Inqilab Logo

রোববার, ১৭ অক্টোবর ২০২১, ০১ কার্তিক ১৪২৮, ০৯ রবিউল আউয়াল সফর ১৪৪৩ হিজরী
শিরোনাম

শিশুকে চুবিয়ে হত্যার তিন দিন পর লাশ উদ্ধার, খালু গ্রেপ্তার

সাভার থেকে স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১২ জুলাই, ২০২১, ৪:২০ পিএম

স্বর্ণের এক জোড়া কানের দুল নিয়ে দ্বন্দ্বের জের ধরে আট বছরের এক শিশুকে পানিতে চুবিয়ে হত্যার পর বিলের কচুরীপানার নীচে লাশটি লুকিয়ে রাখে শিশুটির খালু। তাকে আটকের পর স্বীকারুক্তি অনুযায়ী পুলিশ লাশটি উদ্ধার করে।
সোমবার ভোরে সাভারের রাজফুলবাড়িয়া এলাকার তরফ রাজাঘাট মহল্লার একটি বিলের কচুরিপানার নীচ থেকে শিশুটির মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।
নিহত রাজিয়া সুলতানা (০৮) রংপুর জেলার মিঠাপুকুর থানার পায়রাবতি বিষ্ণুপুর এলাকার আব্দুল জলিলের মেয়ে। সে সাভারের তরফ রাজাঘাট মহল্লার সোহেলের বাড়িতে পোশাক শ্রমিক বাবা-মায়ের সাথে ভাড়া থাকতো।
গ্রেপ্তার নাজমুল হাসান (২৬) রংপুর জেলার পীরগাছা থানার চৌধুরানী এলাকার বাসিন্দা। তিনি নিহত রাজিয়ার আপন খালু।
পুলিশ জানায়, গ্রেপ্তার নাজমুল ও শিশু রাজিয়া সুলতানার পরিবার রাজফুলবাড়িয়ার একই মহল্লায় ভাড়া থেকে পোশাক কারখানায় কাজ করতো।
কিছুদিন আগে নাজমুল রাজিয়ার মায়ের একজোড়া কানের দুল বন্ধকের কথা বলে বিক্রি করে দেয়। সেই কানের দুল বার বার রাজিয়ার মা ফেরত চাইলে ক্ষিপ্ত হয় নাজমুল।
গত শুক্রবার বিকেলে কাউকে না জানিয়ে শিশু রাজিয়াকে ঘুরতে নিয়ে নাজমুল তরফ রাজাঘাট এলাকার একটি বিলের পানিতে চুবিয়ে হত্যার পর রাজিয়াকে কচুরিপানা দিয়ে ঢেকে রাখে।
এদিকে রাজিয়াকে খোঁজাখুঁজি করে না পেয়ে তার বাবা আব্দুল জলিল ওই রাতেই সাভার মডেল থানায় একটা নিখোঁজ ডায়েরি করেন। পরে নাজমুল রাজিয়ার মায়ের মুঠফোনে ফোন করে রাজিয়া তার কাছে আছে ভাল আছে জানায়।
বিষয়টি তারা পুলিশকে জানালে শনিবার জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নাজমুলকে আটক করে। পরে তাকে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদ করলেও নাজমুল রাজিয়ার বিষয়ে মুখ খোলেনি। অবশেষে রবিবার রাতে পুনরায় জিজ্ঞাসাবাদে রাজিয়াকে হত্যার কথা স্বীকার করেন। তার স্বীকারুক্তি অনুযায়ী দেখিয়ে দেয়া বিলের কচুরিপানার নীচ থেকে সোমবার সকালে পুলিশ শিশু রাজিয়ার মরদেহ উদ্ধার করে। সাভার মডেল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) কামাল হোসেন জানান, বিক্রি করা কানের দুল বাব বার ফেরত চাওয়ায় রাগের মাথায় সে শিশু রাজিয়াকে হত্যার পরিকল্পনা করে।
ময়নাতদন্তের জন্য নিহতের মরদেহ ঢাকার শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। আটক নাজমুলকে গ্রেপ্তার দেখিয়ে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: খালু গ্রেপ্তার
আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ