Inqilab Logo

শনিবার, ২২ জানুয়ারী ২০২২, ০৮ মাঘ ১৪২৮, ১৮ জামাদিউস সানি ১৪৪৩ হিজরী

তালেবান তুরস্কের সাথে সুসম্পর্ক চায়

অনলাইন ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৩ জুলাই, ২০২১, ১০:৪৬ এএম

তুরস্কের সাথে সুসম্পর্ক গড়ে তুলতে চায় তালেবান। তুরস্কের রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন টিআরটির আরবি চ্যানেলের কাছে বুধবার দেয়া এক সাক্ষাতকারে এই কথা বলেন তালেবানের মুখপাত্র জবিউল্লাহ মুজাহিদ।

জবিউল্লাহ মুজাহিদ সাক্ষাতকারে বলেন, ‘আমরা তুরস্কের সাথে সুসম্পর্ক চাই। তুরস্ক আমাদের ভাই, বিশ্বাসের দিক থেকে আমাদের অনেক মিল রয়েছে। আমরা চাই তুরস্ক অতীত থেকে বেরিয়ে বর্তমান ও ভবিষ্যতের দিকে ফিরে আসুক। এর পরই আমরা সংলাপের জন্য বসতে পারি।’


সাক্ষাতকারে তিনি বলেন, আফগানিস্তানের বর্তমান সমস্যার সমাধান ‘সমন্বিত ইসলামী সরকার’ প্রতিষ্ঠার মাধ্যমেই হতে পারে। পাশাপাশি তিনি আফগানিস্তানে দীর্ঘ যুদ্ধের অবসানে রাজনৈতিক সমাধানে সকল মুসলিম দেশকে সহায়তার আহ্বান জানান।


জবিউল্লাহ মুজাহিদ জানান, ‌আফগানিস্তানে কাবুল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর ও কূটনীতিক মিশনের নিরাপত্তার দায়িত্ব আফগানদের হাতেই থাকতে হবে। এর পরিবর্তে যে কোনো তৎপরতাকেই তালেবান দেশটির অভ্যন্তরীণ বিষয়ে বিদেশী হস্তক্ষেপ হিসেবে বিবেচনা করবে।

মুজাহিদ আরো বলেন, কাবুল সরকার ও তালেবানের মধ্যে কাতারের রাজধানী দোহায় শুরু হওয়া সংলাপকে তারা স্বাগত জানিয়েছেন। তারা এই সংলাপের মাধ্যমে উত্তম ফলাফলের আশা করছেন।

এর আগে শনিবার দোহায় আফগান সরকার ও তালেবানের প্রতিনিধি দলের মধ্যে দুই দিনের এক সংলাপ শুরু হয়। কোনো মীমাংসা ছাড়াই রোববার সংলাপ শেষ হলেও যৌথ বিবৃতিতে উভয় পক্ষের প্রতিনিধি দল আলোচনা অব্যাহত রাখার কথা জানান।

সেপ্টেম্বরের মধ্যে আফগানিস্তান থেকে সব মার্কিন সৈন্য প্রত্যাহারে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের ঘোষণার পরিপ্রেক্ষিতে কাবুলের আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের নিরাপত্তা রক্ষার দায়িত্ব নিতে আগ্রহ প্রকাশ করে তুরস্ক। আফগান সরকার এই বিষয়ে তুরস্ককে স্বাগত জানালেও দেশটির সশস্ত্র সংগঠন তালেবান এর নিন্দা জানায়।

তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়েব এরদোগান তালেবানের বিরোধিতার জেরে জানিয়েছিলেন, তারা এই বিষয়ে সংগঠনটির সাথে আলোচনা করবেন।

সূত্র : ডেইলি সাবাহ



 

Show all comments
  • Zahurul Islam ২৩ জুলাই, ২০২১, ১২:২২ পিএম says : 0
    সাবাস তালেবান। আললাহ তোমাদেরকে শুভ বুদ্ধি ও দূরদর্শিতা দান করুক।বর্তমান তুরস্ক কামালপন্হী সেকুলার (কুফরি মতবাদ পন্হী) নয়;বরং এরদোগান পন্হী তথা ইসলামের।তাই উভয়ই পরস্পর ভাই হতে কোন বাধা নেই। তুরস্ককেও ভাই হিসেবে দেখে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করতে হবে। আর এটাই হচ্ছে মুসলিম বিদ্বেষরদের বিরুদ্ধে ঐক্যেপৌঁছার উপযুক্ত সময়।আশা রাখি তুরস্ক ও তালেবান সে পরিচয় দিতে সক্ষম হবে। এটা সময়ের দাবী। এ দিকেই বিশ্ব ও বিশেষ করে মুসলিম বিশ্ব তাকিয়ে রয়েছে।
    Total Reply(0) Reply
  • Hridoy Hasan ২৩ জুলাই, ২০২১, ১২:২৩ পিএম says : 0
    আমার মনে হয় এরদোয়ান চাই তুরস্ক আফগানিস্তানে থাকুক কারণ, তারা থাকলে অন্য পরবর্তীতে কোনো দেশ সহজে আফগানিস্তানে ঢুকতে পারবে না। আর যেহেতু আফগানিস্তান একটা ল্যান্ডলক কান্ট্রি সেহেতু আফগানিস্তানে ঢোকার জন্য তাদের বিমানবন্দর অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। তাই এরদোয়ান চায় তুরস্ক যেনো তাদের বিমানবন্দরে নিরাপত্তা প্রদান করে।
    Total Reply(0) Reply
  • Md Abdur Rahim Deowan ২৩ জুলাই, ২০২১, ১২:২৩ পিএম says : 0
    সবাই লাইনে আসুন। আধিপত্য বিস্তারের চেষ্টা হোক শান্তির জন্য।
    Total Reply(0) Reply
  • Mohammad Abdur Rahman ২৩ জুলাই, ২০২১, ১২:২৩ পিএম says : 0
    তালেবানের সাথে তুরস্কের বিরোধে জড়ানে মোটেই ঠিক হবে না।
    Total Reply(0) Reply
  • Fazlul Amin ২৩ জুলাই, ২০২১, ১২:২৩ পিএম says : 0
    তুরস্কের প্রদর্শিত পথেই হাঁটছে তালেবান এবং প্রায় সফলতার দাড়প্রান্তে!এদিকে ইন্ডিয়া তালিবানদের রাম পেদানি খেয়ে অপপ্রচার চালাচ্ছে তুরস্কের সাথে তালিবানদের দন্দ বলে!
    Total Reply(0) Reply
  • MD Akkas ২৩ জুলাই, ২০২১, ২:০৬ পিএম says : 0
    তালেবানরা সরকার গঠন করার পর তাদের প্রথম কাজ হবে তুরস্কের সাথে একাত্মতা ঘোষণা করা। আশাকরি পরস্পর ভাই ভাই হিসেবে ইসলামের উন্নতি সাধনে কাজ করে যাবে। ইহুদি খ্রিস্টান হিন্দু এদেরকে ইসলামফোবিয়া থেকে বের করে আনতে হবে। আল্লাহ চাহেতো ইসলামের বিজয় সুনিশ্চিত।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: আফগানিস্তান


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ