Inqilab Logo

ঢাকা শনিবার, ২৪ জুলাই ২০২১, ৯ শ্রাবণ ১৪২৮, ১৩ যিলহজ ১৪৪২ হিজরী

ইভ্যালির মালিকদের ডাকা হবে, কারণ দর্শানো হবে

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৮ জুলাই, ২০২১, ৮:২০ পিএম

দেশের আলোচিত ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান ইভ্যালির বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগ নিয়ে প্রতিষ্ঠানটির কর্মকর্তাদের ডাকা হবে বলে জানিয়েছেন বাণিজ্য সচিব তপন কান্তি ঘোষ। রোববার (১৮ জুলাই) সচিবালয়ে ই-কমার্স সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে স্টেকহোল্ডারদের সঙ্গে বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন। সচিব বলেন, ইভ্যালির মালিকদের ডাকা হবে, কারণ দর্শানো হবে। তাদেরকে বিজনেস প্ল্যান দিতে বলা হবে।

তিনি বলেন, ই-কমার্সের উদ্ভূত পরিস্থিতি নিয়ে আজকে একটি সভা করেছি। বিশেষ করে বাংলাদেশ ব্যাংক, আইসিটি বিভাগ, প্রতিযোগিতা কমিশন, ভোক্তা অধিকার, ই-ক্যাবসহ সবাই মিলে ফলপ্রসূ আলোচনা হয়েছে। আলোচনা করে কয়েকটি বিষয়ে মোটামুটি একমত হয়েছি। ৪ জুলাই যে ই-কমার্স নির্দেশিকা প্রকাশ করেছি, তার আলোকে সব বিচার বিবেচনা করে দেখব, কোন-কোন কোম্পানি এখানে যে নির্দেশনা আছে, তা প্রতিপালন করতে ব্যর্থ হচ্ছে। যিনি ব্যর্থ হবেন তাকে প্রথমত কারণ দর্শানো হবে, কয়েকদিন সময় দিয়ে যে বিজনেস প্ল্যানটা (ব্যবসায়িক পরিকল্পনা) আমাদের দেবেন, সেই প্ল্যানে (পরিকল্পনা) তিনি কীভাবে সাসটেইনেবল (স্থায়ী) হবেন? সেটা যদি বাংলাদেশের প্রচলিত আইনের সঙ্গে কমপ্লাইন (সামঞ্জস্য) না হয়, তখন হয়ত আমরা কোম্পানির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে যাব। ব্যবস্থার ক্ষেত্রে বাংলাদেশের প্রচলিত আইনে হতে পারে, বলেন বাণিজ্য সচিব তপন কান্তি ঘোষ।

সচিব বলেন, ই-কমার্সের জন্য যদি কোনো ব্যক্তি বা ব্যবসায়ী ক্ষতিগ্রস্ত হন, তিনি কিন্তু আইন অনুযায়ী মামলা করতে পারেন, প্রতিকার চাইতে পারেন। সেটিও খোলা থাকছে। সচিব বলেন, আমাদের নির্দেশিকা বা ডিজিটাল কমার্স নীতিমালাতে আরও একটু পরিবর্তন আনতে হবে। যেমন গ্রাহকের টাকা দিয়ে আবার গ্রাহককে মিটিয়ে দেওয়া বা গ্রাহকের টাকা অগ্রিম নিয়ে সে টাকা ব্যবসায় খাটিয়ে ব্যবসার উন্নয়ন করা, এটা যাতে না করতে পারে, এ ধরনের পরামর্শ আমরা পেয়েছি। এর আলোকে আমরা ব্যবস্থা নিচ্ছি। দীর্ঘমেয়াদে আমাদের আইনের কোথাও-কোথাও সংস্কারের চেষ্টা করা হবে। ডিজিটাল কমার্সের জন্য একটি স্বয়ংসম্পূর্ণ আইন প্রণয়নেরও একটি সুপারিশ আমাদের কাছে এসেছে বলে তিনি উল্লেখ করেন।



 

Show all comments
  • প্রবাসী-একজন ১৮ জুলাই, ২০২১, ৯:৩৪ পিএম says : 0
    অগ্রিম টাকা খাটানোর ব্যাপারে সচিব বাবুর মন্তব্যটা ঠিক বুঝতে পারলাম না। অগ্রিম টাকা গ্রহণ আর সার্ভিস বা প্রোডাক্ট ডেলিভারির মাঝে যদি কিছুদিনের ব্যবধান থাকে, তাহলে কোন ব্যবসায়ী তা একাউন্টে ফেলে রাখেন কি? ব্যবসায়ের একাউন্টে প্রতিদিন যে টাকা জমা হয়, তা ব্যবসায়ের লিকুইডিটির দিকে নজর রেখে ব্যাংকের মাধ্যমে শর্ট-টার্ম ইনভেস্টমেন্ট করা তো একটা সাধারণ ব্যাপার। গ্রাহকের টাকা অগ্রিম নিয়ে সে টাকা খাটিয়ে ব্যবসার এ ধরণের আর্থিক উন্নয়ন করে না - এরকম ব্যবসায়ী আদৌ আছে কি?
    Total Reply(0) Reply
  • John Shohel ১৯ জুলাই, ২০২১, ২:০০ এএম says : 0
    কথা হলো, বেশ কিছু ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান দীর্ঘদিন ধরে গ্রাহকদের অর্থ আত্মসাত করে যাচ্ছিল; এমনকি এখনো অব্যাহত রয়েছে। সরকার যদি এক্ষুনি প্রতারকদের লাগাম টেনে না ধরতে পারে, ই-কমার্স এর প্রতি জনমনে অনাস্থা সৃষ্টি হবে। যার ফলে দেশ বিশ্বায়নের যুগে পিছিয়ে পড়বে। আরেকটা অদ্ভুত জিনিস লক্ষ্য করবেন, সেটা হলো ফেইক রিভিউ! শুধু পণ্যের তালিকায় নয়; ফেসবুকেও কত শত পেইড মন্তব্য বা পোস্ট লেখার জন্য লোক দেওয়া হয়েছে তা সাধারণের কল্পনার বাইরে। তারা কখনো কখনো বৃদ্ধ, নারী, প্রোফেশনাল, প্রবাসী, ধর্মীয় ইত্যাদি চরিত্রে মন্তব্য করে মিথ্যা প্রোগান্ডা চালিয়ে মানুষকে বিপথগামী করে। এদের থেকে সাবধান ও দূরে থাকুন।
    Total Reply(0) Reply
  • সরাফত ১৯ জুলাই, ২০২১, ১:৫০ পিএম says : 0
    ইভ্যালি নতুন ধান্দা শুরু করেছে প্রাইরোটি অর্ডার নিয়ে ৭২ ঘন্টা ডেলিভারি কথা বলে,ঠিক ৭২ ঘন্টা আগে প্রডাক্ট ফেইক শিফট দিয়ে মুলা ঝুলিয়ে রাতেছে। এদের দুষ্টু বুদ্ধিতে মনে হয় কেউ হাত দিতে পারবেনা। T10 এর কথা নাইবা বল্লাম।
    Total Reply(0) Reply
  • Rezaul shuvo ১৯ জুলাই, ২০২১, ৩:৫৩ পিএম says : 0
    ইভ্যালি ১ কোটি টাকা দিয়ে যাত্রা শুরু করে আজ ৬৫ কোটি, ওয়েব সাইটের মূল্য বাদ দিয়ে। কিন্তু ওয়েব এর মুল্যায়ন বাংলাদেশের খুব কম মানুষ দিতে পারে। আজকেই ওয়ার্ল্ড মার্কেটে ইভ্যালি বিক্রির বিজ্ঞপ্তি দিলে নিলামে আসলে এরকম ৪০৫ কোটি টাকার কত গুন দাম আসবে সমালোচকরা চিন্তাও করতে পারবেন না।কিন্তু কেন বাংলাদেশের একটা প্রতিষ্ঠানকে এগিয়ে যেতে দেবো না আমরা। ইভ্যালি আমাদের দেশের সম্পদ হতে যাচ্ছে। আমার অনেক অভিযোগ সময় মত ডেলিভারি দেয় না কিন্তু প্রতারণার শিকার হইনি।পণ্য পাওয়ার পর পণ্যের কোয়ালিটি দেখে সব অভিযোগ দূর হয়ে যায়। ডিজিটাল বাংলাদেশ এর রুপকার যদি প্রধানমন্ত্রী হন তাহলে আর হচ্ছে দেশের ই কমার্সের আইডল। কাজেই সে এগিয়ে যাক আমরা ৫০ লাখ কাস্টমার তাই চাই। কিন্তু যারা কাস্টমার না তারা সব সময় নেগেটিভ কথা বলতেই পারে। কারণ তারা এ ইভ্যালির বিষয় বা Evaly Apps এর ব্যবহার জানেন না।
    Total Reply(0) Reply
  • Md Ariful Islam ১৯ জুলাই, ২০২১, ৯:৫৩ পিএম says : 0
    আসোলে সব ই ইকমার্স সাইট যদি গ্রাহকের অগ্রীম টাকা নিয়ে ৪৫ দিনের মধ্যে পণ্য ডেলিভারি দেয় তাহলে জমজমাট বিজনেস শুধু ই-কমার্স মালিকগনই হবেন নাহ বরং ক্রেতাসাধারণ ও হবে, আর যদি ডিলে করে তাহলে তাৎক্ষণিক আইন প্রোয়োগ করার আহব্বান করছি
    Total Reply(0) Reply
  • Md Ariful Islam ১৯ জুলাই, ২০২১, ৯:৫২ পিএম says : 0
    আসোলে সব ই ইকমার্স সাইট যদি গ্রাহকের অগ্রীম টাকা নিয়ে ৪৫ দিনের মধ্যে পণ্য ডেলিভারি দেয় তাহলে জমজমাট বিজনেস শুধু ই-কমার্স মালিকগনই হবেন নাহ বরং ক্রেতাসাধারণ ও হবে, আর যদি ডিলে করে তাহলে তাৎক্ষণিক আইন প্রোয়োগ করার আহব্বান করছি
    Total Reply(0) Reply
  • palash ১৯ জুলাই, ২০২১, ১১:২১ পিএম says : 0
    sob vua...Evaly should shutdown.
    Total Reply(0) Reply
  • ইকবাল ২১ জুলাই, ২০২১, ১২:৩৩ এএম says : 0
    Evaly মালামাল ডেলিভারিতে বিলম্ব করেছে, যা প্রতারণা নহে। সরকারের উচিৎ, ইভেলির অগ্রযাত্রা ব্যাহত না করে নিয়মনীতির মধ্যে নিয়ে আসা। তবে এমন কোন শর্ত আরোপ করা উচিৎ নয়, যা কোন ই-কমার্স প্রতিষ্ঠানই প্রতিপালন করে সমর্থ হয় না। সুতরাং কর্তৃপক্ষ গ্রাহক ও ই-কমার্স প্রতিষ্ঠানের জন্য উপযোগী শর্ত আরোপ করুক।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: কারণ দর্শানো
আরও পড়ুন