Inqilab Logo

ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২৯ অক্টোবর ২০২০, ১৩ কার্তিক ১৪২৭, ১১ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী

যুদ্ধ নয়, সার্কের দুর্নীতিবিরোধী বৈঠকে যোগ দিতে ভারতীয় প্রতিনিধিদল পাকিস্তানে

প্রকাশের সময় : ২৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৬, ১২:০০ এএম

ইনকিলাব ডেস্ক : কাশ্মীরের উরিতে ১৮ সৈন্য নিহতের ঘটনায় চলমান উত্তেজনার মধ্যেই ভারতের একটি প্রতিনিধিদল পাকিস্তানে পৌঁছেছে। দক্ষিণ এশীয় আঞ্চলিক সহযোগিতা সংস্থা-সার্কের দুর্নীতিবিরোধী এক সম্মেলনে যোগ দিতে তারা পাকিস্তান পৌঁছেন। গতকাল সোমবার থেকে শুরু হওয়া সম্মেলনটি অনুষ্ঠিত হচ্ছে পাকিস্তানের রাজধানী ইসলামাবাদে। ডন জানিয়েছে, দুর্নীতিবিরোধী প্রথম সার্ক সম্মেলনে ভারতীয় প্রতিনিধিদলের নেতৃত্ব দিচ্ছেন দেশটির কেন্দ্রীয় ভিজিলেন্স কমিশনের মহাপরিচালক শ্রী প্রেমাংশু বিশ্বাস। বিমানবন্দরে তাকে অভ্যর্থনা জানিয়েছেন পাকিস্তানের জাতীয় অ্যাকাউন্টেবিলিটি ব্যুরো-এনএবির কর্মকর্তারা। এনএবির মুখপাত্র জানান, সম্মেলনে যোগ দিতে ভারত ছাড়াও এরই মধ্যে শ্রীলংকা, নেপাল, ভুটান এবং মালদ্বীপের প্রতিনিধিরা পাকিস্তানে পৌঁছেছেন। তবে এখন পর্যন্ত বাংলাদেশ ও আফগানিস্তানের কোনো প্রতিনিধি সম্মেলনে যোগ দিতে পাকিস্তানে গেছে কিনা তা উল্লেখ করেননি পাকিস্তানি কর্মকর্তারা। এ সম্মেলনে সার্ক দুর্নীতিবিরোধী ফোরাম নামে একটি আঞ্চলিক সংস্থা গঠিত হবে বলে জানিয়েছেন পাকিস্তানের এনএবির চেয়ারম্যান কামার জামান চৌধুরী। তিনি জানান, সম্মেলনে দক্ষিণ এশিয়ায় দুর্নীতির কারণ, দুর্নীতিবিরোধী লড়াই এবং দুর্নীতি সম্পর্কে জনসচেতনা বৃদ্ধির বিষয়ে গৃহীত পদক্ষেপের অভিজ্ঞতা বিনিময় হবে।
এ ছাড়া সম্মেলনে সার্ক দেশগুলো দুর্নীতির তদন্ত এবং বিচারে কার্যকর কৌশল প্রণয়ন, আন্তর্জাতিক সহযোগিতার মাধ্যমে দুর্নীতির মাধ্যমে অর্জিত সম্পদ পুনরুদ্ধার-কারিগরি সহযোগিতা এবং তথ্য বিনিময়ের বিষয়ে আলোচনা হবে। কাশ্মীরের পরিস্থিতিকে কেন্দ্র করে চলমান উত্তেজনাকর পরিস্থিতিকে সামনে রেখে ভারতীয় সংবাদমাধ্যমগুলো বলে আসছিল আসন্ন নভেম্বরে পাকিস্তানে অনুষ্ঠিতব্য সার্ক শীর্ষ সম্মেলনে যোগ দেবেন না ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। তাছাড়া হামলার ঘটনাকে কেন্দ্র করে পাকিস্তানকে কূটনৈতিকভাবে একঘরে করে ফেলা হবে বলে ভারতীয় নীতিনির্ধারকরা বলে আসছিলেন। কিন্তু এ আলোচনার মধ্যেই ভারতীয় প্রতিনিধি দলের দুর্নীতিবিরোধী সার্ক সম্মেলনে যোগ দিতে পাকিস্তানে যাওয়াকে ‘তাৎপর্যপূর্ণ’ বলে আখ্যা দিয়েছে ডন। ডন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন