Inqilab Logo

মঙ্গলবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৬ আশ্বিন ১৪২৮, ১৩ সফর ১৪৪৩ হিজরী

১৩ মাসে তিন বার আক্রান্ত ২ বার টিকা নেয়ার পর

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৯ জুলাই, ২০২১, ১২:০২ এএম

নতুন ও আরও বেশি আগ্রাসী ভ্যারিয়েন্টের বিরুদ্ধে করোনাভাইরাসের টিকার কার্যকারিতা বিতর্কের মধ্যেই ভারতের মুম্বাইয়ের এক চিকিৎসক গত ১৩ মাসে তিন বার কোভিড-১৯ এ আক্রান্ত হয়েছেন। এর মধ্যে দুইবার আক্রান্ত হয়েছেন পূর্ণাঙ্গ দুই ডোজ টিকা নেওয়ার পর। খবরে বলা হয়েছে, ২৬ বছর বয়সী ওই চিকিৎসকের পরিবারের সদস্যদের মধ্যে কো-মরবিডিটিজ থাকা বাবা, মা ও ভাই এই মাসে প্রথমবারের মতো করোনা পজিটিভ হয়েছে। তাদেরকেও টিকার দুটি ডোজ দেওয়া হয়েছে। পুরো পরিবার হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন এবং ভাইরাসের কোনও ভ্যারিয়েন্টে তারা আক্রান্ত হয়েছেন জানার জন্য চিকিৎসক ও তার ভাইয়ের নমুনা পর্যালোচনা করা হচ্ছে। মুম্বাইয়ের মুলুন্দ এলাকার বীর সাভারকার হাসপাতালে কোভিড ডিউটিতে ছিলেন চিকিৎসক শ্রুষ্টি হালারি। গত বছর ১৭ জুন তিনি প্রথম করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হন। ওই সময় তার সংক্রমণ হালকা ছিল। এই বছরের ৮ মার্চ তিনি প্রথম ও ২৯ এপ্রিল তিনি কোভিশিল্ডের দুটি ডোজ নিয়েছেন। একসাথে তাদের পুরো পরিবার টিকা নেয়। কিন্তু এক মাস পর ২৯ মে চিকিৎসক হালারি দ্বিতীয়বার করোনা পজিটিভ হন। এবারও হালকা উপসর্গ ছিল, বাড়িতে অবস্থান করেই সুস্থ হন। ১১ জুলাই আবার এই চিকিৎসক করোনা আক্রান্ত বলে রিপোর্টে উঠে আসে। এবার পুরো পরিবারই আক্রান্ত। চারজনকেই রেমডিসিভির দিয়ে চিকিৎসা করা হয়। চিকিৎসক হালারি বলেন, তৃতীয়বার বেশি ভুগতে হয়েছে। আমি ও পরিবারের সদস্যরা হাসপাতালে ভর্তি হয়, রেমডিসিভির প্রয়োজন পড়ে। আমার ভাই ও মায়ের ডায়বেটিস রয়েছে এবং বাবার উচ্চ রক্তচাপ ও কোলেস্টেরল সমস্যা রয়েছে। ভাইয়ের শ্বাস নিতে কষ্ট হচ্ছিল। তাই আমরা তাকে দুই দিন অক্সিজেনে রাখি। এনডিটিভি।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: করোনাভাইরাস

২০ সেপ্টেম্বর, ২০২১

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ