Inqilab Logo

শনিবার, ৩১ জুলাই ২০২১, ১৬ শ্রাবণ ১৪২৮, ২০ যিলহজ ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

সিআরবির পরিবেশ নষ্ট হোক সেটি আমিও চাইনা- তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী

চট্টগ্রাম ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ২২ জুলাই, ২০২১, ৮:৩৭ পিএম

আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এবং তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, সমাজের অব্যক্তদের পক্ষে আমাদের কথা বলা দরকার, সমাজ যেদিকে তাকায়না সেদিকে দৃষ্টি নিবন্ধ করতে পারে একজন সাংবাদিক। সাংবাদিকরা ক্ষমতাহীনদের ক্ষমতাবান করতে পারে, অব্যক্তদের পক্ষে কথা ব্যক্ত করতে পারে। তিনি বলেন, দেশটা যে এগিয়ে যাচ্ছে সে গল্পটাও মানুষকে আমাদের জানাতে হবে। তাহলে মানুষ আরো স্বপ্ন দেখবে। দেশও স্বপ্নের ঠিকানায় পৌঁছে যাবে।

বৃহস্পতিবার বিকেলে চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের বঙ্গবন্ধু হলে সাংবাদিক কল্যাণ ট্রাস্টের চেক বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

চট্টগ্রাম সাংবাদিক ইউনিয়ন (সিইউজে) এর আয়োজনে সভাপতি মোহাম্মদ আলীর সভাপতিত্বে ও যুগ্ম সম্পাদক সবুর শুভর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির দেন চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের সভাপতি আলী আব্বাস, সাধারণ সম্পাদক চৌধুরী ফরিদ, সিইউজের সহ-সভাপতি অনিন্দ্য টিটু, সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মদ শামসুল ইসলাম।

অনুসন্ধানী সাংবাদিকতা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ উল্লেখ করে তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেন, সমাজে এমন অনেক বিষয় আছে, সমাজ সেদিকে তাকায়না। রাস্তাঘাটে ঘুরে বেড়ানো পাগলেরও পেছনেও কিছু একটা গল্প আছে, ফ্যাল ফ্যাল করে তাকানো মানুষটার কিছু বেদনা আছে, সেই বেদনা শোনার সময় সমাজের নাই, সমাজ তাকে জিজ্ঞেস করেনা, একজন অনুসন্ধানী সাংবাদিক সেটি অনুসন্ধান করে সমাজের সামনে তুলে ধরতে পারে।

তিনি বলেন, সাংবাদিকরা লেখনির মাধ্যমে সমাজকে উজ্জীবিত করতে পারেন, একজন সাংবাদিকের অনেক ক্ষমতা, সেই ক্ষমতা হয়তো নিজে অনুভব করেনা। একজন সাংবাদিক যার মুখে ভাষা নেই তাকে ভাষা দিতে পারে। যে কথা বলতে ভুলে গেছে কিংবা ভয় পায় তার মুখে ভাষা দিতে পারে। যে স্বপ্ন দেখতেও ভুলে গেছে, স্বপ্ন দেখতে ভয় পায়, তাকে স্বপ্ন দেখাতে পারে। অব্যক্তদের পক্ষে কথা ব্যক্ত করতে পারে। সাংবাদিকরা ক্ষমতাহীনদের ক্ষমতাবান করতে পারে।

ড. হাছান মাহমুদ বলেন, সিআরবি চট্টগ্রামের একটি নান্দনিক ও ঐতিহাসিক জায়গা, সেটি নিয়ে চট্টগ্রামের মানুষের মাঝে ব্যাপক অসন্তোষ সৃষ্টি হয়েছে। আপনারা জানেন, প্রধানমন্ত্রী পরিবেশ সংরক্ষণের জন্য জলবায়ু পরিবর্তনের ঝুঁকি মোকাবেলা করার ক্ষেত্রে বলিষ্ঠ পদক্ষেপ রাখার কারণে তিনি ‘চ্যাম্পিয়ন অব দ্যা আর্থ’ পদকে ভূষিত হয়েছেন। সুতরাং বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রীর হাত দিয়ে পরিবেশ নষ্ট হয় এমন কোন কাজ হবেনা।

তিনি বলেন, সিআরবিতে পরিবেশ নষ্ট হোক, গাছপালা কাটা হোক সেটি আমিও ব্যক্তিগতভাবে চাইনা। সরকার জনগণের বিপক্ষে কোন কাজ করবেনা। আমিও বিষয়টি যথাযথ জায়গায় উপস্থাপন করবো।

তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী বলেন, আমরা একটি বহুমাত্রিক সমাজে বসবাস করি, এখানে বিতর্ক থাকবে সমালোচনা থাকবে, কিন্তু এটির পাশাপাশি ভালো কাজের প্রশংসাও হতে হয়। ভালো কাজের যদি প্রশংসা নাহয় তাহলে যারা ভালো কাজ করে তারা কখনো উৎসাহ পাবেনা। সরকারে থাকলে সবই যে খারাপ সেটি বিশেষ করে বিএনপিসহ কেউ কেউ মনে করে। তারা সরকারে থাকলে সব ভাল, আমরা সরকারে থাকলে সব খারাপ। দেশটা কি এমনি এমনিতে এগিয়ে গেল- প্রশ্ন রাখেন তথ্যমন্ত্রী।

তিনি বলেন, গত সাড়ে বার বছরে মানুষের যে উন্নয়ন হয়েছে তা কল্পনাতীত, আমাদের মাথাপিছু আয় ভারতকেও ছাড়িয়ে গেছে। জননেত্রী শেখ হাসিনার গতিশীল নেতৃত্বের কারণেই সম্ভব হয়েছে এই এগিয়ে যাওয়া। মন্ত্রী বলেন, বর্তমানে সাংবাদিক কল্যাণ ট্রাস্ট সাংবাদিকদের জন্য ভরসার জায়গা হয়ে দাঁড়িয়েছে। কোন সাংবাদিক মৃত্যুবরণ করলে তার পরিবার তিন লাখ টাকা পাচ্ছে, কেউ অসুস্থ হলেও টাকা পাচ্ছে। সাম্প্রতিক সময়ে কল্যাণ ট্রাস্টে সিদ্ধান্ত হয়েছে সাংবাদিক পরিবারের সদস্যদের পড়ালেখার ক্ষেত্রেও অনুদানের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। এব্যাপারে নীতিমালাও চূড়ান্ত করা হয়েছে।

তিনি বলেন, বাংলাদেশেই শুধুমাত্র সাংবাদিকদের করোনাকালীন এককালীন সহায়তা দেয়া হয়েছে, সেটা আশপাশের ভারত, পাকিস্তান, নেপাল ও ভুটানসহ কোন দেশে করেনি। প্রধানমন্ত্রী ১০ কোটি টাকা দিয়েছেন করোনাকালীন সহায়তার জন্য। ঈদুল আযহার আগেই সেগুলোর বিতরণ শুরু হয়েছে।

ড. হাছান মাহমুদ বলেন, সাংবাদিকরা সমাজের বিবেক হিসেবে কাজ করে, সাংবাদিকদের কথায় সমাজের তৃতীয় নয়ন খুলে, সমাজকে সঠিক পথে প্রবাহিত করতে পারে। আমাদের সম্মিলিত লক্ষ্য হচ্ছে দেশটাকে গড়া, বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের ঠিকানায় দেশটাকে নিয়ে যাওয়া এবং একটি মানবিক রাষ্ট্রে রূপান্তর করা।



 

Show all comments
  • মোঃ+দুলাল+মিয়া ২২ জুলাই, ২০২১, ১১:১৮ পিএম says : 0
    সাবধান,ইনু ইসরায়েলের পেগাসাস বেবহার করেন,সাংবাদিক মিডিয়া সাবধান।
    Total Reply(0) Reply
  • ম নাছিরউদ্দীন শাহ ২২ জুলাই, ২০২১, ৯:২৬ পিএম says : 0
    দায়িত্বশীল মানুষ গুলো জ্ঞানী গুনি মানুষ গুলো সিআরবির সুন্দর পরিবেশ অটুট থাকুক চায়। সুন্দর বন বাংলাদেশের জন্যেফুসফুস সিআরবি চট্টগ্রামের ফুসফুস।আজকে সরকারের গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্বশীল মন্ত্রী মহোদয়ের মানবিকতার কথা গুলো সমাজের হতদরিদ্র মানুষের চাপা কান্নাভেজা চাহনীর দৃশ্য । দায়িত্বশীল সাংবাদিকতার কথা। অসহায় মানুষ গুলোর না বলা কথা গুলো অনুসন্ধানী সাংবাদিকতার মাঝে সমাজের এই অবহেলিত মানুষ গুলোর না কথা শুনতে চায়। আমাদের চট্টগ্রামের গৌরবময় সন্তান মাননীয় মন্ত্রী মহোদয়ের মানবিক কথা শুনে শ্রদ্ধাভরে অত্যন্ত খুশী হলাম। মানুষ রাষ্ট্রের দায়িত্ব প্রাপ্ত যোগ্য নেতৃত্বের কাছে অনেক কিছুর আশাবাদী থাকেন। সিআরবি সংক্রান্তে প্রভাবশালী মন্ত্রী মহোদয় দায়িত্বশীল কথাই বলেছেন। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বিশ্বের জলবায়ুর আন্তর্জাতিক নেতা। বাংলাদেশের পরিস্থিতি পরিবেশ সম্পর্কে অবশ্যই জানা আছেন। দ্রত সময়ের মধ্যে প্রকল্পটি বাতিল করে জাতীয় ভাবে ঘোষণা দেওয়া জরুরী। মন্ত্রী মহোদয় চট্টগ্রামের সর্বস্তরের শ্রেণি পেশায় মানুষ তীব্র প্রতিবাদমুখর। সরকারের এই মুহুর্তে রাষ্ট্রের নির্বাহী প্রধানের নিকট গুরুত্বপূর্ণ ব‍্যাক্তিরা বসুন। অথবা ভার্চুয়াল ভাবে পরিস্থিতি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী কে অবগত করুন। চট্টগ্রামের মানুষের পরিবেশ রক্ষার জোরদার দাবি যথাযথ কতৃপক্ষ জানাবেন। মন্ত্রী মহোদয়কে আবারও শ্রদ্ধা ও সালাম।
    Total Reply(0) Reply
  • Nurun Nabi ২৩ জুলাই, ২০২১, ১০:৫২ এএম says : 0
    We know who built Rampal in Sundarban. TO DESTROY Sundarban.
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ