Inqilab Logo

মঙ্গলবার, ৩০ নভেম্বর ২০২১, ১৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ২৪ রবিউস সানী ১৪৪৩ হিজরী

খারাপ সম্পর্কের জন্য ফের ভারতকে দায়ী করলেন কুরেশি

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২০ জুন, ২০২১, ৪:১২ পিএম

দুই প্রতিবেশি দেশ ভারত-পাকিস্তানের মধ্যে সম্পর্ক একেবারেই তলানীতে। এর জন্য আবারও ভারতকেই দায়ী করলেন পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী শাহ মেহমুদ কুরেশি। তিনি বলেছেন, পাকিস্তান পুনর্মিলন চায়। কিন্তু ভারতের পক্ষ থেকে সে বিষয়ে সাড়া পাওয়া যায়নি। তারা উল্টো পরিস্থিতিতে ঘোলাটে করে এমন পদক্ষেপ নিয়েছে। টোলো নিউজকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি এসব মন্তব্য করেছেন।

সাক্ষাৎকারে শাহ মেহমুদ কুরেশি বলেছেন, ভারতের সঙ্গে আমরা পুনর্মিলনী চাই। প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান দায়িত্ব নেয়ার মুহূর্তেই বলেছেন, ভারত যদি এক পা অগ্রসর হয়, তাহলে আমরা শান্তি প্রতিষ্ঠার জন্য দুই পা অগ্রসর হবো। কিন্তু দুর্ভাগ্য, ভারত এতে কোনো সাড়া দেয়নি। তারা যেসব পদক্ষেপ বা ব্যবস্থা নিয়েছে, তাতে পরিস্থিতি শুধু কলুষিত হয়েছে। এ ছাড়া ২০১৯ সালের ৫ই আগস্ট ভারতীয় সংবিধান থেকে ৩৭০ ধারা বাতিল করে জম্মু ও কাশ্মীরের স্বায়ত্তশাসন বাতিল করেছে ভারত। এরও সমালোচনা করেন কুরেশি। ওই ঘটনার পর থেকেই ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে উত্তেজনা নতুন রূপ নিয়েছে।

ভারতের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে কড়া প্রতিক্রিয়া দেয়া হয় পাকিস্তান থেকে। এমনকি কূটনৈতিক সম্পর্ক পর্যন্ত অবনমন করা হয়। বহিষ্কার করা হয় ভারতীয় দূতকে। তবে নয়া দিল্লি বলে আসছে, সংবিধানের ৩৭০ অনুচ্ছেদ বাতিল করা তাদের আভ্যন্তরীণ বিষয়। ভারত আরো বলেছে, তারা পাকিস্তানের সঙ্গে স্বাভাবিক প্রতিবেশীসুলভ সম্পর্ক গড়ে তুলতে চায়। এ জন্য উপযুক্ত পরিস্থিতি সৃষ্টি করতে হবে ইসলামাবাদকে। এ জন্য সন্ত্রাসীরা যেসব এলাকা ব্যবহার করে তাদের কার্যক্রম চালায়, তাদেরকে সেই সুযোগ না দিয়ে বিশ্বাসযোগ্য এবং নির্ভরযোগ্য ব্যবস্থা নিতে হবে।

জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের বার্ষিক রিপোর্টের ওপর বিতর্কে ১১ই জুন নয়া দিল্লি বলেছে, ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে অনিষ্পন্ন ইস্যুগুলোর সমাধান হতে হবে দ্বিপক্ষীয়ভাবে। এরই মধ্যে ভারত ও পাকিস্তান ফেব্রুয়ারিতে ঘোষণা করে যে, তারা নিয়ন্ত্রণ রেখা বরাবর অস্ত্রবিরতিতে একমত হয়েছে। সূত্র: টিওআই।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: পাকিস্তান-ভারত


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ