Inqilab Logo

ঢাকা মঙ্গলবার, ২৭ জুলাই ২০২১, ১২ শ্রাবণ ১৪২৮, ১৬ যিলহজ ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

চুয়াডাঙ্গায় করোনায় ৩ দিনে ৮ জনের মৃত্যু, উপসর্গ নিয়ে মারা গেছে ৩ জন

নতুন ১৮২টি নমুনা পরীক্ষায় করোনা আক্রান্ত ৮৯ জন

চুয়াডাঙ্গা জেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ২৪ জুন, ২০২১, ২:০১ পিএম | আপডেট : ৪:২৮ পিএম, ২৪ জুন, ২০২১

চুয়াডাঙ্গা জেলায় করোনা আক্রান্ত রোগী ও মৃত্যুর সংখ্যা বেড়েই চলেছে। গত ৩ দিনে এ জেলায় ৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। করোনা উপসর্গ নিয়ে মারা গেছে ৩ জন।
চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা.এ.এস.এম.ফাতেহ্ আকরাম জানান, গত মঙ্গল ও বৃহস্পতিবার দুপুর পর্যন্ত চুয়াডাঙ্গায় করোনা আক্রান্ত হয়ে আরও ৮জনের মৃত্যু হয়েছে। এর হলেন, চুয়াডাঙ্গা পৌর এলাকার ঝিনাইদহ বাসষ্ট্যান্ডপাড়ার খলিল রহমানের স্ত্রী জাহানারা বেগম (৬০), সদর উপজেলার তিতুদহ গ্রামের মরহুম সুরোত আলী জোয়ার্দ্দারের ছেলে দরবেশ আলী (৬০),জেলার জীবননগর উপজেলার কালা গ্রামের মাঝেরপাড়ার মরহুম ফকির চাঁদ বিশ্বাসের ছেলে আবুল কাশেম বিশ্বাস (৭০) ও একই উপজেলার বেনীপুর গ্রামের ফকরুদ্দীন বিশ্বাসের মেয়ে ফরিদা খাতুন (৪০), বাঁকা গ্রামের হাউস আলীর ছেলে আব্দুস সোবহান (৬০)। দামুড়হুদা উপজেলার হাউলী ইউনিয়নের লোকনাথপুর গ্রামের পশ্চিমপাড়ার মরহুম সিরাজুল ইসলামের ছেলে শহিদুল ইসলাম (৬৫) ও একই গ্রামের আব্দুল ওহাবের ছেলে রুহুল আমীন (৭৯) এবং একই উপজেলার বিষ্ণুপুর গ্রামের মদন মিয়ার স্ত্রী তাসলিমা বেগম (৫৫)।
তিনি আরো জানান, বৃহস্পতিবার দুপর পর্যন্ত উপসর্গ নিয়ে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে মারা গেছে দামুড়হুদা উপজেলার দর্শনা চন্ডিপুর গ্রামের মুকতার আলীর ছেলে আরশাদ (৫৫), একই উপজেলার গোপালপুর গ্রামের বাদল মোল্লার স্ত্রী মোনোয়ারা খাতুন (৬৫) ও মদনা গ্রামের ফকিরের ছেলে ইসমাইল (৭০)।
চুয়াডাঙ্গা সিভিল সার্জন এ.এস.এম. মারুফ হাসান জানান, কিছু টেলিভিশন চ্যানেল ও অনলাইন নিউজ পোর্টাল সংবাদ প্রকাশ করেছে যে, ‘৪১টি নমুনা পরীক্ষায় ৪১ জনই করোনা আক্রান্ত, চুয়াডাঙ্গায় করোনা পরীক্ষায় ১০০ ভাগ করোনা পজিটিভ’। এই সংবাদে বিভ্রান্ত ছড়িয়েছে। যা কাম্য নয়। তিনি সংবাদকর্মীদের দায়িত্বশীল সংবাদ প্রকাশের ক্ষেত্রে যতœবান হওয়ার আহবান জানিয়ে বলেন, প্রকৃত অর্থে গত বুধবার চুয়াডাঙ্গায় নতুন করে ১৮২টি নমুনা পরীক্ষায় ৮৯ জন করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে। নমুনা পরীক্ষার বিবেচনায় শনাক্তের হার ৪৮ দশমিক ৯০ শতাংশ। এ নিয়ে জেলায় মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়ালো ২ হাজার ৮৩৭ জন, সুস্থ্য হয়েছে ২ হাজার ৪৯ জন, বর্তমানে আক্রান্ত ৬৯৭ জন। এর মধ্যে হোম আয়সোলেশনে আছে ৬৩৩ জন, হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছে ৬১ জন ও রেফার করা হয়েছে ৩জন। এ পর্যন্ত মৃত্যুবরণ করেছে ৯২ জন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: করোনাভাইরাস


আরও
আরও পড়ুন