Inqilab Logo

সোমবার, ২৩ মে ২০২২, ০৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ২১ শাওয়াল ১৪৪৩ হিজরী

জলবায়ু পরিবর্তনের জেরে উত্তর গোলার্ধ্ব পুড়ছে

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৫ জুলাই, ২০২১, ১২:০১ এএম

মঙ্গলবার কানাডারক্ষুদ্র শহর লিটন একটি মারাত্মক রেকর্ড করেছে। সেখানে কানাডার সর্বোচ্চতম তাপমাত্রা অনুভূত হয়েছে। এক সপ্তাহের বেশি সময় ধরে অভূতপূর্ব তাপপ্রবাহে দেশটিতে কয়েকশ’ মানুষের মৃত্যু হয়েছে। এবং ব্রিটিশ কলম্বিয়া জুড়ে ২৪০টিরও বেশি দাবানল ছড়িয়ে পড়েছিল, যার বেশিরভাগ এখনও জ্বলন্ত অবস্থায় রয়েছে।

পাহাড়ের নীচে অবস্থিত মাত্র ২৫০ জনের শহর লিটনের তাপমাত্রা ৪৯ দশমিক ৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস (১২১ দশমিক ৩ ডিগ্রি ফারেনহাইট) ছুঁয়েছে। যেখানে জুনে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা সাধারণত ২৫ ডিগ্রির মধ্যে থাকে। এসব অঞ্চলে শীতাতপ নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থা বিরল এবং ঘরগুলো তাপ ধরে রাখার জন্য ডিজাইন করা হয়েছে। এবার আগুনে লিটনের বেশিরভাগ অংশ ছাই হয়ে গেছে এবং এর বাসিন্দাদের পাশাপাশি আশেপাশের শতাধিক মানুষকে পালিয়ে যেতে বাধ্য করেছে। বিজ্ঞানীরা কয়েক দশক ধরে সতর্ক করেছেন যে, জলবায়ু পরিবর্তন তাপের তরঙ্গকে আরও ঘন এবং আরও তীব্র করে তুলবে। এটি কানাডায় এখন বাস্তবতার মুখোমুখি হচ্ছে, তবে উত্তর গোলার্ধের আরও অনেক অংশেও এর প্রভাব পড়ছে। চলতি সপ্তাহে আমেরিকার উত্তর-পশ্চিমে রাস্তাগুলি গলে গেছে, এবং নিউইয়র্ক সিটির বাসিন্দাদের বিদ্যুত গ্রিডের জন্য উচ্চতর শক্তির সরঞ্জাম, যেমন ওয়াশার, ড্রায়ার, এমনকি তাদের এয়ার কন্ডিশনার ব্যবহার না করার কথা বলা হয়েছিল।

রাশিয়ার মস্কোতে গত ২৩ জুন তাপমাত্রা ছিল ৩৪ দশমিক ৮ ডিগ্রি। যা ছিল জুন মাসে দেশটির ইতিহাসে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা। এবং সাইবেরিয়ার কৃষকরা চলমান তাপ প্রবাহে তাদের ফসলকে বাঁচাতে হিমশিম খাচ্ছেন। এমনকি আর্কটিক সার্কেলেও তাপমাত্রা ৩০ এর ঘরে চলে এসেছে। ২০ জুন সাইবেরিয়ার ভার্খোয়ানস্কের একটি আবহাওয়া স্টেশন তাপমাত্রা ৩৮ ডিগ্রি বলে ঘোষণা দেয়ার পর থেকে বিশ্ব আবহাওয়া সংস্থা আর্টিকিক সার্কেলের উত্তরে সর্বাধিক সর্বোচ্চ তাপমাত্রা যাচাই করতে শুরু করেছেন। ভারতে উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলে কয়েক মিলিয়ন মানুষ তাপ প্রবাহে আক্রান্ত হয়েছে। বুধবার ভারতীয় আবহাওয়া অধিদফতর রাজধানী নয়াদিল্লি এবং এর আশেপাশের শহরগুলোকে ‘তীব্র প্রচন্ড তাপ’ হিসাবে চিহ্নিত করেছে। তাপমাত্রা ধারাবাহিকভাবে চল্লিশের ঘরে স্থির ছিল, যা স্বাভাবিকের চেয়ে ৭ ডিগ্রি বেশি। বর্ষার পাশাপাশি উত্তাপও রাজস্থান রাজ্যের মতো অঞ্চলে কৃষকদের জীবনকে জটিল করে তুলছে। ইরাকে রাজধানী বাগদাদ সহ বৃহস্পতিবারের জন্য বেশ কয়েকটি প্রদেশ জুড়ে সরকারি ছুটি ঘোষণা করেছে কর্তৃপক্ষ। কারণ তাপমাত্রা ৫০ ডিগ্রি ছাড়িয়ে যাওয়ার পরে এবং এর বিদ্যুৎ ব্যবস্থা ভেঙে যাওয়ার পরে সেখানে কাজ করা বা পড়াশোনা করা কঠিন ছিল।

এ বিষয়ে বিশেষজ্ঞরা বলছেন যে, এই তাপতরঙ্গ একইসাথে উত্তর গোলার্ধের বেশ কয়েকটি অংশকে আঘাত করছে এমন ঘটনা কাকতালীয় ঘটনা নয়। যুক্তরাজ্যের রয়্যাল মেটেরোলজিকাল সোসাইটির চিফ এক্সিকিউটিভ লিজ বেন্টলে সিএনএনকে জানিয়েছেন, ‘কানাডা এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে আমরা যে উচ্চতাপ দেখছি, এর পেছনে দায়ী জেট স্ট্রিম নামক ব্যাপার। এর ফলে খুব তীব্র বাতাস আমাদের মাথার উপরে প্রায় ৩০ হাজার ফুট উপর দিয়ে বয়ে যায়। এর ফলে নিচে তাপপ্রবাহের সৃষ্টি হয়।’ সূত্র : সিএনএন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: জলবায়ু পরিবর্তন

১৪ সেপ্টেম্বর, ২০২০

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ