Inqilab Logo

সোমবার, ২৫ অক্টোবর ২০২১, ০৯ কার্তিক ১৪২৮, ১৭ রবিউল আউয়াল সফর ১৪৪৩ হিজরী
শিরোনাম

টিকা গ্রহণ ছাড়া সউদীর কর্মস্থলে ঢুকতে পারবে না প্রবাসীরা

ডেট লাইন ১ আগস্ট : ২৪ হাজার নিবন্ধন সম্পন্ন

শামসুল ইসলাম | প্রকাশের সময় : ৮ জুলাই, ২০২১, ৮:১১ পিএম

আগামী ১ আগস্ট থেকে করোনার টিকা গ্রহণ ছাড়া সউদী আরবের কর্মস্থলে (সরকারি, বেসরকারি ও বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠান) কোনো অভিবাসী কর্মী ও সউদি নাগরিককে প্রবেশ করতে দেয়া হবে না। টিকা দিয়েই সবাইকে সউদীর স্ব স্ব কর্মস্থলে যেতে হবে। সউদী আরবের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের বরাদ দিয়ে গতকাল বুধবার সউদী গেজেট এ সংবাদ প্রকাশ করেছে। জনগণের স্বাস্থ্য সুরক্ষা এবং করোনা মহামারি সংক্রমণ রোধের লক্ষ্যেই সউদী স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় এ নির্দেশনা জারি করেছে। সউদীর জেদ্দাস্থ বাংলাদেশ কনস্যুলেট জেনারেল অফিসের শ্রম সচিব মো. আমিনুল ইসলাম আজ বৃহস্পতিবার ইনকিলাবকে এ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, রাজকীয় সউদী সরকার জননিরাপত্তার কথা বিবেচনা করে গত মার্চ মাস থেকে দেশটিতে বসবাসকারী সকল অভিবাসী কর্মী ও সউদী নাগরিকদের বিনা মূল্যে টিকা দিচ্ছে। প্রবাসী বাংলাদেশি কর্মীরাও বিনা মূল্যে করোনার টিকা গ্রহণ করছে। দেশটিতে বর্তমানে প্রায় বিশ লাখ প্রবাসী বাংলাদেশি কঠোর পরিশ্রম করে প্রচুর রেমিট্যান্স পাঠাচ্ছে। বর্তমানের যেসব কর্মী সউদী আরবে যাচ্ছে তারা সউদী বিমান বন্দর থেকে সরাসরি নির্ধারিত হোটেল কোয়ারেন্টিনে একসপ্তাহ অবস্থান করে কর্মস্থলে যোগদান করছে। এতে প্রবাসী কর্মীদের হোটেল কোয়ারেন্টিনের ৬০ হাজার টাকা থেকে ৭০ হাজার টাকা ব্যয় করতে হচ্ছে। এতে বিপুল পরিমাণ বৈদেশিক মুদ্রা সউদী চলে যাচ্ছে। গরীব অসহায় প্রবাসী কর্মীদের হোটেল কোয়ারেন্টিনের অর্থ ব্যয় করতে হিমসিম খেতে হচ্ছে।

এদিকে, করোনা মহামারির মাঝেও প্রবাসী বাংলাদেশিরা প্রচুর রেমিট্যান্স পাঠানো অব্যাহত রেখেছেন। ফলে ২০২০-২১ অর্থবছরে দেশে রেকর্ড পরিমাণ ২৪৭৭ কোটি ৭৭ লাখ ডলার রেমিট্যান্স এসেছে। যা আগের অর্থবছরের চেয়ে ৩৬.১০ শতাংশ বেশি। এর আগে কোনও অর্থবছরে এত পরিমাণ রেমিট্যান্স আসেনি বাংলাদেশে। বাংলাদেশ ব্যাংকের প্রকাশিত প্রতিবেদন থেকে এ তথ্য জানা গেছে।

কেন্দ্রীয় ব্যাংকের প্রতিবেদনের তথ্য অনুযায়ী, গত ২০২০-২১ অর্থবছরের শেষ মাস জুনে প্রবাসী বাংলাদেশিরা ১৯৪ কোটি ডলার রেমিট্যান্স দেশে পাঠিয়েছেন। গত বছরের জুনে প্রবাসীদের রেমিট্যান্স পাঠিয়ে ছিলেন ১৮৩ কোটি ২৬ লাখ ডলার।

এদিকে, আগামী ৩১ জুলাই এর মধ্যে যেসব প্রবাসী কর্মী হোটেল কোয়ারেন্টিনের অর্থ ব্যয় করে সউদী যাবেন তাদেরকে ঐ দেশে গিয়ে করোনা টিকা দিতে হবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিদেশগামী কর্মীদের অগ্রাধিকার ভিত্তিতে করোনা টিকা দেয়ার নির্দেশ দিয়েছেন। বিদেশগামী কর্মীরা আজ বৃহস্পতিবার পর্যন্ত বিএমইটির মাধ্যমে প্রায় ২৪ হাজার টিকার নিবন্ধন সম্পন্ন করেছে। আরো কয়েক হাজার টিকার নিবন্ধনের প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। বিএমইটির সূত্র এতথ্য জানায়।

সউদী আরব বিদেশগামী কর্মীদের ভ্যাকসিন বিষয় গত ১৪ জুন বাংলাদেশ কনস্যুলেট জেনারেল জেদ্দা থেকে একটি নোটিশ করা হয়েছে। যেখানে সুস্পষ্ট ভাবে লেখা রয়েছে শুধু মাত্র জনসন এন্ড জনসন এর একডোজ টিকা দিয়ে কর্মীরা সউদী আরব যেতে পারবেন। তাদেরকে হোটেল কোয়ারেন্টাইন লাগবে না। এ ছাড়া ফাইজার, মর্ডানা ও অক্সফোর্ড এর টিকার দুই ডোজ নিয়ে বিদেশে যাওয়া যাবে। এতে নতুন কর্মীদের হোটেল কোয়ারেন্টিন লাগবে না।

রিক্রুটিং এজেন্সিজ ঐক্য পরিষদের সভাপতি এম টিপু সুলতান আজ এক বিবৃতিতে বিদেশগামী কর্মীদের অগ্রাধিকার ভিত্তিতে করোনা টিকা দেয়ার নির্দেশ দেয়ায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে আন্তরিক অভিনন্দন জানিয়েছেন। বিবৃতিতে তিনি আরো বলেন, আগামী ১ আগস্ট থেকে সউদী সরকার টিকা গ্রহণ ছাড়া কোনো প্রবাসীকে দেশটি সংশ্লিষ্ট কর্মস্থলে ঢুকতে দিবে না। সেক্ষেত্রে যেসব প্রবাসী কর্মীর পাসপোর্ট, ভিসা, ইকামা রয়েছে তাদেরকে অনস্পর্ট রেজিষ্ট্রেশন করে অতি দ্রুত টিকা দেয়ার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন। যেহেতু জনসন এন্ড জনসন এর এক ডোজ টিকা দিলেই হোটেল কোয়ারেন্টিন খরচ ছাড়াই কর্মীরা সউদী গমন করতে পারবে। সেহেতু প্রবাসীদের জন্য বিশেষ বিবেচনায় দ্রুত জনসন এন্ড জনসন এর টিকা ক্রয় করার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের লক্ষ্যে সরকারের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেন তিনি।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: করোনা ভ্যাকসিন


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ