Inqilab Logo

ঢাকা সোমবার, ২৬ জুলাই ২০২১, ১১ শ্রাবণ ১৪২৮, ১৫ যিলহজ ১৪৪২ হিজরী

ভারতের সাবরমতী নদীতে মিলল করোনাভাইরাস

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৯ জুন, ২০২১, ১২:০০ এএম

করোনাভাইরাসের সন্ধান মিলল আহমদাবাদের সবরমতী নদীতে। একই সঙ্গে শহরের দুই হ্রদ কাঁকরিয়া এবং চান্দোলার পানি থেকেও এই ভাইরাস মিলেছে বলে দাবি করা হয়েছে। ভারতে এই প্রথম কোনো নদীতে করোনাভাইরাসের অস্তিত্ব মিলল।
ইতোমধ্যেই সাবরমতী নদী এবং দুই হ্রদের পানির নমুনা সংগ্রহ করেছে গান্ধীনগর আইআইটি এবং জওহরলাল নেহেরু বিশ্ববিদ্যালয়ের স্কুল অব এনভায়রনমেন্ট সায়েন্স। গান্ধীনগর আর্থ সায়েন্সেস বিভাগের অধ্যাপক মণীশ কুমার জানিয়েছেন, নদী এবং হ্রদে সার্স কোভ-২ ভাইরাসের উপস্থিতি ভয়ানক পরিস্থিতি সৃষ্টি করতে পারে।
অধ্যাপক কুমার জানিয়েছেন, ২০১৯-এর ৩ সেপ্টেম্বর এবং ২৯ ডিসেম্বরের মধ্যে সপ্তাহে এক বার পানির নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে সাবরমতী নদী এবং কাঁকরিয়া ও চান্দোলা হ্রদ থেকে। সাবরমতী নদী থেকে ৬৯৪টি, চান্দোলা থেকে ৫৪৯ এবং কাঁকরিয়া হ্রদ থেকে ৪০২টি নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে।
উত্তরপ্রদেশে গঙ্গায় বহু কোভিড রোগীর লাশ ভাসতে দেখা গিয়েছিল। যা নিয়ে ভারত জুড়ে আতঙ্ক তৈরি হয়। একই সঙ্গে প্রশ্ন উঠতে শুরু করে নদীর পানিতে করোনাভাইরাসের অস্তিত্ব নিয়ে। সেই আশঙ্কাকে সত্যি করেই এবার সাবরমতী নদীর পানিতে মিলল করোনাভাইরাস। সূত্র : আনন্দবাজার ও ইন্ডিয়া টুডে।

 



 

Show all comments
  • MD Hafizul Islam ১৯ জুন, ২০২১, ২:২৪ এএম says : 0
    হবার মূল কারন করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত মৃত দেহ কবর কিংবা না পুড়িয়ে তা নদীতে ফেলাতে সেই মৃত দেহ পঁচে লক্ষ লক্ষ নতুন আপডেট ভার্সন ভাইরাসের জন্ম হয়েছে।
    Total Reply(0) Reply
  • Plus Point ১৯ জুন, ২০২১, ২:২৪ এএম says : 0
    নদী কে লকডাউন দেওয়া হোক!!
    Total Reply(0) Reply
  • Md Reza Raj ১৯ জুন, ২০২১, ২:২৪ এএম says : 0
    করোনা রুগির লাফ ফেলতে ফেলতে নদীটাও দূষিত করে ফেললো...
    Total Reply(0) Reply
  • Nusrat Farhana ১৯ জুন, ২০২১, ২:২৪ এএম says : 0
    এই খুশিতের ভারতীয় দালালদের নিয়ে এই নদীতে চুবানো হোক
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: করোনাভাইরাস


আরও
আরও পড়ুন