Inqilab Logo

মঙ্গলবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৬ আশ্বিন ১৪২৮, ১৩ সফর ১৪৪৩ হিজরী

বগুড়ার শেরপুর উপজেলায় পুকুরে পানিতে ডুবে দুই বোনের মৃত্যু

বগুড়া ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ১১ জুলাই, ২০২১, ৬:০৩ পিএম

বগুড়ার শেরপুরে বাড়ির পাশের একটি পুকুরে গোসল করতে নেমে পানিতে ডুবে দুই স্কুলছাত্রীর মৃত্যু হয়েছে। রবিবার দুপুরের দিকে উপজেলার খানপুর ইউনিয়নের ভাটরা গ্রামে এই ঘটনা ঘটে। মৃত শিশুরা হলো উপজেলার খানপুর ইউনিয়নের ভাটরা গ্রামের জাহিদুল ইসলামের মেয়ে মোছাঃ জিমি খাতুন (১১) ও সিরাজগঞ্জের কাজীপুর উপজেলার বেলতলা সুমন মিয়ার মেয়ে মোছাঃ মিম আক্তার (১২)। তারা সম্পর্কে মামাতো ফুফাতো বোন।
পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, মিমের বাবা-মা ঢাকায় গামেন্টেস্ চাকরি করেন। তাই ভাটরা গ্রামে নানা সুমন আলীর বাড়িতে থেকে পড়াশোনা করছে। ঘটনার দিন বেলা এগারোটার দিকে ওই দুই স্কুলছাত্রী অন্য শিশুদের সঙ্গে বাড়ির পাশের পুকুরে গোসল করতে নামে। একপর্যায়ে সাঁতার না জানা জিমি খাতুন পানিতে ডুবে যায়। তাকে উদ্ধারে এগিয়ে যায় ফুফাতো বোন মিম আক্তার। কিন্তু সেও পানিতে তলিয়ে গিয়ে নিখোঁজ হয়। এসময় অন্য শিশুদের চিৎকারে আশপাশের লোকজন এসে তাদের খোঁজাখুঁজি শুরু করেন। স্থানীয় ফায়ার সার্ভিস এন্ড সিভিল ডিফেন্সের কর্মীদের সংবাদ দেওয়া হয়। কিন্তু তারা ঘটনাস্থলে পৌঁছার আগেই নিখোঁজ শিক্ষার্থীদের মরদেহ ভেসে উঠে।
ভাটরা গ্রামের বাসিন্দা জাহিদুল ইসলাম বলেন, বাড়ির মধ্যে থেকেই শিশু-কিশোরদের চিৎকার চেঁচামেচি শুনতে পাই। পরবর্তীতে পানিতে ডুবে যাওয়া ওই দুই শিশুদের উদ্ধারে বহু চেষ্টা করেও তাদের বাঁচানো যায়নি। একসঙ্গে মামাতো-ফুফাতো দুই বোনের মৃত্যুর ঘটনায় এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।
শেরপুর থানার অফিসার ইসচার্জ (ওসি) মো. শহিদুল ইসলাম বলেন, পুকুরে গোসল করতে নেমে দুই বোন নিখোঁজ হয়েছে-এমন খবর পেয়েই ঘটনাস্থলে ছুটে যাই। সঙ্গে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরাও ছিলেন। তবে আমরা ঘটনাস্থলে যাওয়ার আগেই লাশ পানিতে ভেসে উঠে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: পানিতে ডুবে মৃত্যু


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ