Inqilab Logo

সোমবার, ০৪ জুলাই ২০২২, ২০ আষাঢ় ১৪২৯, ০৪ যিলহজ ১৪৪৩ হিজরী
শিরোনাম

স্বামীর কোদালের কোপে স্ত্রী নিহত : পরকীয়ার জেরে স্বামীকে হত্যা

প্রকাশের সময় : ২৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৬, ১২:০০ এএম

বাগমারা উপজেলা সংবাদদাতা : রাজশাহীর বাগমারায় স্বামীর হাতে স্ত্রী ও স্ত্রীর হাতে স্বামী হত্যার অভিযোগ উঠেছে। ওই ঘটনায় পুলিশ স্ত্রী হত্যাকারী স্বামী মিঠু (৩৫) ও স্বামী হত্যাকারী স্ত্রী খুরশিদা বেগম খুশিকে গ্রেফতার করেছে। স্বামীর হাতে নিহত স্ত্রীর নাম তহমিনা খাতুন (২৫) এবং স্ত্রীর হাতে নিহত স্বামীর নাম সাজ্জাদ হোসেন (৩০)।
খোঁজ নিয়ে জানা যায়, বাগমারা উপজেলার আউচপাড়া ইউনিয়নের শিয়ালী গ্রামের আবেদ আলীর ছেলে মিঠুর গতকাল (শনিবার) সকালে সামান্য বিষয় নিয়ে স্ত্রী তহমিনার সাথে কথা কাটাকাটি হয়। কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে মিঠু হাতে থাকা কোঁদাল দিয়ে স্ত্রী তহমিনার মাথায় কোপ দেয়। তহমিনা খাতুন মাটিয়ে লুটিয়ে পড়ে ঘটনাস্থলেই মারা যান। ঘাতক মিঠু পালিয়ে যাওয়ার সময় এলাকার লোকজন তাকে আটক করে পুলিশে খবর দেয়। পুলিশ খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছে নিহত তহমিনার লাশ উদ্ধার করে এবং সেইসাথে হত্যাকারী স্বামী মিঠুকে গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে আসে।
অপরদিকে উপজেলার গনিপুর ইউনিয়নের রঘুপাড়া গ্রামের মৃত আজাহার আলী ছেলে সাজ্জাদ হোসেনের স্ত্রী খুরশিদা বেগম (২৫)। বিয়ের পর থেকেই মোবাইল ফোনে অন্য জনের সাথে প্রেমের সম্পর্ক জড়িয়ে পড়ে। ভালোবাসার টানে সে মাঝেমধ্যে স্বামীর বাড়ি থেকে প্রেমিকের সাথে দেখা করতে যেত বলে জানিয়েছে গ্রামবাসী। পরকীয়ার জেরেই এই হত্যাকা-ের ঘটনা ঘটতে পারে বলে জানান তারা। সেই থেকেই স্বামী সাজ্জাদ হোসেনের সাথে স্ত্রী খুরশিদা বেগমের মনোমালিন্যের সৃষ্টি হয়। সে কারণে তাদের সংসারে সব সময় ঝগড়া-বিবাদ লেগেই থাকত। এরই মাঝে তাদের সংসারে একটি পুত্র সন্তান জন্মলাভ করে। গত শুক্রবার সন্ধ্যায় স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে ঝগড়া-বিবাদ হয়। রাতের খাবার শেষে তারা একই ঘরে ঘুমিয়ে পড়েন। রাতের কোনো এক সময়ে ঘুমন্ত স্বামী সাজ্জাদ হোসেনকে স্ত্রী খুরশিদা বেগম শ্বাসরোধ করে হত্যা করে।
গতকাল (শনিবার) ভোরে বাড়ির লোকজন সাজ্জাদ হোসেনকে ডাকতে গেলে স্ত্রী খুরশিদা বেগম বলেন, সে এখনো উঠেনি। একটু বেলা হলে স্ত্রী খুরশিদা বেগম হাউ-মাউ করে কাঁদতে শুরু করে। প্রতিবেশীরা এগিয়ে আসলে জানায়, তার স্বামী মারা গেছে। প্রতিবেশীরা ঘরে ঢুকে সাজ্জাদ হোসেনের লাশ দেখতে পায়। বিষয়টি নিয়ে এলাকার লোকজনের মধ্যে সন্দেহ হলে তারা থানায় অবহিত করে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে যায় এবং নিহত সাজ্জাদ হোসেনের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য থানায় নিয়ে আসে। ওই ঘটনায় পুলিশ স্ত্রী খুরশিদা বেগমকে গ্রেফতার করে।
এ ব্যাপারে যোগাযোগ করা হলে বাগমারা থানার ওসি সেলিম হোসেন দুটি হত্যার ঘটনা স্বীকার করে বলেন, খুনি গ্রেফতার করা হয়েছে, তাদের বিরুদ্ধে থানায় হত্যা মামলা দায়ের হচ্ছে। লাশ দুটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হবে বলে জানান তিনি।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: স্বামীর কোদালের কোপে স্ত্রী নিহত : পরকীয়ার জেরে স্বামীকে হত্যা
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ