Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৫ আশ্বিন ১৪২৫, ৯ মুহাররাম ১৪৪০ হিজরী‌

রাশিয়া-ভারত বিশেষ সম্পর্ক এখন তলানিতে

যৌথ সামরিক মহড়ার জন্য পাকিস্তানের মাটিতে রুশ সেনা

প্রকাশের সময় : ২৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৬, ১২:০০ এএম

ইনকিলাব ডেস্ক : কাশ্মীর সীমান্তে ভারত-পাকিস্তান চরম উত্তেজনার মধ্যে যৌথ সামরিক মহড়ার জন্য পাকিস্তানে অবস্থান নিয়েছে রাশিয়ার সেনাবাহিনী। সন্ত্রাসবিরোধী যৌথ মহড়ার অংশ হিসেবে ইসলামাবাদের সঙ্গে মস্কোর সম্পর্কের উন্নতি ভাবিয়ে তুলেছে ভারত। রাশিয়ার ভøাদিভস্তকে আট বছর ধরে নিয়মিত যৌথ মহড়া দিয়ে আসছে রাশিয়া ও ভারতের সেনাবাহিনী। এর মধ্যেই দুই সপ্তাহের সামরিক মহড়ায় পাকিস্তান এসেছে রুশ বাহিনী। আবার আগামী কয়েক সপ্তহের মধ্যে ভারত সফরে আসবেন রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভøাদিমির পুতিন। কৌশগত ও অর্থনৈতিক সম্পর্ক দৃঢ় করার জন্য আলোচনা হবে তখন। তবে ইসলামাবাদের মাটিতে রুশ সেনাদের উপস্থিতির কারণে ভারত-রাশিয়া বিশেষ সম্পর্ক তখন খুব সাধারণ ও গতানুগতিক একটি সম্পর্কে পরিণত হয়েছে।
ভারতীয় সূত্র জানায়, রাশিয়ার সঙ্গে সম্পর্কের স্থিতাবস্থা ধরে রাখাটা এখন একটা চ্যালেঞ্জে পরিণত হয়েছে। ভারতের প্রধান অস্ত্র সরবরাহকারী দেশটিকে ইতিমধ্যে এ শংকার কথা জানানো হয়েছে। ভারত অথবা পাকিস্তানের মধ্য থেকে যে কোনো একটিকে বেছে নিতে বলা হয়েছে তাদের। ভারতীয় বিশেষজ্ঞরা মনে করেন, চীনের সঙ্গেও সম্পর্কের উন্নতি ঘটছে রাশিয়ার। তথ্যপপ্রযুক্তি বিনিময়ের মতো স্পর্শকাতর সম্পর্কে ঘনিষ্ঠতা বাড়ছে তাদের। ভারতের সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের সম্পর্ক বৃদ্ধির কারণেই রাশিয়া এ উদ্যোগ নিয়েছে। এমনকি দক্ষিণ চীন সাগর ইস্যুতে সরাসরি চীনের পক্ষে অবস্থান নিচ্ছে রাশিয়া। এখানে যৌথ সামরিক মহড়ায়ও চীনের সঙ্গে অংশ নেয় তারা। এখন চীনের মিত্র পাকিস্তানের প্রতি হৃদ্যতার হাত বাড়াচ্ছে রাশিয়া।
ইউরোপ, যুক্তরাষ্ট্র ও ইসরাইলের সঙ্গে ভারতের ক্রমবধর্মান কৌশলগত সম্পর্কের কারণেই ঐতিহাসিক বন্ধুত্বকে ভুলে নতুন সম্পর্কের দিকে ঝুঁকছে রুশরা। এ অঞ্চলে চীন ও পাকিস্তানের সঙ্গে রাশিয়ার বন্ধনে ভবিষ্যতে ভারতের সমস্যায় পড়ায় আশংকা আছে বলে মনে করেন ভারতীয় কূটনীতিকরা। তাদের দাবি, ভারতের পররাষ্ট্রনীতির একটি গুরুত্বপূর্ণ জায়গা হল রাশিয়া। দেশ দুটির মধ্যে পরমাণু সহযোগিতা বিদ্যমান। এমনকি রাশিয়ার বাজারে ওষুধ বিক্রির জন্য অনেক অর্থ বিনিয়োগ করেছে ভারতীয় ব্যবসায়ীরা। অন্যদিকে কোনো মধ্যস্থতাকারী ছাড়াই সরাসরি রাশিয়ার কাছ থেকে হীরা কিনছে ভারত। কয়েক দশক ধরে ক্রমেই বিশ্বস্ত হয়ে ওঠা দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক হঠাৎ করেই ধাক্কা খেয়েছে। তবে এশিয়ায় শক্তির ভারসাম্যে ঐতিহাসিকভাবেই গুরুত্বপূর্ণ রাশিয়া। টাইমস অব ইন্ডিয়া।



 

Show all comments
  • Nannu chowhan ২৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৬, ১১:৫৫ এএম says : 2
    This is good for south asian small nation,coz india never respect the friendship,they take every things pay back nothing.
    Total Reply(0) Reply
  • আশরাফুল ২৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৬, ৯:৩৮ এএম says : 8
    এই জন্যেই ভারত ভয় পাচ্ছে
    Total Reply(0) Reply
  • Tania ২৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৬, ১:৩৪ পিএম says : 7
    উভয় দেশ যতই যুদ্ধংদেহী ভাব দেখাক না কেন চীনের ভয়ে শেষমেশ পাকিস্তান আক্রমণ করবে না ভারত।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ