Inqilab Logo

ঢাকা, শনিবার ২৫ মে ২০১৯, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬, ১৯ রমজান ১৪৪০ হিজরী।

যশোরে টেন্ডারবাজদের হাতে জেলা আ’লীগ সভাপতি লাঞ্ছিত

প্রকাশের সময় : ২৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৬, ১২:০০ এএম

যশোর ব্যুরো : যশোরে দু’টি সরকারী প্রতিষ্ঠানের ৪৬ কোটি টাকার টেন্ডার জমা দিতে গিয়ে টেন্ডারবাজদের হাতে লাঞ্ছিত হলেন জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শহিদুল ইসলাম মিলন।
বুধবার দুপুরে ঘটনার পর তিনি তাৎক্ষণিকভাবে যশোর প্রেসক্লাবে সাংবাদিক সম্মেলন করে এই অভিযোগ করেন। টেন্ডারবাজ দুর্বৃত্তরা তার গায়ের পাঞ্জাবিটি টেনে ছিঁড়ে ফেলে এবং টেন্ডারের খাম ছিনিয়ে নেয়ার চেষ্টা করে। সাংবাদিক সম্মেলনে তিনি বলেন, দীর্ঘদিন যশোরে সাধারণ ঠিকাদাররা টেন্ডারবাজদের কারণে টেন্ডার জমা দিতে পারেন না। আমি একজন ঠিকাদার। আমার লাইসেন্সে কভার না করায় আমি নিজে গণপূর্ত ও বিজ্ঞান প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ৪৬ কোটি টাকার টেন্ডার চারটি যৌথ প্রতিষ্ঠানের হয়ে দাখিলের জন্য পুলিশ অফিসে যাই। সেখানে কোন টেন্ডার বাক্স ছিল না। টেন্ডারবাজরা আমার টেন্ডার ছিনিয়ে নেয়ার চেষ্টা করে এবং লাঞ্ছিত করে। তাদের টানাহেঁচড়ায় আমার গায়ের পাঞ্জাবী ছিঁড়ে যায়।
আ’লীগ সভাপতি শহিদুল ইসলাম মিলন আরও জানান, তার সঙ্গে থাকা লোকজন একজন টেন্ডারবাজকে পাকড়াও করলেও অন্যান্য টেন্ডারবাজরা ছিনিয়ে নিয়ে যায়। ঘটনাটি তিনি কোতোয়ালি মডেল থানার ওসিকে টেলিফোনে জানিয়েছেন। যশোর কোতোয়ালি থানার অফিসার ইনচার্জ শেখ ইলিয়াস হোসেন আ’লীগ সভাপতিকে বলেছেন, এ ব্যাপারে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।
উল্লেখ্য, যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের তিনটি গ্রুপে প্রায় ২৩ কোটি টাকা এবং গণপূর্তের একটি গ্রুপে ২৩ কোটি টাকার কাজের টেন্ডার জমা দেয়ার শেষ দিন ছিল বুধবার। আওয়ামী লীগ সভাপতি শহিদুল ইসলাম মিলন যশোর, নড়াইল, গোপালগঞ্জ ও কুমিল্লার চারটি প্রতিষ্ঠানের নামে দরপত্র জমা দিতে গিয়েছিলেন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ