Inqilab Logo

রোববার, ০১ আগস্ট ২০২১, ১৭ শ্রাবণ ১৪২৮, ২১ যিলহজ ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

লড়াই করছেন গাড়ি চালিয়ে!

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২১ জুন, ২০২১, ১২:০০ এএম

ভারতে করোনা সংক্রমণ এখন নীচের দিকে। কিন্তু কয়েক সপ্তাহ আগেও ছবিটা এমন ছিল না। সংক্রমণের প্রকোপে মৃত্যুর সংখ্যা লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছিল। কিন্তু শম্পা নন্দী আর টগরী শীল এসবের পরোয়া করেননি। কোভিড রোগীদের সেবা দিতে তারা প্রথম সারিতে নেমে কাজ করেছেন। সেবা দিয়ে চলছেন এখনও।
কলকাতা শহরের বুকে পিঙ্ক ট্যাক্সি চালান বিজয়গড়ের শম্পা নন্দী। কোভিডের অনেক আগেই তার গাড়ির যাত্রা শুরু হয়েছিল। কোভিডের সময় শহর কলকাতা দেখল তার অন্য রূপ। পিপিই পোশাক পরে তিনি প্রথম ঢেউ থেকেই কোভিড আক্রান্তদের ট্যাক্সি পরিষেবা দিয়েছেন। তিনি বলেন, ‘যেদিন প্রথম বলা হয়েছিল কোভিড ডিউটি করতে, আমি রাজি হয়ে গিয়েছিলাম। কোনো ভয় বা নার্ভাস লাগেনি। মানুষের দরকার, মানুষের পাশে দাঁড়াব। তাই আমি আর কিছু ভাবিনি।’

নারী হিসেবে পিছিয়ে থাকতে রাজি নন তিনি। তাই নিরাপত্তা নিয়ে আপোস না করেই লক্ষ্যে এগিয়ে যাচ্ছেন কলকাতার অন্যান্য নারী গাড়িচালকদের সঙ্গে। আবার পেশাদার ক্যাব পরিষেবার বাইরে একজন মা তিনি। কোভিড ডিউটি করে মেয়ের রান্না থেকে সংসারের যাবতীয় তাকেই দেখতে হয়। কখনো রান্না করতে করতে কোভিড রোগীর অনুরোধ এলে তাকে সব ফেলে বেরোতে হন। শম্পা খেয়াল করেছেন, চিকিৎসাকর্মীদের মতোই কোভিডের সঙ্গে গাড়িচালকদেরও লড়াই কতটা কঠিন! প্রথম সারির যোদ্ধা হিসেবে ভ্যাকসিনের জন্য তারাও অগ্রাধিকার পেলে ভাল হতো। সূত্র : ডয়চে ভেলে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ