Inqilab Logo

রোববার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১১ আশ্বিন ১৪২৮, ১৮ সফর ১৪৪৩ হিজরী

তালেবান প্রতিনিধিদের চীন সফর, নিরাপত্তা নিয়ে আলোচনা

অনলাইন ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৯ জুলাই, ২০২১, ১০:১৯ এএম

চীনের কর্মকর্তাদের সঙ্গে আলোচনার জন্য আফগানিস্তানের তালেবান গোষ্ঠীর শীর্ষ পর্যায়ের একটি প্রতিনিধিদল আজ বুধবার দেশটি সফরে গেছে। তালেবান মুখপাত্র মোহাম্মদ নায়েম এ কথা জানান। সফরে চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়াং ইর সঙ্গে শান্তিপ্রক্রিয়া ও নিরাপত্তা সংক্রান্ত বিষয়ে বৈঠক করেছে দলটি। তালেবানের প্রতিনিধি দলের নেতৃত্ব দিচ্ছেন সংগঠনটির সহ-প্রতিষ্ঠাতা মোল্লা আবদুল গণি বারাদর। খবর রয়টার্সের।
সফরকালে বৈঠক প্রসঙ্গে তালেবানের মুখপাত্র মোহাম্মদ নাইম টুইটারে বলেছেন, “আফগানিস্তানের বর্তমান অবস্থা, শান্তিপ্রক্রিয়া এবং দুই দেশের রাজনীতি, অর্থনীতি ও নিরাপত্তা ইস্যু নিয়ে বৈঠকে আলোচনা করা হয়েছে।”
তিনি জানান, চীন কর্তৃপক্ষের আমন্ত্রণেই তালেবান এই সফর করেছে এবং পররাষ্ট্রমন্ত্রী ছাড়াও আফগানিস্তান বিষয়ক বিশেষ চীনা দূতের সঙ্গে প্রতিনিধিদলের আলোচনা হয়েছে।
চীনের তিয়ানজিন শহরে পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে তালেবান প্রতিনিধিদলের দেখা করার বিষয়টি দেশটির সরকারের পক্ষ থেকেও নিশ্চিত করা হয়েছে।
চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়াং বুধবার বলেছেন, আফগানিস্তানে যুদ্ধের অবসান ঘটিয়ে দেশের পুনর্গঠন এবং শান্তি ও সম্প্রীতি প্রতিষ্ঠায় তালেবান গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে বলে তিনি আশা করেন।
আফগানিস্তানে সহিংসতা বাড়ার এই সময়ে তালেবান চীন সফরের মধ্য দিয়ে আন্তর্জাতিক অঙ্গনে পাকাপোক্তভাবে স্বীকৃতি লাভের চেষ্টা চালাচ্ছে বলেই ধারণা বিশ্লেষকদের।
কাতারে তালেবানের রাজনৈতিক কার্যালয়ে শান্তি আলোচনা অনুষ্ঠিত হচ্ছে। এ মাসে তালেবান প্রতিনিধিদল ইরানও সফর করেছে। সেখানে আফগান সরকারের প্রতিনিধিদের সঙ্গেও বৈঠক করেছে তারা।
তালেবান মুখপাত্র মোহাম্মদ নাইম এক টুইটে বলেন, “প্রতিনিধিরা চীনকে আশ্বস্ত করে বলেছে, আফগানিস্তানের মাটি বেইজিংয়ের বিরুদ্ধে ব্যবহার হতে দেওয়া হবে না। চীনও আফগানদেরকে সহায়তা করে যাওয়ার অঙ্গীকার পুনর্ব্যক্ত করেছে এবং বলেছে, তারা আফগানিস্তানের কোনও বিষয়ে হস্তক্ষেপ করবে না, তবে দেশটির সমস্যা সমাধানে এবং শান্তি প্রতিষ্ঠায় সহায়তা করবে।” সূত্র : রয়টার্স।



 

Show all comments
  • Dadhack ২৯ জুলাই, ২০২১, ৫:৩০ পিএম says : 0
    May Allah's curse upon chinses barbarian government because decades after decades they are inhumanely torture muslims.
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: চীন


আরও
আরও পড়ুন