Inqilab Logo

ঢাকা শনিবার, ২৪ জুলাই ২০২১, ৯ শ্রাবণ ১৪২৮, ১৩ যিলহজ ১৪৪২ হিজরী

বত্রিশেই এফটিসির চেয়ারম্যান!

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৮ জুন, ২০২১, ১২:০৭ এএম

বৃটেনে জন্মগ্রহণকারী মিস লিনা খান (৩২) মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ফেডারেল ট্রেড কমিশনের (এফটিসি) অত্যন্ত শক্তিধর চেয়ারম্যান পদের দায়িত্ব নিয়েছেন। ব্যবসায় অনিয়ম চর্চা থেকে ভোক্তাদের সুরক্ষা দেয় এফটিসি। একই সঙ্গে কোম্পানিগুলোর মধ্যে অন্যায় প্রতিযোগিতার বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেয়। লিনা খান গত মঙ্গলবার শপথ নিয়েছেন।

প্রযুক্তি বিষয়ক জায়ান্টদের জন্য উদ্বেগের কারন হচ্ছে লিনা খান তাদের সবচেয়ে বেশি সমালোচক। লিনা খানের জন্ম বৃটেনে হলেও তিনি শৈশবেই যুক্তরাষ্ট্রে পাড়ি জমান। চলতি বছরের প্রথম মাসে বিবিসি হার্ডটক অনুষ্ঠানে তিনি এক সাক্ষাৎকারে বলেছিলেন, কিভাবে গ্র্যাজুয়েশন সম্পন্ন করে একজন পলিসি গবেষক হিসেবে প্রতিযোগিতামূলক আইনের প্রতি আকৃষ্ট হন।

তিনি বলেন, আমার কাছে পরিষ্কার হয়ে গেল যে, যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে একটি সিস্টেমেটিক ট্রেন্ড কাজ করছে। এখানে বাজার নিয়ন্ত্রণ করছে খুবই অল্প সংখ্যক কিছু কোম্পানি। আস্তে আস্তে তার দৃষ্টি ফিরতে থাকে সিলিকন ভ্যালিতে প্রতিযোগিতার বিষয়ে।
তার বড় সমালোচনা হলো- বিগ টেক এমনিতেই একটি বড় প্রতিষ্ঠান। তারা প্রতিযোগিতার বাজারে প্রচুর খরচ করে। লিনা খানকে তার কিছু ডেমোক্রেট সহকর্মী পরামর্শ দিয়েছেন ফেসবুক এবং গুগলের আওতায় অন্য যেসব প্রতিষ্ঠান আছে সেগুলোকে আলাদা করে দিতে। উদাহরণ হিসেবে ইন্সটাগ্রাম থেকে ফেসবুককে আলাদা করে দেয়া যেতে পারে। গুগল থেকে আলাদা করে দেয়া যেতে পারে ইউটিউব’কে।

লিনা খানের মতো সমালোচকরা বলেন যে, প্রতিযোগিতার চ্যালেঞ্জে বর্তমান আইনগুলো উপযুক্ত নয়। তার মতে, এসব প্রতিষ্ঠান গড়ে উঠেছে ডিজিটাল যুগের অবকাঠামোতে। নির্বাহীদের একটি ক্ষুদ্র গ্রæপ নিয়ম করে দিচ্ছে, কে এসব অবকাঠামো ব্যবহার করতে পারবে এবং তাতে শর্ত কি। সূত্র : বিবিসি নিউজ, দ্য নিউইয়র্ক টাইমস।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ