Inqilab Logo

ঢাকা মঙ্গলবার, ২৭ জুলাই ২০২১, ১২ শ্রাবণ ১৪২৮, ১৬ যিলহজ ১৪৪২ হিজরী

গড়লেন এক বিরল সততা!

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৪ জুন, ২০২১, ১২:০১ এএম

অর্থ সুখ বয়ে আনে ঠিকই। কিন্তু এই অর্থ যদি আবার অনর্থের কারণ হয় তাহলে কেমন হয়? মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডার জুলিয়া ইয়োনোস্কি নামে এক মহিলা ব্যাংকে গিয়েছিলেন অ্যাকাউন্ট থেকে মাত্র ২০ ডলার তুলতে। ব্যালেন্স চেক করার সময় তার চোখ কপালে উঠে যায়।
একি! অজানা কারণে তার অ্যাকাউন্টে চলে এসেছে ৯৯৯,৯৮৫,৮৫৫.৯৪ ডলার (বাংলাদেশী মুদ্রায় প্রায় সাড়ে ৮ হাজার কোটি টাকা)। একসঙ্গে এত টাকা কী করে তার অ্যাকাউন্টে এসেছে তা ভেবেই পাচ্ছেন না জুলিয়া।
গত শনিবার তিনি এটিএমে যাওয়ার পর বুঝতে পেরেছিলেন আমেরিকার ৬১৫তম ধনী ব্যক্তির খেতাবটা অনায়াসেই অর্জন করে ফেলেছেন। তবে, জুলিয়া বারবার জানিয়েছেন তিনি ব্যাংকের সঙ্গে যোগাযোগ করে ওই টাকা তার আসল মালিককে ফিরিয়ে দিতে চান। কিন্তু সেই সঙ্গে এটাও জানিয়েছেন ব্যাংকের সঙ্গে যোগাযোগ করার চেষ্টা করলেও এখন কেউ তার ফোন ধরছে না।

ডব্লিউএফএলএ নিউজ চ্যানেলকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে জুলিয়া জানান, ‘প্রথমে আমি ভীষণ ভয় পেয়েছিলাম। এত টাকা অ্যাকাউন্টে এলো কী করে? আমি জানি বেশির ভাগ লোকেরা ভাবেন যে তারা লটারি জিতেছেন, তবে আমি এখন আর ভীত হই। আমি তো কেবল ২০ ডলারই তুলতে গিয়েছিলাম।’

টাকা তুলে ব্যালেন্স চেক না করলে হয়তো জুলিয়া জানতেই পারতেন না আর মাত্র কয়েক হাজার টাকার জন্য বিলিয়নেয়ার খেতাবটা তার হাতছাড়া হয়ে গেল। তবে এই টাকা তিনি খরচ করতে চান না, কারণ এটি তার টাকা নয়। সাইবার অপরাধের জাল যেভাবে ছড়িয়ে পড়েছে সেই কথা মনে করে এখন আশঙ্কাতেই রয়েছেন জুলিয়া। তাই যত দ্রুত সম্ভব নিজের ব্যাংকের সঙ্গে যোগাযোগ করে এই অর্থ-অনর্থের দ্বন্দ্ব থেকে মুক্তি পেতে চান জুলিয়া ইয়োনোস্কি। সূত্র : নিউইয়র্ক পোস্ট, পিপল ডটকম।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ