Inqilab Logo

শনিবার, ৩১ জুলাই ২০২১, ১৬ শ্রাবণ ১৪২৮, ২০ যিলহজ ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

মোংলা বন্দরে জাহাজের নাবিকের আত্মহত্যা

খুলনা ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ২২ জুলাই, ২০২১, ১১:২৭ পিএম

বাগেরহাটের মোংলা বন্দরের পশুর চ্যানেলে অবস্থানরত লাইটার জাহাজের এক নাবিকের গলায় ফাঁস লাগানো লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। আজ বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার পর জাহাজের পণ্য রাখার ক্যাবিন থেকে লাশ উদ্ধার করা হয়।

লাইটার জাহাজের মাষ্টার আনোয়ার হোসেন বলেন, গত দুইদিন পূর্বে ঢাকা থেকে মোংলা বন্দরের পশুর চ্যানেলে ১নং বয়া এলাকায় নোঙ্গর করে লাইটার জাহাজ এমভি ডিটলেন্ডে। লাইটারটি মোংলা বন্দরের একটি বাণিজ্যিক মাদার ভ্যাসেল থেকে সার বোঝাই কর পুনরায় ঢাকায় ছেড়ে যাওযার কথা ছিল। জাহাজটিতে মাস্টারসহ ১২ জন নাবিক ছিল। আজ বৃহস্পতিবার দুপুরের পর নাবিক আবুল বাসার (৫৫) কাউকে কিছু না বলে লাইটার জাহাজটির মাথায় গিয়ে পণ্য বোঝাইয়ের ক্যাবিনে নামে। সেখান থেকে ফিরে না আসায় খোঁজাখুঁজি শুরু করে অন্য নাবিকরা। সন্ধ্যার পর ক্যাবিনের মধ্যে গলায় ফাঁস লাগানো অবস্থায় ঝুলতে দেখে জাহাজে থাকা নাবিকরা। জাহাজ নাবিক আবুল বাসার ফরিদপুর বোয়ালমারী এলাকার মৃত মোফাজ্জেল হোসেনের ছেলে। গত ৬ বছর যাবত ঢাকার লাইটার জাহাজ এমভি ডিটলেন্ডে নাবিক হিসেবে চাকরী করছিলেন।

বন্দর থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ ইকবাল বাহার চৌধুরী জানায়, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার পর খবর পেয়ে পশুর নদীতে গিয়ে লাইটার জাহাজ থেকে গলায় ফাঁস লাগানো নাবিকের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। আগামীকাল শুক্রবার সকালে লাশ ময়না তদন্তের জন্য বাগেরহাট সদর হাসপাতালে পাঠানো হবে। তবে কি কারণে তিনি গলায় ফাঁস দিয়েছেন সে ব্যাপারে অনুসন্ধান চলছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: আত্মহত্যা

২৬ জুলাই, ২০২১

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ