Inqilab Logo

শুক্রবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০২ আশ্বিন ১৪২৮, ০৯ সফর ১৪৪৩ হিজরী
শিরোনাম

সিআরবিকে বাঁচান

| প্রকাশের সময় : ২৪ জুলাই, ২০২১, ১২:০১ এএম

সেন্ট্রাল রেলওয়ে বিল্ডিং (সিআরবি) বাংলাদেশের চট্টগ্রামের টাইগার পাস সংলগ্ন পাহাড়ী এলাকায় অবস্থিত। ব্রিটিশ আমল থেকে সিআরবি ভবনকে ঘিরে শতবর্ষী গাছ-গাছালি, পিচঢালা আঁকাবাঁকা রাস্তা, ছোট-বড় পাহাড়-টিলা আর নজরকাড়া বাংলোগুলো ঘিরে মন জুড়ানো এক প্রাকৃতিক পরিবেশ রয়েছে এখানে। নগরবাসী স্থানটিকে চট্টগ্রামের ‘ফুসফুস’ বলে আখ্যা দিয়ে থাকেন। কিন্তু এখানে বড় একটি হাসপাতাল নির্মাণ প্রক্রিয়া শুরু করে সেই ‘ফুসফুস ধ্বংসের উদ্যোগ নিয়েছে রেলওয়ে। সব শ্রেণি-পেশার মানুষের বাধা ও মতামত উপেক্ষা করে পাবলিক-প্রাইভেট পার্টনারশিপের (পিপিপি) ভিত্তিতে সিআরবিতে ৫০০ শয্যার হাসপাতাল ও ১০০ আসনের মেডিকেল কলেজ নির্মাণের সব আয়োজন প্রায় চূড়ান্ত। ইতোমধ্যে ইউনাইটেড হাসপাতাল পরিচালনা কর্তৃপক্ষ ইউনাইটেড এন্টারপ্রাইজ অ্যান্ড কোম্পানির সঙ্গে চুক্তিও করেছে রেলওয়ে। ২০২০ সালের ১৮ মার্চ রেলের সঙ্গে চুক্তি করার পর এখন হাসপাতাল নির্মাণের প্রাথমিক প্রক্রিয়া শুরু করেছে ইউনাইটেড কর্তৃপক্ষ। রেলওয়ে কর্তৃপক্ষের অপরিণামদর্শী এমন উদ্যোগে হতাশা ফুটে উঠেছে প্রকৃতিপ্রেমী ও জনগণের মধ্যে। এ জায়গাটিতে হাসপাতাল হলে এখান থেকে বিতাড়িত হবে প্রকৃতির ক্ষুদ্রাতিক্ষুদ্র প্রাণ, কাটা পড়বে গাছগাছালি, গড়ে উঠবে দোকানপাট, নগরবাসীর মুক্ত বাতাস গ্রহণের স্থান পরিণত হবে জনবহুল অস্বাস্থ্যকর স্থানে। মনোরম এ এলাকায় একবার বাণিজ্যিক আগ্রাসন শুরু হলে সেটা আর আটকানো যাবে না। এরই প্রেক্ষিতে চুক্তি করলেও সিআরবিতে হাসপাতাল চান না খোদ রেলওয়ের শ্রমিক-কর্মচারীরাও। ইতোমধ্যেই তাঁরা প্রধানমন্ত্রীর কাছে স্মারকলিপিও দিয়েছেন। চট্টগ্রামে ঢাকার মতো রমনা পার্ক নেই, বোটানিক্যাল গার্ডেন নেই। গাছ-গাছালিতে আচ্ছাদিত নয়নাভিরাম এই উন্মুক্ত পরিসরটিও যদি অবশেষে না থাকে, মানুষ যাবে কোথায়! চট্টগ্রামে অনেক খালি জায়গা আছে, যেখানে হাসপাতাল করা যায়। এমতাবস্থায় বিজ্ঞমহলের মতামত এবং নগরবাসীর প্রতিবাদ আমলে নিয়ে যেকোনো মূল্যে সিআরবির প্রাকৃতিক পরিবেশ রক্ষায় দ্রুত পদক্ষেপ গ্রহণ জরুরি।

মো. মারুফ মজুমদার
শিক্ষার্থী, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়।



 

Show all comments
  • Dadhack ২৪ জুলাই, ২০২১, ১২:১৯ পিএম says : 0
    স্বাধীনতার পর থেকে যদি আমাদের দেশ আল্লাহর আইন দিয়ে শাসন করা হতো তাহলে আমাদের দেশ সত্যি সত্যি সোনার বাংলা হত... যারাই ক্ষমতায় আসে তারাই দেশটাকে নানানভাবে শোষণ করে জনগণকে নানান ভাবে অত্যাচার করে ওরা দেশটাকে ভালোবাসে না ওরা আমাদেরকে ভালবাসে না ওরা শুধু ভালোবাসে কিভাবে ক্ষমতায় থাকবে এবং আমাদের লক্ষ্য লক্ষ্য কোটি হাজার টাকা লুটপাট করে বিদেশে পাঠাবে.
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: সিআরবি

৮ সেপ্টেম্বর, ২০২১

আরও
আরও পড়ুন