Inqilab Logo

রোববার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১১ আশ্বিন ১৪২৮, ১৮ সফর ১৪৪৩ হিজরী

কক্সবাজারে করোনায় মারা গেলেন অধ্যাপক মুফিদুল আলম

কক্সবাজার ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ২৯ জুলাই, ২০২১, ৯:৫৮ এএম

কক্সবাজারে করোনায় মারা গেলেন অধ্যাপক মুফিদুল আলম। রাজনীতিবিদ,সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব, কক্সবাজারের কৃতিসন্তান মুফীদুল আলম আজ ২৯ জুলাই কক্সবাজার সদর হাসপাতালে ইন্তেকাল করেছেন।

তিনি ১৪ জুলাই ১৯৪৩ সালে রামু উপজেলার দক্ষিণ মিঠাছড়ি গ্রামে জন্মগ্রহণ করেছিলেন। তিনি ১৯৬৯ সালে করাচি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ইংরেজি ভাষা ও সাহিত্যে এমএ পাশ করেন। ১৯৭৩ সালে এলএলবি করেন। একই বছর অ্যাডভোকেটশিপ সনদ লাভ করেন কিন্তু আইন পেশায় যোগ দেননি।

১৯৭০ সালে কক্সবাজার কলেজে ইংরেজি প্রভাষক হিসাবে যোগ দেন। রাজনীতির পাশাপাশি সাংবাদিকতার সাথেও জড়িত ছিলেন। ১৯৭৬ সালে কক্সবাজার প্রেসক্লাবের সহসভাপতি মনোনীত হয়েছিলেন। দীর্ঘদিন পর পুনরায় তিনি অধ্যাপনায় ফিরে আসেন। ঢাকার আহসানুল্লাহ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের খণ্ডকালীন অধ্যাপক পদে যোগ দিয়েছিলেন।

২০০৬ সালে কক্সবাজার ইন্টারন্যাশনাল স্কুল এন্ড কলেজের ইংরেজি বিভাগের প্রধান অধ্যাপক ও পরে অধ্যক্ষের দায়িত্ব পালন করেন। নাট্যকার, গীতিকার, অনুবাদক স্বনামে বেনামে অনেক বইয়ের লেখক মুফীদুল আলম ১৯৭৪ থেকে কক্সবাজারের প্রথম সংগীত বিদ্যালয় সংগীতায়তনের সভাপতির দায়িত্ব পালন করেন ও এর উন্নয়নে ভূমিকা রাখেন।

তিনি ছাত্র অবস্থা থেকেই বাম রাজনীতির সাথে জড়িত ছিলেন। কমিউনিস্ট পার্টির কেন্দ্রিয় নেতা ছিলেন। ১৯৭০ সালে ন্যাপ ( ভাসানী) তে যোগ দেন। ১৯৭৪-১৯৭৬ পর্যন্ত জেলার সাধারণ সম্পাদক ছিলেন।

১৯৭৩ সালে কক্সবাজার- রামু- টেকনাফ আসন থেকে জাতীয় সংসদ নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করেন। রুবাইয়াতে ওমর খৈয়াম ও মাও সে তুঙ চিন্তাধারার পর্যালোচনা বই দুটি সাম্প্রতিক আলোচিত কাজ।

তাঁর মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেছেন কক্সবাজারের বিভিন্ন রাজনৈতিক ও পেশাজীবি সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: করোনাভাইরাস


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ