Inqilab Logo

সোমবার, ২৯ নভেম্বর ২০২১, ১৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ২৩ রবিউস সানী ১৪৪৩ হিজরী

চকরিয়ায় স্কুলছাত্রী অপহরণের ৩৯ দিনেও উদ্ধার হয়নি

কক্সবাজার জেলা সংবাদদাতা : | প্রকাশের সময় : ৮ জুলাই, ২০২১, ১২:০২ এএম

অপহরণের পর ৩৯ দিন পেরিয়ে গেলেও খোঁজ মেলেনি চকরিয়ার দশম শ্রেণির স্কুলছাত্রীর। একদল বখাটে তাকে অপহরণ করেছে বলে অভিযোগ করেছে ভুক্তভোগীর পরিবার। এ ঘটনায় অভিযুক্ত বখাটে তৌহিদুল ইসলাম ও তার সহযোগীদের এখনো গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ।

ভুক্তভোগী পরিবার জানায়, অপহরণের পর বোনকে উদ্ধারে বড় ভাই আপন সুশীল বখাটেদের বিরুদ্ধে থানায় মামলা করতে যান। এ সময় পুলিশের পরামর্শে সাধারণ ডায়েরি করা হয়। পরে বাবা স্বপন কুমার সুশীল বাদী হয়ে কক্সবাজার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে বখাটে তৌহিদুল ইসলামের নাম উল্লেখসহ তার সহযোগীদের বিরুদ্ধে অভিযোগ করেন। সেই অভিযোগ আমলে নেন আদালতের বিচারক। মামলা রুজু করতে থানা ওসিকে নির্দেশ দেয়া হয়। গত ২৬ জুন মামলাটি রেকর্ড করা হয়। তবে এতকিছুর পরেও মেয়ের কোনো খোঁজ না পেয়ে তার পরিবারে নেমে এসেছে হতাশা। মেয়ের খোঁজে প্রতিনিয়ত এখানে-ওখানে ধর্না দিচ্ছেন তারা। এ অবস্থায় ব্রেন স্ট্রোকে আক্রান্ত হয়ে শয্যাশায়ী হয়ে পরেছেন মা সবিতা রাণী সুশীল।
বড় ভাই আপন সুশীল জানান, উপজেলার পূর্ব বড় ভেওলা ইউনিয়নের জিএনএ মিশনারী উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী তার বোন। স্কুলে আসা-যাওয়ার পথে ৫ নম্বর ওয়ার্ডের মাইজ পাড়ার নজু ইসলামের ছেলে তৌহিদুল ইসলামসহ একদল বখাটে তাকে উত্ত্যক্ত ও কু-প্রস্তাব দিয়ে আসছিল। এ নিয়ে তৌহিদের বাবা-মা, স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যানসহ গণ্যমান্য ব্যক্তিদের দ্বারস্থ হলেও পাওয়া যায়নি কোনো সমাধান।
জানা গেছে, গত ২৮ মে সকালে বাড়ি থেকে একটু দূরে টিউবওয়েলের পানি আনতে যায় মেয়েটি। এ সময় আগে থেকেই ওঁত পেতে থাকা বখাটে তৌহিদুল ইসলাম ও তার সহযোগীরা জোরপূর্বক একটি সিএনজি অটোরিকশায় তুলে অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে যায়। ঘটনার পর তৌহিদের বাবা, মা মেয়েকে উদ্ধার করে দেবেন বলে আশ্বাস দেয়। তবে তারা সময়ক্ষেপণ করলে থানার দ্বারস্থ হয় ভুক্তভোগীর পরিবার।
এ ব্যাপারে চকরিয়া থানার ওসি শাকের মো. যুবায়ের বলেন, এ ঘটনায় ইতোমধ্যে আদালতের নির্দেশে থানায় মামলা হয়েছে। ভিকটিমকে উদ্ধার এবং আসামিকে গ্রেফতারে পুলিশ তৎপর রয়েছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ