Inqilab Logo

সোমবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১২ আশ্বিন ১৪২৮, ১৯ সফর ১৪৪৩ হিজরী

গোদাগাড়ীতে লোহার চাপ্পর দিয়ে কুপিয়ে আহত করে দোকানদারকে

গোদাগাড়ী (রাজশাহী) উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ২৮ জুলাই, ২০২১, ১:৪০ পিএম

রাজশাহীর গোদাগাড়ীতে পাওয়া টাকা আন্তে গিয়ে চাঁপড় দিয়ে এলোপাতলি আঘাত করে মারাত্মকভাবে আহত করেছেন এক দোকান মালিককে। ঘটনাটি ঘটেছে গত মঙ্গলবার দিবাগত রাত সাড়ে ১১ টার সময়। গোদাগাড়ী পৌরসভার মাদারপুর মহল্লায়।

এলাকাবাসি ও এজাহার সূত্রে জানা গেছে, স্হানীয় ইসরালের ছেলে মতিউর রহমান রুবেল দোকানদার রুহুল আমিন (৪০) কে পাওয়া ২ লাখ ৫০ হাজার টাকা দেয়ার জন্য ডাকেন। টাকা নিতে যাওয়া মাত্রই পূর্বপরিকল্পনা অনুয়ায়ি হত্যার উদ্দেশ্য রুবেলের হাতে গরুর মাংশ চুরা লোহার চাপ্পর দিয়ে এলোপাথাড়ি খোপাতে থাকে। রুবেলে ভাই সোহেলও ধারালো অস্ত্র দিয়ে আঘাত করতে থাকে। রুহুলের বাঁচাও বাঁচাও চিৎকারে এলাকাবাসি এগিয়ে আসলে তারা চাপ্পর পাশের পুকুরে ফেলে পালিয়ে যায়। স্থানীয় দোকানদার রুহুলকে রক্তক্ত অবস্থায় উদ্ধার করে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ৬ নং ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়েছে। তার অবস্থা আশাংকা জন বলে জানা গেছে। রুহুল আমিন মাদারপুর মহল্লার এলাকার মৃত্যু দাউদ আলীর ছেলে।

রুহুলের বড় ভাই আব্দুল হান্নান বলেন, আমার ছোট ভাই রুহুল মুদির দোকানের সাথে বিকাশের ব্যবসা করেন। রুবেলের নিকট ২ লাখ ৫০ হাজার টাকা পেতে। তাকে টাকা দেয়ার জন্য ডেকে হত্যার উদ্দেশ্যে রুবেল ও সোহেল চাঁপড় ও ধারালো অস্ত্র দিয়ে মারাত্বকভাবে আহত করেন। রাজশাহী মেডিক্যালের ৬ নং ওয়ার্ডে চিকিৎসা নিচ্ছেন, তার অবস্থা আশাংকাজনক। তারা গোদাগাড়ী পৌরসভার ৩ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মনিরুল ইসলামের শালক হওয়ায় বীর দাপটে এ সব অকাম -কুকাম করে বেড়াচ্ছেন। ওই রাতে গোদাগাড়ী মডেল থানার এস আই তোফায়েল এসে রক্তমাখা চাপর, নুঙ্গি, গেঞ্জি উদ্ধার করেছেন।

গোদাগাড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কামরুল ইসলাম বলেন, রুহুলের বড় ভাই দাদি এই মাত্র মামলা হয়েছে, আসামীদের গ্রেফতারের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: আহত


আরও
আরও পড়ুন