Inqilab Logo

ঢাকা মঙ্গলবার, ২৭ জুলাই ২০২১, ১২ শ্রাবণ ১৪২৮, ১৬ যিলহজ ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

একজন মানুষের অর্থনৈতিক মুক্তি ত্বরান্বিত করে গৃহ -ধর্ম প্রতিমন্ত্রী

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২০ জুন, ২০২১, ৬:১৯ পিএম

ধর্ম প্রতিমন্ত্রী মো. ফরিদুল হক খান এমপি বলেছেন, গৃহের নিশ্চয়তা বাংলাদেশের প্রতিটি মানুষের সাংবিধানিক অধিকার। একটি গৃহ শুধু মাথা গোঁজার ঠাঁই নয় একজন মানুষের অর্থনৈতিক মুক্তি ত্বরান্বিত করে। আত্মমর্যাদা নিয়ে বেঁচে থাকার প্রেরণা জোগায় গৃহ। প্রতি মন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রীর পক্ষ থেকে জমি ও গৃহ প্রদানের সঙ্গে সঙ্গে সবুজ বেষ্টনী ও নির্মল পরিবেশ তৈরি এবং উপকারভোগীদের চাহিদা পূরণে ও বনজ বৃক্ষ রোপন এবং বিদ্যুৎ সংযোগ প্রদান প্রত্যেকটি পরিবারের জন্য বিশুদ্ধ খাবার পানি টয়লেট সুবিধা স্বাস্থ্যসেবা ও শিশুদের প্রাথমিক বিদ্যালয় গমন নিশ্চিতকরণসহ সকল নাগরিক সুবিধা প্রদান করা হচ্ছে। প্রতিমন্ত্রী আজ রোববার জামালপুরের ইসলামপুর উপজেলা প্রশাসন আয়োজিত প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দেয়া মুজিববর্ষ উপলক্ষে ২০০ ভূমিহীন-গৃহহীন পরিবারকে জমি ও গৃহ প্রদান কার্যক্রম ২য় পর্যায় এর শুভ উদ্বোধন অনুষ্ঠানে ঘরের সনদ,চাবি, জমির দলিল ও অন্যান্য উপহার সামগ্রী বিতরণকালে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন । ধর্ম মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র জনসংযোগ কর্মকর্তা মো. আনোয়ার হোসাইন এক বিজ্ঞপ্তিতে এতথ্য জানান। প্রতিমন্ত্রী বলেন, মুজিববর্ষ উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সরকারের গৃহীত বিশেষ কার্যক্রম হ'ল আশ্রয়ণ প্রকল্প। এর মাধ্যমে ভূমিহীন গৃহহীন, ছিন্নমূল অসহায় দরিদ্র জনগোষ্ঠীর পুনর্বাসন করা, ঋণদান ও প্রশিক্ষণের মাধ্যমে জীবিকা নির্বাহ সক্ষম করে তোলা এবং আয়বর্ধক কার্যক্রম সৃষ্টির মাধ্যমে দারিদ্র দূরীকরণের ব্যবস্থা করা হচ্ছে। ধর্ম প্রতিমন্ত্রী বলেন, আজ আরো ৫৩ হাজার ৩শ ৪০ টি পরিবারকে জমিসহ গৃহ প্রদান কার্যক্রম শুভ উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী। পর্যায়ক্রমে দেশের সকল ভূমিহীন গৃহহীন পরিবারকে জমি অগ্রিম প্রদান করা হবে।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, ক্ষুধামুক্ত-দারিদ্রমুক্ত সোনার বাংলা বিনির্মাণে মুজিববর্ষে "বাংলাদেশের একজন মানুষও গৃহহীন থাকবে না।" প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার এ নির্দেশনা শুধু ঘোষণা নয়। এ লক্ষ্যে ইতোমধ্যে সারাদেশের ভূমিহীন ও গৃহহীন ৮ লাখ ৮৫ হাজার ৬শত২২ টি পরিবারের তালিকা করা হয়েছে। প্রতিমন্ত্রী বলেন, আশ্রয়ণ প্রকল্পের মাধ্যমে ভূমিহীন গৃহহীন ছিন্নমূল মানুষকে শুধু গৃহ প্রদান করা হয় না, পুনর্বাসিত পরিবারসমূহকে প্রশিক্ষণ, ঋণ, শিক্ষা, স্বাস্থ্য এবং পরিবার পরিকল্পনা কার্যক্রমসহ বিভিন্ন সুবিধা প্রদান করে তাদেরকে জাতীয় অর্থনীতির মূলধারায় সম্পৃক্ত করা হচ্ছে। ইসলামপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার এস এম মাজহারুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন ইসলামপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট এস এম জামাল আব্দুন নাছের বাবুল, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ইসলামপুর (সার্কেল) সুমন মিয়া, ইসলামপুর উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুল খালেক আকন্দ, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান রোজিনা আক্তার চায়না, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কর্মকর্তা ডা. এটিএম আবু তাহের, উপজেলা প্রকৌশলী আমিনুল হক ও স্থানীয় থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আ. মাজেদ।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ধর্ম প্রতিমন্ত্রী


আরও
আরও পড়ুন