Inqilab Logo

বুধবার, ০৮ ডিসেম্বর ২০২১, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ০৩ জামাদিউল আউয়াল ১৪৪৩ হিজরী

ধীরে ধীরে জমে উঠেছে কুরবানীর পশুর হাট, স্বাস্থ্যবিধি নিয়ে উদ্বিগ্ন নেটিজেনরা

শাহেদ নুর | প্রকাশের সময় : ১৮ জুলাই, ২০২১, ৮:৫১ পিএম

আগামী বুধবার (২১ জুলাই) পবিত্র ঈদুল আযহা। এসময় সামার্থবান মুসলমানরা পশু কুরবানী দিবে। তাই রাজধানীসহ সারাদেশের বিভিন্ন জায়গায় বসেছে কুরবানীর পশুর হাট। ধীরে ধীরে জমে উঠেছে এই হাট। শুরু হয়েছে কুরবানীর পশু বেচা-কেনা। বিশ্বব্যাপী চলমান মহামারীর কারণে সকল মানুষকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার জন্য বলা হচ্ছে। এই পরিস্থিতিতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কুরবানীর পশুর হাটে স্বাস্থ্যবিধি মানা নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করা হচ্ছে। স্বাস্থ্যবিধি মেনে হাটে যাওয়ার পরামর্শ দিচ্ছে নেটিজেনরা। পাশাপাশি স্বাস্থ্যবিধি না মানলে দেশে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ার আশঙ্কা প্রকাশ করছেন তারা।

এ বিষয়ে ফেইসবুকে জাহাঙ্গির জান আলম লিখেন, ‘রাষ্ট্রের করুন পরিণতির জন্য দায়ী থাকবেন জনগণ। এখন যারা নিজেদের নিরাপত্তার জন্য সচেতন নন, তারাই বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হবেন রাষ্ট্রের বা সরকারের যেকোন জরুরি পরিস্থিতি মোকাবিলার সক্ষমতা কতটা আছে; দেশের মানুষের সেটা বিবেচনা করে দেখা উচিত।’

উদ্বেগ প্রকাশ করে মিলন চৌধুরী লিখেন, ‘স্বাস্থ্যবিধি না মানার কারণে মানুষ, এর ভয়াবহতা দু’সপ্তাহ পর টের পাবে। কিন্তু তখন আর কারোই করার কিছু থাকবে না।’

রনি ইকবাল মনে করেন, ‘গরু বাজারে স্বাস্থ্য বিধি আশা করা বিলাসিতা ছাড়া আর কিছু না।’

জামিল আহসান লিখেন, ‘আমাদের দেশে ঈদ উপলক্ষে করোনা গায়েব হয়ে যায়। ভাইরাস আমাদের দেশের মানুষের ফিলিংস বুঝে!’

জেসি জেনিফার লিখেন, ‘সকলে যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি মেনে চললে ও মাস্ক পড়লে আর লকডাউনের দরকার ছিল না।’

জোসেফ এস. গোমেজের পরামর্শ, ‘হাটে আসা সবার শরীরে করোনা নাশক স্প্রে ছিটিয়ে দেওয়া যেতে পারে। কারণ প্রতিটি হাটে প্রচুর সেচ্ছাসেবক আছে।’

এদিকে এবছর অনলাইনে কুরবানীর পশু ক্রয়ের সুযোগ আছে। বর্তমান করোনা পরিস্থিতির কারণে সেখান থেকে অনেকে ক্রয় করলেও বেশিরভাগ মানুষ হাটে গিয়েই গরু কিনতে পছন্দ করছে।

অনলাইনে কুরবানীর পশু ক্রয় সম্পর্কে ইফতেখার তানিন লিখেন, ‘সততার সাথে এটা করতে পারলে, ক্রেতা-বিক্রেতা উভয়ই উপকৃত হবে।’

আবদুল্লাহ আল হারুন লিখেন, ‘সাধুবাদ জানাই এই প্রক্রিয়াকে, শুধু বিক্রেতারা একটু সাধু হলেই হবে।’

খিজির আহমেদ সালেহীর মতে, ‘এতে প্রতারণার যথেষ্ট সুযোগ রয়েছে। কোরবানীর গরু সরাসরি দেখে ক্রয় করাই উত্তম।’

রেহান ইসলাম লিখেন, ‘সারা জীবন হাটে গিয়ে গরু কিনেছি, বাকী জীবন হাটে গিয়েই দেখে শুনে গরু কিনবো ইনশা আল্লাহ্‌। তাছাড়া হাট ঘুরে গরু কেনার মজাই আলাদা!’



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ