Inqilab Logo

বুধবার, ২৭ অক্টোবর ২০২১, ১১ কার্তিক ১৪২৮, ১৯ রবিউল আউয়াল সফর ১৪৪৩ হিজরী

হ্যারি-মেগানের মেয়ে উত্তরসূরী তালিকায়

ব্রিটিশ রাজসিংহাসন

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৮ জুলাই, ২০২১, ১২:০২ এএম

আনুষ্ঠানিকভাবে ব্রিটিশ রাজসিংহাসনের উত্তরসূরী হলেন প্রিন্স হ্যারি ও মেগান মার্কেলের কন্যা লিলিবেট ডায়ানা। ক্যালিফোর্নিয়ার সান্তা বার্বারা কটেজ হাসপাতালে জন্ম নেয়ার সাত সপ্তাহ পরে তার নাম আনুষ্ঠানিকভাবে উত্তরসূরীদের তালিকায় যুক্ত করা হলো।
লিলিবেটকে ব্রিটিশ সিংহাসনের অষ্টম উত্তরসূরী হিসাবে দেখিয়ে সোমবার অফিসিয়াল রয়্যাল ইউকে ওয়েবসাইট আপডেট করা হয়েছে। তার আগে রানী এলিজাবেথের সিংহাসনের ষষ্ঠ ও সপ্তম উত্তরসূরী হিসাবে রয়েছে যথাক্রমে তার বাবা প্রিন্স হ্যারি ও বড় ভাই অর্চি। জন্মসূত্রে রাজকীয় না হওয়ায় তার মা মেগানের নাম এই তালিকায় নেই। যেমন নেই কেট মিডলটন, মাইক টিন্ডাল বা ইয়র্কের ডাচেস সারা ‘ফার্গি’ ফার্গুসনের মতো রাজপরিবারের অন্যান্য বধূদের নাম।

ব্রিটিশ সিংহাসনের উত্তরাধিকারের এ তালিকার প্রথা ১৭ শতাব্দীতে রাজা তৃতীয় উইলিয়ামের (অরেঞ্জের উইলিয়াম হিসাবে পরিচিত) শাসনামল থেকেই চলে আসছে। তবে সে সময় রাজপরিবারের পুরুষ সদস্যদের অগ্রাধিকার দেয়া হতো। ফলে উত্তরাধিকারের তালিকায় বড় বোনের আগে ছোট ভাইয়ের নাম রাখা হতো। ২০১৩ সালে এটি সংশোধিত করে পুরুষ সদস্যদের অগ্রাধিকার পাওয়ার বিষয়টি বাতিল করা হয়। একই সাথে সংশোধনীর মাধ্যমে একটি ঐতিহাসিক নিয়মও বাতিল করে দেয়া হয়। সেটি হচ্ছে কোনো রোমান ক্যাথলিককে বিয়ে করলে কারো নাম রাজকীয় তালিকা থেকে বাদ পড়ে যাওয়ার বিষয়টি। পরিবর্তনগুলো ২০১৫ সালের মার্চ মাসে কার্যকর হয়েছিল - তবে কেবল ২০১১ সালের ২৮ অক্টোবরের পরে জন্ম নেয়া রাজকন্যাদের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য।

তবে তালিকায় লিলিবেটের এ অবস্থানের পরিবর্তন হতে পারে। ভবিষ্যতে প্রিন্স হ্যারির বড় ভাই প্রিন্স উইলিয়াম ও কেটের সন্তানদের মধ্যে কেউ বাবা-মা হলে তাদের সন্তানদের নাম উত্তরাধিকারের তালিকায় আগে স্থান পাবে। এই মুহূর্তে প্রিন্স জর্জ, প্রিন্সেস শার্লট এবং প্রিন্স লুই তালিকায় তৃতীয় থেকে পঞ্চম স্থান ধরে রেখেছেন। তাদের পিতা উইলিয়াম রয়েছেন তালিকায় দ্বিতীয় অবস্থানে এবং তাদের দাদা প্রিন্স চার্লস রয়েছেন প্রথম স্থানে। সূত্র : পিপল ডট কম।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ব্রিটিশ রাজসিংহাসন
আরও পড়ুন