Inqilab Logo

বৃহস্পতিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৮ আশ্বিন ১৪২৮, ১৫ সফর ১৪৪৩ হিজরী
শিরোনাম

ইউটিউব থেকে সরিয়ে নেওয়া হলো নিশো-মেহজাবীনের নাটক!

বিনোদন ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৬ জুলাই, ২০২১, ১২:০৬ পিএম

বিশেষ চাহিদাসম্পন্ন শিশুর জন্ম নেয়ার কারণ হিসেবে কুসংস্কার প্রচার করে সমালোচনার মুখে পড়ে ইউটিউব থেকে সরিয়ে নেওয়া হলো নিশো-মেহজাবীন অভিনীত ঈদের নাটক 'ঘটনা সত্য'। নাটকটি শুধু সরিয়ে নেওয়াই হয়নি, নাটকে প্রচারিত সংলাপের কারণে ক্ষমা চাইলেন পরিচালক। পাশাপাশি নাটকের দুই অভিনয়শিল্পী আফরান নিশো ও মেহজাবীন চৌধুরী দর্শকের কাছে দুঃখ প্রকাশ করেছেন।

মঈনুল সানুর চিত্রনাট্য ও তরুণ নির্মাতা রুবেল হাসানের পরিচালনায় 'ঘটনা সত্য' নাটকটিতে আফরান নিশো অভিনয় করেছেন ব্যক্তিগত গাড়ির ড্রাইভার চরিত্রে এবং মেহজাবীন অভিনয় করেছেন কাজের বুয়ার চরিত্রে। নাটকের শেষ দিকে বলা হয়, বাবা মা-র পাপের শাস্তি বা কর্মফলের কারণে প্রতিবন্ধী সন্তান জন্মগ্রহণ করে। এ ধরনের বার্তার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সমালোচনা ওঠে। অনেক বাবা-মা স্ট্যাটাস ও লাইভে এসে নাটকটির রচয়িতা, পরিচালক ও অভিনয়শিল্পীদের দায়িত্ববোধ নিয়ে প্রশ্ন তোলেন। তাদের মতো এমন অভিনয়শিল্পীদের কাছ থেকে এমন ভুল তথ্য আশা করেন না বলে জানান।

নাটকের দৃশ্যপটে চরম মিথ্যা এবং কুসংস্কার দেখানো হয়েছে উল্লেখ করে রোববার গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে ‘চাইল্ড ফাউন্ডেশন’ নামে একটি বেসরকারি সংস্থার চেয়ারম্যান তাহরিন আমান বলেন, ‘ঘটনা সত্য গল্পে চরম অসত্য এবং বিশেষ চাহিদাসম্পন্ন মানুষদের পরিবারকে আঘাত করে যে গল্প সাধারণ মানুষের সামনে উপস্থাপন করা হয়েছে, তা দুঃখজনক এবং আইনত দণ্ডনীয় হওয়া উচিত।’ এতে আরো বলা হয়, ‘তাদের এই ভুল তথ্যসংবলিত নাটকটি ব্যথিত করেছে লাখো বিশেষ চাহিদাসম্পন্ন পরিবারকে। এই নাটকের মাধ্যমে যে কুসংস্কার দেখানো হয়েছে, তা আমাদের সংস্কৃতি এবং সাধারণ মানুষের ব্যক্তিগত মূল্যবোধে আঘাত হেনেছে।’

এদিকে রোববার সন্ধ্যায় এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে নাটকটির প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান সিএমভির কর্ণধার এস কে সাহেদ আলী পাপ্পু জানিয়েছেন, ২৪ জুলাই ‘ঘটনা সত্য’ নামের একটি ঈদের নাটক প্রকাশ করেছি আমাদের ইউটিউব চ্যানেলে। সেটি নিয়ে কিছু আলোচনা লক্ষ করেছি। অভিযোগও করেছেন অনেক দর্শক। নাটকটি প্রকাশের পর অনেকেই জানিয়েছেন, এ নাটকের মাধ্যমে ভুল বার্তা দেওয়া হয়েছে। অভিযোগটির সাথে আমরা সহমত পোষণ করছি। দুঃখ প্রকাশ করে সাহেদ আলী পাপ্পু আরও জানিয়েছেন, ‘ঘটনা সত্য’ নাটকের নাট্যকার, পরিচালক, প্রযোজক, শিল্পী এবং কলাকুশলীদের পক্ষ থেকে আমরা গভীরভাবে দুঃখ প্রকাশ করছি।

এই নাটকের মাধ্যমে সমাজে ভুল বার্তা যাওয়ার বিষয়টি স্বীকার করেছেন পরিচালক রুবেল হাসানও। তিনি বলেন, ‘যখনই আমরা বুঝতে পেরেছি এই বিষয়টি ঠিক হয়নি, তখনই নাটকটি আমাদের চ্যানেল থেকে সরিয়ে ফেলেছি। এটি ঠিক করে আবার ছাড়ব।’ তবে তারা নামালেও অন্য অনেক চ্যানেলে সেটি ঠিকই চলছে এ প্রসঙ্গে তিনি আরো বলেন, ‘আমরা নাটকটি ঠিক করে যখন আপলোড করব, তখন সেই চ্যানেলগুলোর বিরুদ্ধে রিপোর্ট করতে পারব।’।

নাটকের দুই প্রধান শিল্পী আফরান নিশো ও মেহজাবীন চৌধুরী বলেন, ‘প্রত্যেক বাবা-মা ও সন্তানের প্রতি আমাদের ভালোবাসা জানাই। সেই সাথে, ভবিষ্যতে এমন নাটক করার প্রতিশ্রুতি দিচ্ছি, যা সঠিক বার্তা সমাজে ছড়িয়ে দেয় এবং দর্শকদের সঠিক পথে পরিচালিত করে। পুরো কাজটির সঙ্গে জড়িত সবার পক্ষ থেকে আমরা দুঃখ প্রকাশ করছি এবং ক্ষমা চাইছি।’

উল্লেখ্য, ‘ঘটনা সত্য’ নাটকটি সিএমভি’র ইউটিউব চ্যানেলে প্রকাশ হয় গতকাল ২৪ জুলাই। সেটি রবিবার (২৫ জুলাই) দুপুর নাগাদ প্রত্যাহার করা হয়। নাটকটি প্রকাশের পর আনুষ্ঠানিক প্রতিবাদ জানায় চাইল্ড ফাউন্ডেশনসহ দেশ-বিদেশের অসংখ্য দর্শক।



 

Show all comments
  • SUMON sumon ২৬ জুলাই, ২০২১, ৮:৪০ পিএম says : 0
    সকল ড্রাইভারতো আর চোর না সকল বুয়াও চোর না
    Total Reply(0) Reply
  • Neamat Ullah ২৬ জুলাই, ২০২১, ১০:৩৭ পিএম says : 0
    নাটকের কিছু কিছু অংশে দেখা গেছে মানুষ নামের কিছু অমানুষ নিজের লোভের কাছে নিজের বিবেক বিসর্জন দেয় । প্রয়োজনে অন্যর খারাপ তাঁতে তাহার কি আসে যায় । শেষ সময়ে যে দৃশ্য গুলো দেখানো হয়েছে তা সম্পূর্ণ সঠিক । কাউকে ধোকা দিয়ে বোকা বানানো যায় কিন্তু নিজেকেও পরিমাণ ভোগ করতে হয় ।
    Total Reply(0) Reply
  • Kader sheikh ২৬ জুলাই, ২০২১, ১০:৩৭ পিএম says : 0
    কোনটা কুসংস্কার আর আর কোনটা পাপের ফল তা বোঝার ক্ষমতা এই যামানার বাবা-মা তথা মানুষদের নেই বললেই চলে। বাবা-মায়ের পাপের শাস্তি আল্লাহ্ সাধারণত সন্তানদের মাধ্যেই দিয়ে থাকেন....... কথা কিন্তু সত্যি!
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন