Inqilab Logo

শনিবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১০ আশ্বিন ১৪২৮, ১৭ সফর ১৪৪৩ হিজরী

মাহমুদউল্লাহ-তাসকিনে বাংলাদেশের বড় সংগ্রহ

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৮ জুলাই, ২০২১, ৬:৩৬ পিএম

মাহমুদউল্লাহ অপরাজিত থাকলেন ১৫০ রানে। বাংলাদেশের শেষ ব্যাটসম্যান হিসেবে আউট হলেন ইবাদত হোসেন। সব মিলিয়ে দলীয় রান ৪৬৮।

মাহমুদউল্লাহ ক্যারিয়ার সেরা ইনিংসের দেখা পেলেন হারারেতে। এর আগে ১৪৬ রান করেছিলেন নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে। ২৭৮ বলে ১৭ চার ও ১ ছক্কায় ক্যারিয়ার সেরা ইনিংসটি সাজান ডানহাতি ব্যাটসম্যান। ১৬ মাস পর টেস্ট দলে ফিরে অভিজ্ঞতার সবটুকু ঢেলে দিয়েছেন ডানহাতি ব্যাটসম্যান। তাতে রানের পাহাড় গড়েছে বাংলাদেশ।

শুরুতে ৮ রান তুলতে ২ উইকেট হারিয়েছিল বাংলাদেশ। অধিনায়ক মুমিনুলের ৭০ রানে কিছুটা লড়াই করে অতিথিরা। এরপর আবার ছন্দপতন। ১৩২ রানে নেই ৬ উইকেট। সেখান থেকে লিটন ও মাহমুদউল্লাহর লড়াইয়ে বাংলাদেশ ম্যাচে ফেরে। লিটন ৯৫ রানে বিদায় নিলেও মাহমুদউল্লাহ তুলে নেন সেঞ্চুরি। এরপর তাসকিন ও মাহমুদউল্লাহর ১৯১ রানের জুটিতে বাংলাদেশের রান চুড়ায় পৌঁছে।

স্কোর: বাংলাদশ ৪৬৮/১০

অল্পের জন্য বিশ্ব রেকর্ড হলো না

দেশের হয়ে রেকর্ড রানের জুটি গড়ে থামল মাহমুদউল্লাহ ও তাসকিনের লড়াই। তবে অল্পের জন্য বিশ্বরেকর্ড গড়া হলো না তাদের। বাংলাদেশের টেস্ট ক্রিকেট ইতিহাসে নবম উইকেট জুটিতে সর্বোচ্চ ১৯১ রান করেছেন তারা। টেস্ট ক্রিকেট ইতিহাসে নবম উইকেট জুটিতে সর্বোচ্চ রান ১৯৫। দক্ষিণ আফ্রিকার মার্ক বাউচার ও প্যাট সিমকক্স পাকিস্তানের বিপক্ষে এ রান করেছিলেন। মাত্র ৫ রানের জন্য মাহমুদউল্লাহ ও তাসকিনের নাম শীর্ষে ওঠেনি। বাংলাদেশের হয়ে এর আগে নবম উইকেটে মাহমুদউল্লাহ ও আবুল হাসান ১৮৪ রান করেছিলেন।

তাসকিনের আউটে ভাঙে এ বীরত্ব। বাঁহাতি ব্যাটসম্যান ক্যারিয়ার সর্বোচ্চ ৭৫ রান করে মিল্টন শুম্বার বলে বোল্ড হন। স্লগ সুইপ করতে গিয়ে উইকেট হারান তিনি। ১৩৪ বলে ৭৫ রানের ইনিংসটি সাজান ১১টি দারুণ বাউন্ডারিতে।

স্মরণীয় এক সেশন

তাসকিন আহমেদের কভার ড্রাইভে মুগ্ধ হয়ে স্লিপের ফিল্ডার মিল্টন শুম্ভা হাততালি দিলেন। অনেকটা মুগ্ধ হয়ে তাকিয়ে আছেন তিনি। নাম্বার টেন ব্যাটসম্যানের ব্যাটে এতো সুন্দর শট। ধারাভাষ্যে থাকা আতাহার আলী ফেসবুকে স্টাটাস, ‘তাসকিন আহমেদ প্লেইস আ বিউটি।’

বল হাতে উইকেট নেওয়া তাসকিনের আসল কাজ। তবে হারারেতে ভিন্ন তাসকিনকেই পাওয়া গেল। যিনি কিনা ব্যাট হাতেও ছড়ান মুগ্ধতা। দলকে ভালো জায়গায় নিয়ে যেতে সংগ্রামী ইনিংস খেললেন বাঁহাতি ব্যাটসম্যান। সঙ্গে ছিলেন মাহমুদউল্লাহ। ১৬ মাস পর দলে ফিরে মাহমুদউল্লাহ পেয়েছেন সেঞ্চুরির স্বাদ। আর তাসকিন আহমেদ তুলে নিয়েছেন টেস্ট ও প্রথম শ্রেণির ক্রিকেট ক্যারিয়ারের প্রথম ফিফটি। তাতে উড়ছে বাংলাদেশ দল। ৮ উইকেট হারিয়ে বাংলাদেশের রান ৪০৪। এ সেশনে কোনো উইকেট হারায়নি বাংলাদেশ।

মাহমুদউল্লাহর সেঞ্চুরি, তাসকিনের ফিফটি

১৬ মাস পর টেস্ট দলে ফিরে সেঞ্চুরির দেখা পেলেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। স্পিনার রয় কাইয়াকে পরপর দুই চারে ৯৫ থেকে সেঞ্চুরির মাইলফলক স্পর্শ করেন মাহমুদউল্লাহ। ক্যারিয়ারের ৫০তম টেস্ট খেলতে নেমে পঞ্চম টেস্ট সেঞ্চুরি পেলেন অভিজ্ঞ এ ক্রিকেটার।

মাহমুদউল্লাহর মাইলফলক ছোঁয়ার পরপরই তাসকিন টেস্ট ক্রিকেটের প্রথম হাফ সেঞ্চুরির স্বাদ পান। যা তার প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটেরও প্রথম হাফ সেঞ্চুরি। দায়িত্বশীল ব্যাটিংয়ে বাঁহাতি ব্যাটসম্যান ছড়াচ্ছেন মুগ্ধতা।

স্কোর: বাংলাদশে ৩৯৭/৮

ব্যাটিং: মাহমুদউল্লাহ ১০৬, তাসকিন ৫১

জুটি: ১২৭ (১৪৬)

আউট: আউট: সাইফ ০, শান্ত ২, সাদমান ২৩, মুশফিকুর রহিম ১১, সাকিব আল হাসান ৩, মুমিনুল ৭০, লিটন ৯৫, মিরাজ ০।

জিম্বাবুয়েতে বাংলাদেশের সর্বোচ্চ রান

এর আগে জিম্বাবুয়ের মাটিতে বাংলাদেশের সর্বোচ্চ রান ছিল ৩৯১। ৮ বছর আগে সবশেষ সফরে হারারের এই মাঠেই ৩৯১ রান করেছিল মুশফিকের দল। সেবার ১১৩.২ ওভার ব্যাটিং করেছিল অতিথিরা। এবার ১০০ ওভারেই বাংলাদেশের রান চুড়ায় পৌঁছে যায়।

মাহমুদউল্লাহ-তাসকিন জুটির শতরান

দলকে বিপদমুক্ত করে ভালো অবস্থানে নিয়ে যাচ্ছেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ও তাসকিন আহমেদ। দুজনের জুটির রান একশ পেরিয়ে গেছে। ১২১ বলে তাদের জুটির রান তিন অঙ্ক ছাড়িয়ে যায়। এতে মাহমুদউল্লাহর অবদান ৪৩, তাসকিনের ৪২। বাকি রান এসেছে অতিরিক্ত খাত থেকে।

এর আগে নবম উইকেটে বাংলাদেশের শতরানের জুটি ছিল দুইটি। আবুল হাসান ও মাহমুদউল্লাহ ২০১২ সালে খুলনায় ১৮৪ রান করেছিলেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে। পরের বছর রবিউল ইসলাম ও সোহাগ গাজী করেছিলেন ১০৫ রান নিউ জিল্যান্ডের বিপক্ষে।

তাসকিনের ক্যারিয়ার সেরা ইনিংস

ক্ল্যাসিকাল সব শটে তাসকিন ২২ গজে ছড়াচ্ছেন মুগ্ধতা। তাতে বাড়ছে রান। ৩৮ রানে অপরাজিত আছেন বাঁহাতি ব্যাটসম্যান। যা তার ক্যারিয়ারের সর্বোচ্চ রান। এর আগে ২০১৭ সালে নিউজিল্যান্ডে ৩৩ রান করেছিলেন তিনি। আজ কী প্রথম ফিফটির দেখা পাবেন তিনি।

জীবন পেলেন তাসকিন

দারুণ ব্যাটিং করতে থাকা তাসকিনকে ৩২ রানে জীবন দিলেন মিল্টন শুম্বা। রিচার্ড এনগারাভার লেন্থ বল ড্রাইভ করেছিলেন তাসকিন। ব্যাটের কানায় লেগে বল যায় দ্বিতীয় স্লিপে। শুরুতে বল তালুবন্দি করলেন শেষ পর্যন্ত জমিয়ে রাখতে পারেননি।

কত দূর যাবে বাংলাদেশ?

হারারের উইকেটে কত রান নিরাপদ নিশ্চিত নয় বাংলাদেশ। প্রথম দিন শেষে দলের ব্যাটিং পরামর্শক অ্যাশওয়েল প্রিন্স জানিয়েছেন, হাতে দুই উইকেট রেখে যতটা সম্ভব রান বাড়াতে চায় বাংলাদেশ।

৮ উইকেটে ২৯৪ রানে বৃহস্পতিবার দ্বিতীয় দিনের খেলা শুরু করেছে মুমিনুল হকের দল। ৫৪ রানে মাহমুদউল্লাহ ও ১৩ রানে তাসকিন ব্যাটিং করছেন। এরপর আছেন ইবাদত হোসেন। তাদের হাত ধরে কতদূর যাবে বাংলাদেশ সেটাই এখন সবথেকে বড় প্রশ্ন।

১৬ মাস পর টেস্ট দলে ফিরে মাহমুদউল্লাহ নিজের অভিজ্ঞতা সবটুকু ঢেলে দিয়েছেন ২২ গজে। দলকে খাদের কিনারা থেকে তুলে এনে সম্মানজনক স্থানে নিয়ে গেছেন। তবে এখনও বহুদূর যেতে হবে তাকে। তার ব্যাট হাসলে হাসবে বাংলাদেশও।

প্রথম দিন মাত্র ৫ রানের জন্য সেঞ্চুরি মিস করেছেন লিটন। মুমিনুলের ব্যাট থেকে এসেছিল ৭০ রান। বাকিরা কেউই দায়িত্ব নিতে পারেননি।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ক্রিকেট

৫ সেপ্টেম্বর, ২০২১

আরও
আরও পড়ুন