Inqilab Logo

মঙ্গলবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৬ আশ্বিন ১৪২৮, ১৩ সফর ১৪৪৩ হিজরী

ভোট গ্রহণ স্থগিত করলেন হাইকোর্ট

সিলেট-৩ আসনে উপ-নির্বাচন

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৭ জুলাই, ২০২১, ১২:০০ এএম

জাতীয় সংসদের সিলেট-৩ আসনের উপ-নির্বাচনের ভোট গ্রহণ আগামী ৫ আগস্ট পর্যন্ত স্থগিত করেছেন হাইকোর্ট। রিটের শুনানি শেষে গতকাল সোমবার বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহিমের ভার্চুয়াল বেঞ্চ এ আদেশ দেন। আগামী ২৮ জুলাই আসনটিতে ভোট গ্রহণের কথা ছিল। রিটকারীদের পক্ষে শুনানি করেন অ্যাডভোকেট মোহাম্মদ শিশির মনির। সরকারপক্ষে শুনানিতে অংশ নেন অ্যাটর্নি জেনারেল এএম আমিন উদ্দিন ও ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল বিপুল বাগমার। ওই নির্বাচনী আসনের ৭ ভোটার এবং ৬ আইনজীবী বাদী হয়ে রিট করেন। তাদের মধ্যে অ্যাডভোকেট মো. মুজাহিদুল ইসলাম, আল-রেজা মো. আমির, মো. জোবায়দুর রহমান, মো. জহিরুল ইসলাম এবং মুস্তাফিজুর রহমান রয়েছেন। চলতি বছর ১১ মার্চ সিলেট-৩ আসনের এমপি মাহমুদ উস সামাদ চৌধুরী কয়েস করোনা আক্রান্ত হয়ে ইন্তেকাল করলে আসনটি শূন্য ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশন

রিটে বলা হয়, ২৫ জুলাইয়ের গণমাধ্যমের প্রতিবেদনে সিলেট-৩ সংসদীয় আসনে ২৮ জুলাই অনুষ্ঠিতব্য উপ-নির্বাচন সংক্রান্তে আপনার বক্তব্য প্রকাশিত হয়েছে। নির্বাচন কমিশন বলছে যে, সাংবিধানিক বাধ্যবাধকতার কারণে চলমান লকডাউনেও নির্বাচন স্থগিত রাখা সম্ভব নয়। কার্যত বাংলাদেশের সংবিধান ১২৩ এর দফা ৪ শর্তানুসারে সিলেট উপ-নির্বাচন অনুষ্ঠানের সময়সীমা ২০২১ সালের সেপ্টেম্বর মাসের ৭ তারিখ পর্যন্ত। তাই ২৮ জুলাইয়ে অনুষ্ঠিতব্য উপ-নির্বাচন স্থগিত করা যাবে নাÑ এই ব্যাখ্যা আইনসম্মত নয়। বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশনের উচিত চলমান করোনাভাইরাস সংক্রমণ বৃদ্ধি বিবেচনায় নিয়ে লকডাউনের সময়ে নির্বাচন অনুষ্ঠান আয়োজন না করা এবং ৭ সেপ্টেম্বরের মধ্যে অন্য যেকোনো সময় ভোট গ্রহণের দিন নির্ধারণ করা। ৩ লাখ ৫২ হাজার ভোটারের এই নির্বাচন অনুষ্ঠান সরকারের বর্তমান লকডাউন নীতিরও বিরোধী। সুতরাং ২৮ জুলাইয়ের মধ্যে নির্বাচন অনুষ্ঠানের কোনো সাংবিধানিক বাধ্যবাধকতা নেই। তাই করোনাভাইরাস সংক্রমণের বৃদ্ধি বিবেচনায় নিয়ে ২৮ জুলাই অনুষ্ঠিতব্য সিলেট-৩ আসনের ভোটগ্রহণ স্থগিত করার অনুরোধ জানাচ্ছি। এ কথার বিরোধিতা করে অ্যাটর্নি জেনারেল বলেন, নির্ধারিত সময় নির্বাচন করার সাংবিধানিক বাধ্যবাধকতা রয়েছে। সাংবিধানিক ধারাবাহিকতা রক্ষার্থেই নির্বাচন কমিশনকে কঠোর লকডাউনের মধ্যে নির্বাচন করতে হচ্ছে। শুনানি শেষে আদালত উপরোক্ত আদেশ দেন।

উল্লেখ্য, মাহমুদ উস সামাদ এমপি’র মৃত্যুর পর ১৫ মার্চ জাতীয় সংসদ সচিবালয়ের সিনিয়র সচিব স্বাক্ষরিত বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে উক্ত আসন ১১ মার্চ তারিখ থেকে সিলেট-৩ আসন শূন্য ঘোষণা করা হয়। গত ২ জুন বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশন নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করে এবং ১৪ জুলাই ভোট গ্রহণের তারিখ ধার্য করে। ১৫ জুন বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশন ভোটগ্রহণের তারিখ পরিবর্তন করে ২৮ জুলাই নির্ধারণ করে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: সিলেট-৩ আসনে উপ-নির্বাচন
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ