Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ২ আশ্বিন ১৪২৬, ১৭ মুহাররম ১৪৪১ হিজরী।

তাসকিন-মোসাদ্দেকে ফুরফুরে হাতুরুসিংহে

প্রকাশের সময় : ২৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৬, ১২:০০ এএম

বিশেষ সংবাদদাতা : গত বছর পাকিস্তানের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজ বাদ দিলে অন্য তিনটি সিরিজেই জয়ের নায়ক বাঁ হাতি কাটার মাস্টার। অভিষেকে ভারতের বিপক্ষে ম্যাচ উইনিং ৫ উইকেট, পরের ম্যাচে সেই ভারতের বিপক্ষে ৬ উইকেটে কি আগমনী বার্তাই না দিয়েছিলেন সাতক্ষীরার এই ছেলেটি। বছরে ৯ ওয়ানডে ম্যাচে ২৬ উইকেটে নিজেকে অন্য উচ্চতায় তুলে আইসিসি’র বর্ষসেরা ওয়ানডে দলে পর্যন্ত হয়েছেন বিবেচ্য। ১০ মাস পর ওয়ানডে ক্রিকেটে বাংলাদেশের প্রত্যাবর্তন ম্যাচে সেই মুস্তাফিজুর দর্শক। যে বোলারকে ঘিরে ম্যাচ জয়ের ছক অকতো বাংলাদেশ দল, দলের বোলিং লাইন আপের সেই নিউক্লিয়াস মুস্তাফিজুরের অভাবটা তাই ভালই অনুভব করছেন মাশরাফিÑ ‘সত্যি বলতে আমরা ফিজকে মিস করব।’
তবে ইনজুরির কারণে মুস্তাফিজুরের অনুপস্থিতিতে যে দলটিকে পেয়েছেন মাশরাফি, সেই দলটির বোলিং শক্তিও সমীহ জাগানো। এমন বোলিং কম্বিনেশন নিয়েই দারুন কিছুর সম্ভাবনা দেখছেন মাশরাফিÑ ‘মুস্তাফিজ দলে থাকতেও যে চ্যালেঞ্জ ছিল না, তা কিন্তু নয়। এখনও একই চ্যালেঞ্জের মুখে পড়তে হচ্ছে আমাদেরকে। আমাদের দলে যারা আছে তাদেরও ভালো করার সামর্থ আছে। সর্বশেষ বিশ্বকাপে আমাদের যে বোলিং অ্যাটাক ছিল, সেই অ্যাটাকই আমরা পেয়েছি। আমরা যারা আছি তাদেরও প্রমাণ করার একটা সুযোগ আছে। যারা বাইরে ছিল তারা নিজেদের প্রমাণ করার একটা সুযোগ পেয়েছে।’
আফগানিস্তানের বিপক্ষে মাশরাফির দর্শন একটাই, আক্রমণাত্মক ক্রিকেট। সে হুংকারটা দিয়েছেন সিরিজপূর্ব সংবাদ সম্মেলনেÑ ‘অবশ্যই আমরা আক্রমণাত্মক ক্রিকেট খেলতে চাই। আমরা যেভাবে শেষ করেছি সেভাবেই খেলা শুরু করতে চাই। অনেক সময় আমাদেরকে ডিফেন্সিভ খেলতে হয়। তবে শুরুতে আমরা চাইব আমাদের সেরা ক্রিকেটটাই খেলতে। সেরা ক্রিকেট বলতে অবশ্যই এটা না যে মানসিকভাবে আমরা রক্ষণাত্মক হয়ে খেলব।’
এদিকে আইসিসি’র বোলিং নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে তাসকিনের মুক্তিতে স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলেছেন বাংলাদেশ হেড কোচ হাতুরুসিংহে। তাসকিনকে পেয়ে ভারমুক্ত হয়েছেন বলে মনে করছেন তিনিÑ ‘অবশ্যই বিশ্ব ক্রিকেটে তাসকিনের গুণগত দক্ষতা যেকোন দলকে লাভবান করবে। সে আমাদের অন্যতম একজন সেরা বোলার। তাই সে এসেছে এবং আমরা খুবই ভারমুক্ত হয়েছি তার ওপর থেকে নিষেধাজ্ঞা উঠে যাওয়াতে।’
মোসাদ্দেকের অন্তর্ভুক্তিতে দলটির শক্তি বেড়ে গেছে বলে মনে করছেন হাতুরুসিংহে। ২১ বছর বয়সী এই ক্রিকেটার যে এখন ওয়ানডে অভিষেকের সামনে দাঁড়িয়ে, সে আভাস দিয়েছেন তিনিÑ ‘মোসাদ্দেক দারুণ মেধাবী। সে প্রথম শ্রেণীর ক্রিকেট ও ঢাকা প্রিমিয়ার লীগে খুবই ভাল খেলেছে। আমরা চার-পাঁচটি টি অনুশীলন ম্যাচ তাকে দেখেছি। গতকাল (শুক্রবার) সে অবশ্যই তার সামর্থ্য দেখিয়েছে। সুতরাং যারা দলে আছে তাদের ওপর একটা বাড়তি চাপ তৈরি করেছে মোসাদ্দেক। এটা আমার ও নির্বাচকদের জন্য খুবই সুবিধাজনক পরিস্থিতি।’
জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সর্বশেষ ওয়ানডে সিরিজে ৪ উইকেট, টি-২০ বিশ্বকাপে ৭ উইকেট, সর্বশেষ ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেট লীগে ২৩ উইকেট। এমন বোলিং ধারাবাহিকতার পরও আল আমিনের জায়গা হয়নি ঘোষিত স্কোয়াডে। বরং প্রায় ২ বছর ওয়ানডের বাইরে কাটিয়ে ফিরেছেন শফিউল। তারপরও নির্বাচকদের দল নির্বাচনের স্ট্র্যাটেজীকেই হাততালি দিয়েছেন হাতুরুসিংহেÑ ‘এখানে আল-আমিন নেই বলেই এটা প্রমাণ হয় না যে সে শেষ হয়ে গেছে। আমরা যদি অন্য কোন দলের বিরুদ্ধে খেলতাম সেক্ষেত্রে ভিন্নরকমের দৃশ্য দেখা যেত। যখন শফিউল ফিট ও অন্য যে কারও মতোই যথেষ্ট ভাল তাই সে দলে এসেছে। আমরা শফিউলকে দুটি ম্যাচ সুযোগ দিয়েছি, সে কি করে তা দেখার জন্য।’
১৪ সদস্যের দলটি স্পিন নির্ভর হবে, না পেস নির্ভর, কৌশলগত কারণে তা মিডিয়ায় বলতে চাননি হাতুরুসিংহে। তবে সর্বশেষ এশিয়া কাপ, টি-২০ বিশ্বকাপে তিন নম্বরে দারুণ ব্যাট করেও ৫০ ওভারের ক্রিকেটে গুরুত্বপূর্ণ এই পজিশনে সাব্বির রহমান রুম্মানকে জায়গা দেয়ার কথা এক্ষুণি ভাবছেন না মাশরাফিÑ ‘গত দেড় বছরের পারফরমেন্সে তিনে যারা খেলেছেন, তারা কেউ খারাপ খেলেনি। তিন এ খেলবে কে, টিম এবং প্রতিপক্ষের কথা চিন্তা করে করা হয়। তিন নম্বরে টি-টোয়েন্টিতে সাব্বির খেলেছে। এটা কিন্তু যে সবার কাছ থেকে দেখে, টিমের অবস্থা কোন জায়গায় আছে সে কেমন করছে, এটা আমাদের থেকে কোচ আরও ভালো করে দেখেন। দিন শেষে সে একটা কল নেবেই। ওটা ছিল টি-টোয়েন্টি ফরম্যাট, এটা ওয়ানডে ফরম্যাট। যে ভালো করছে তাকে সুযোগ দেয়া উচিত।’



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন