Inqilab Logo

রোববার, ২২ মে ২০২২, ০৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ২০ শাওয়াল ১৪৪৩ হিজরী
শিরোনাম

প্রিন্সিপালের ফোনালাপ ফাঁসে তোলপাড়

ভিকারুননিসা স্কুল

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৭ জুলাই, ২০২১, ১২:০২ এএম

ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের প্রিন্সিপাল কামরুন নাহার ও অভিভাভবক ফোরামের নেতা মীর সাহাবুদ্দিন টিপুর মধ্যকার একটি ফোনালাপ ফাঁস হয়েছে। এ নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে নানা আলোচনা সমালোচনা হচ্ছে। এই ফোনালাপটি রোববার রাত থেকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছে। রেকর্ডটিতে ৪ মিনিট ৩৯ সেকেন্ড ধরে প্রিন্সিপাল ও অভিভাবক ফোরামের নেতা মীর সাহাবুদ্দিন টিপু কথা বলেন। এতে প্রিন্সিপাল এমন বিশ্রি ও অশ্লীল ভাষায় গালাগাল করেছেন যা শোনারও অযোগ্য।

অডিওতে কামরুন নাহার দাবি করেন, তিনি ক্ষমতাসীন দলের সাবেক কর্মী। এ সময় তিনি নিজেকে ‘অভদ্র রাজনৈতিক মেয়ে’ বলে দাবি করেন। কেউ একজনকে ‘কোপানোর’ হুমকি দিয়ে ‘আগের চরিত্রে’ ফিরে যাওয়ার কথাও বলেন তিনি। তিনি বলেন ‘আমার বিরুদ্ধে যারা লেখে রাস্তায় পিটিয়ে তাদের কাপড় খুলে নেব।

এতে দেখা যায় প্রিন্সিপাল এক পর্যায়ে বলেন, আমি বালিশের নিচে পিস্তল রাখি। কোনো ... বাচ্চা যদি আমার পেছনে লাগে আমি কিন্তু ওর পেছনে লাগব, আমি শুধু ভিকারুননিসা না আমি তাকে দেশছাড়া করব। এতে আরো বলতে শোনা যায়, কোন ... পোলার কী যায় আসে? আমি রাজনীতি করা মেয়ে আমি কিন্তু ভদ্র না। আর কোনো ... বাচ্চা তদন্ত কমিটি করলে আমি কিন্তু দা দিয়ে কোপাবো তারে সোজা কথা। আমার ... আছে। আমার বাহিনী আছে। আমার ছাত্রলীগ আছে, যুবলীগ আছে, আমার যুব মহিলা লীগ আছে। কিচ্ছু লাগবে না।

ফাঁস হওয়া ওই ফোনালাপের অডিওটি ভিত্তিহীন ও সুপার এডিট করা বলে মন্তব্য করেছেন কলেজের প্রিন্সিপাল কামরুন নাহার। তিনি বলেন, ওরা অভিভাবক ফোরাম চায় আমি কিছু আসন ফাঁকা রাখি যাতে তারা ভর্তি বাণিজ্য করতে পারে। আমি বলেছি শিক্ষামন্ত্রী আমাকে এখানে থাকতে বলেছেন। এ প্রতিষ্ঠানকে ঠিক করার দায়িত্ব আমাকে দিয়েছেন। আমি যদি এদের কথায় ভর্তি বাণিজ্যের অনিয়ম করে বেড়াই মন্ত্রীর কাছে আমি তখন কি জবাব দেবো। আমার ইতিহাসে অন্যায়ের কোন দাগ নেই। এর আগের কোন প্রিন্সিপাল এখানে কেন থাকতে পারেনি এখন বুঝতে পেরেছি।

ফোনালাপটি ফাঁস হওয়ার পর শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের মাঝে ব্যাপক প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে। একজন কলেজ প্রিন্সিপাল এমন ভাষায় কথা বলতে পারেন কিনা এ নিয়ে প্রশ্ন রেখে অনেকে তার অপসারণ দাবি করছেন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ভিকারুননিসা স্কুল
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ