ষণ এমনকি ধর্ষণের পর হত্যার ঘটনা বেড়েই চলেছে। প্রতিদিন দেশের কোনো না কোনো স্থান থেকে ধর্ষণের ভয়াবহ বার্তা ভেসে আসে। সামাজিক অবক্ষয়ের ফলে প্রায়ই নারীদের উপর চালানো হয় নির্যাতন। এক প্রতিবেদনে এসেছে, ২০১৯ সালে সারাদেশে ধর্ষণ ও গণধর্ষণের শিকার হয়েছেন ১৪১৩ জন নারী। বাস্তব সংখ্যাটা হয়তো এর থেকে কয়েক গুণ বেশি। কারণ, ধর্ষণ বা যৌন হয়রানিতে ভুক্তভোগী অনেক পরিবার মেয়ের ভবিষ্যতের কথা চিন্তা করে কিংবা অপরাধী কতৃক নির্যাতনের ভয়ে ঘটনা চেপে রাখে। ২০২০ সালে মোট ৩৪৪৯ জন নারী ও কন্যা শিশু ধর্ষণ ও যৌন নির্যাতনের শিকার হয়েছেন। তার মধ্যে ১০৭৪ জন ধর্ষণ, ২৩৬ জন গণধর্ষণ ও ৩৩ জনকে ধর্ষণের পর হত্যা করা হয়। এভাবে প্রতিনিয়ত ধর্ষণ ও যৌন নির্যাতনের পরিমাণ বৃদ্ধি পাচ্ছে। নারীদের নিরাপত্তার জন্য প্রশাসনের যথাযথ পদক্ষেপ গ্রহণ করতে হবে। পাশাপাশি কোন নারী নির্যাতনের শিকার হলে অপরাধীকে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির ব্যবস্থা করতে হবে, যেন ভবিষ্যতে কেউ যেন নারীদের প্রতি নির্যাতন করার সাহস না করে। সর্বোপরি প্রশাসনের কঠোর ব্যবস্থার পাশাপাশি সমাজ ও পরিবারের সকলকে এ সমস্যা সম্পর্কে সতর্ক থাকতে হবে।

তামান্না আক্তার
শিক্ষার্থী, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়, ঢাকা।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: চিঠিপত্র

২৪ জানুয়ারি, ২০২২
১৪ অক্টোবর, ২০২১
২৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২১
২৮ জানুয়ারি, ২০২১
২৪ জানুয়ারি, ২০২১
১০ জানুয়ারি, ২০২১
২ জানুয়ারি, ২০২১
২০ ডিসেম্বর, ২০২০
১৩ ডিসেম্বর, ২০২০

আরও
আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ