Inqilab Logo

মঙ্গলবার, ১৭ মে ২০২২, ০৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ১৫ শাওয়াল ১৪৪৩ হিজরী
শিরোনাম

জাতীয় স্বার্থ বিবেচনায় রামপাল বিদ্যুৎ প্রকল্প বাতিল হোক

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সাদা দলের মানববন্ধন

প্রকাশের সময় : ২৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৬, ১২:০০ এএম

বিশ্ববিদ্যালয় রিপোর্টার 

বিশ্ব ঐতিহ্য সুন্দরবনের পাশে রামপাল কয়লাভিত্তিক তাপবিদ্যুৎ প্রকল্প বাতিলের দাবিতে মানববন্ধনে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিএনপিপন্থী শিক্ষকদের সংগঠন সাদা দল বলেছে, সুন্দরবনের সাথে বাংলাদেশের লাখ লাখ মানুষের জীবন-জীবিকা জড়িত। রামপালে কয়লাভিত্তিক তাপবিদ্যুৎ প্রকল্প নির্মিত হলে সুন্দরবন ধ্বংস হবে এবং লাখ লাখ মানুষ তার জীবিকা হারাবে। আমরা আশা করব সরকার জাতীয় স্বার্থ বিবেচনায় নিয়ে অবিলম্বে রামপাল বিদ্যুৎ প্রকল্প বাতিল করবে। গতকাল সোমবার বিশ্ববিদ্যালয়ের অপরাজেয় বাংলার পাদদেশে এ কর্মসূচি পালনকালে বক্তারা এসব কথা বলেন।
মানববন্ধনে সভাপতির বক্তব্যে প্রফেসর ড. মো: সিরাজুল ইসলাম বলেন, বিদ্যুৎকেন্দ্র স্থাপনের আরো অনেক বিকল্প আছে। কিন্তু আমাদের সুন্দরবনের আর কোনো বিকল্প নেই। বিশ্বের বৃহত্তম ম্যানগ্রোভ বন সুন্দরবন আমাদের জাতীয় সম্পদ। উদ্ভিদ, জীব ও প্রাণী বৈচিত্র্যের আধার সুন্দরবন বাংলাদেশের ফুঁসফুঁস। ক্রমবর্ধমান চাহিদা নিরসনে নতুন বিদ্যুৎকেন্দ্র স্থাপনের বিকল্প নেই। কিন্তু কোনোভাবেই তা সুন্দরবনের মতো প্রাকৃতিক ও নৈসর্গিক সৌন্দর্যের লীলাভূমিকে ধ্বংস করে নয়।
তিনি বলেন, বিদ্যুতের চাহিদা মেটাতে যদি এ প্রকল্প বাস্তবায়ন করতে হয়, তবে রামপালে নয়, বরং পরিবেশ ঝুঁকি কমÑ এমন কোনো স্থানে প্রকল্পটি স্থানান্তর করা হোক। সুন্দরবন ও এর বাস্তব ব্যবস্থা এবং জীববৈচিত্র্যকে অবশ্যই বাঁচাতে হবে। এজন্য অবশ্যই রামপালের কয়লাভিত্তিক তাপ বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণ প্রকল্পটি বাতিল করার জন্য সরকারের কাছে জোর দাবি জানাচ্ছি।
প্রফেসর এ বি এম ওবায়দুল ইসলাম বলেন, সুন্দরবনের সাথে দেশের বহু মানুষের ভাগ্য জড়িত। আমরা বিদ্যুৎকেন্দ্রের বিরোধিতা করছি না। তবে দেশের কোনো উন্নয়ন করতে হলে যেন জাতীয় সম্পদের কোনো ক্ষতি না হয়। এ ব্যাপারে তিনি জাতিসংঘ এবং ইউনেস্কোর হস্তক্ষেপ কামনা করেন।
প্রফেসর ড. ছিদ্দিকুর রহমান খান বলেন, সমাজের সচেতন মানুষ হিসেবে বিবেকের তাড়নায় আমরা আজ সুন্দরবন রক্ষার্থে প্রস্তাবিত রামপাল কয়লাভিত্তিক তাপবিদ্যুৎ প্রকল্প বাতিলের দাবিতে মানববন্ধন কর্মসূচিতে দাঁড়িয়েছি। আমরা আশা করব সরকার জাতীয় স্বার্থ বিবেচনায় নিয়ে অবিলম্বে রামপাল বিদ্যুৎ প্রকল্প বাতিল করবে।
ঢাবি সাদা দলের আহ্বায়ক অধ্যাপক ড. সিরাজুল ইসলামের সভাপতিত্বে এবং যুগ্ম আহ্বায়ক অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ ছিদ্দিকুর রহমান খানের সঞ্চালনায় এতে অন্যন্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন ঢাবি শিক্ষক সমিতির সাবেক সভাপতি অধ্যাপক ড. সদরুল আমিন, সাবেক সাধারণ সম্পাদক প্রফেসর ড. এ বি এম ওবায়দুল ইসলাম, সাদা দলের শিক্ষক নেতা প্রফেসর ড. আক্তার হোসেন খান, প্রফেসর ড. সুকোমল বড়–য়া, প্রফেসর ড. লায়লা নূর ইসলাম, ড. লুৎফর রহমান খান, প্রফেসর ড. হাসান তালুকদার প্রমুখ। এছাড়া মানববন্ধনে সাদা দলের প্রফেসর ড. আবদুর রশিদ, ড. আশরাফুল ইসলাম চৌধুরী, প্রফেসর মো: মাহফুজুল ইসলাম, প্রফেসর আতাউর রহমান বিশ্বাস, প্রফেসর ড. সৈয়দ রাশিদুল হাসান, প্রফেসর মুজাহিদুল ইসলাম, প্রফেসর ড. মোর্শেদ হাসান খান, প্রফেসর ইসরাফিল রতন প্রামাণিক, ড. মঈনুল ইসলাম, মো: সাইফুল্লাহসহ শতাধিক শিক্ষক উপস্থিত ছিলেন।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: জাতীয় স্বার্থ বিবেচনায় রামপাল বিদ্যুৎ প্রকল্প বাতিল হোক
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ