Inqilab Logo

মঙ্গলবার, ১৯ অক্টোবর ২০২১, ০৩ কার্তিক ১৪২৮, ১১ রবিউল আউয়াল সফর ১৪৪৩ হিজরী

দুই অনুষ্ঠানের প্রভাবে দেশ আজ বিপর্যস্ত

সংবাদ সম্মেলনে মাহমুদুর রহমান মান্না

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৮ জুলাই, ২০২১, ১২:০১ এএম

নাগরিক ঐক্যের আহবায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না অভিযোগ করে বলেছেন, স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী এবং জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকীর অনুষ্ঠানের প্রভাবে দেশ বিপর্যস্ত। জাতি আজ তারই খেসারত দিচ্ছে। গতকাল ভার্চুয়ালি অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে মাহমুদুর রহমান মান্না এসব অভিযোগ করেন।
মান্না তার লিখিত বক্তব্যে বলেন, এপ্রিল মাসে আমরা সন্দেহ প্রকাশ করে বলেছিলাম দুই অনুষ্ঠানের প্রভাবে দেশ বিপর্যয়ের মুখোমুখি হচ্ছে। দু’মাস পর সেই সন্দেহই বাস্তবে রূপান্তরিত হয়েছে। জানুয়ারি মাসে দেশে করোনার ইউকে এবং সাউথ আফ্রিকান ভ্যারিয়েন্ট পাওয়া গেলেও তা জানানো হয়েছিল মার্চ মাসে। এর মধ্যে দেশে অনেকগুলো তথাকথিত স্থানীয় সরকার নির্বাচন হয়েছে। মার্চ মাসের শুরুতেই করোনার ঊর্ধ্বমুখী গ্রাফ দেখা গেলেও মার্চের শেষ দুই সপ্তাহে স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী এবং শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকীর অনুষ্ঠান জাঁকজমকভাবে পালন করার জন্য সরকার অন্যান্য ক্ষেত্রে কোনও কথা বলেনি। মূলত এই দুইটি অনুষ্ঠানই এই জাতিকে ভয়ঙ্কর ঝুঁকির সামনে ফেলে দিয়েছিল, যার খেসারত দিচ্ছে পুরো দেশ। যার ফলশ্রুতিতে এখন দেশে এক দিনে ১১ হাজারের বেশি করোনা রোগী শনাক্ত এবং দুই শতাধিক মানুষ করোনা আক্রান্ত হয়ে মারা যাচ্ছে। এই মানুষগুলোর জীবনের চেয়ে কি ওই দুটো অনুষ্ঠান পালন বেশি গুরুত্বপূর্ণ ছিল?
ঢাকসুর সাবেক এ ভিপি টিকার অনিশ্চয়তা নিয়ে বলেন, এখনও পর্যন্ত টিকা নিয়ে অনিশ্চয়তার মধ্যে দেশ। হার্ড ইমিউনিটির জন্য দেশের ১৩ কোটি মানুষকে টিকা দেয়ার ব্যবস্থা করতে হবে। অথচ কয়েক লাখ টিকার ব্যবস্থা করেই সরকারের অথর্ব স্বাস্থ্যমন্ত্রী গলাবাজি শুরু করেছেন। মান্না দাবি করেন, অবস্থা দেখে যা বোঝা যাচ্ছে, তাতে এই সরকার ক্ষমতায় থাকলে আগামী বছরের মধ্যেও ১৩ কোটি তো দূরের কথা, ৩ কোটি মানুষকেও করোনা টিকা দেয়া সম্ভব হবে না।
সংবাদ সম্মেলনে মান্নার অভিযোগ, দেশের শিক্ষাব্যবস্থাকে ধ্বংসের দ্বারপ্রান্তে নিয়ে এসেছে সরকার। যেখানে সারা বিশ্ব করোনা প্রকোপ কিছুটা কমার সঙ্গে সঙ্গেই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান চালুর চেষ্টা করেছে, সেখানে আমাদের দেশে সবকিছু চালু করলেও একবারও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার উদ্যোগ নেয়া হয়নি।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: মাহমুদুর রহমান মান্না

৫ মার্চ, ২০২০

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ