Inqilab Logo

সোমবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১২ আশ্বিন ১৪২৮, ১৯ সফর ১৪৪৩ হিজরী

পাকিস্তান তালেবানের জন্য দায়বদ্ধ বা তাদের মুখপাত্র নয়: ইমরান খান

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৯ জুলাই, ২০২১, ৮:০৭ পিএম

পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান বলেছেন, পাকিস্তান তালেবানদের কর্মকাণ্ডের জন্য ‘দায়বদ্ধ’ নয় এবং দেশটি ওই গ্রুপের মুখপাত্র নয়। বৃহস্পতিবার ইসলামাবাদে আফগান সাংবাদিকদের একটি দলের সঙ্গে কথা বলার সময় তিনি এই মন্তব্য করেন।

ইমরান খান বলেন, ‘তালেবানরা যা করছে বা করছে না তার সাথে আমাদের কোন সম্পর্ক নেই এবং আমরা দায়ী নই, আমরা তালেবানদের মুখপাত্রও নই।’ তিনি পুনরায় উল্লেখ করেন যে, ইসলামাবাদ কেবল আফগানিস্তানে শান্তি চায়। ভারতের বিষয়ে জানতে চাইলে ইমরান খান বলেন যে, পাকিস্তান আফগান শান্তি প্রক্রিয়ায় ভারতের সাথে অংশগ্রহণ গ্রহণ করবে না যতক্ষণ না নয়াদিল্লি অধিকৃত কাশ্মীর নিয়ে ২০১৯ সালের ৫ আগস্টের অবৈধ সিদ্ধান্ত বাতিল করে। তিনি বলেন, ‘পাকিস্তান সবসময় ভারতের সাথে শান্তি কামনা করে, কিন্তু ভারতই শান্তি চায়নি কারণ এটি বর্তমানে আরএসএস মতাদর্শের প্রভাবে রয়েছে।’

আফগানিস্তানের বিষয়ে ইমরান খান জানান, পাকিস্তান আফগানদের শান্তিপূর্ণ মীমাংসার জন্য প্রয়োজনীয় সবকিছু করতে প্রস্তুত এবং ইচ্ছুক তবে তারা তালেবানের বিরুদ্ধে শক্তি প্রয়োগের বিষয়টি প্রত্যাখ্যান করেছে। তিনি বলেন, ‘আমরা বিশ্বাস করি যে বাইরে থেকে আফগানিস্তানকে নিয়ন্ত্রণ করা যায় না। আমাদের নীতি হ’ল আফগানিস্তানের জনগণ যাকেই বেছে নেয় তার সাথে সর্বাধিক সম্পর্ক স্থাপন করা।’ তিনি আরও বলেন, দুর্ভাগ্যজনকভাবে আফগান সঙ্কটের জন্য পাকিস্তানকে দোষ দেয়া হয়েছিল কারণ পাকিস্তানই তালেবানকে আলোচনার টেবিলে আসতে রাজি করিয়েছিল।

পাকিস্তানে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সামরিক ঘাঁটি দেয়ার বিষয়ে ইমরান খান বলেন, পাকিস্তান থেকে ঘাঁটি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র কী অর্জন করতে পারে যা তারা দুই দশক ধরে আফগানিস্তানে পরিচালনার মাধ্যমে অর্জন করতে পারেনি। তিনি বলেন, ‘এটা ত্রুটিযুক্ত কৌশল ছিল। আফগানিস্তানে যখন দেড় লাখ ন্যাটো সৈন্য উপস্থিত ছিল তখন তাদের সেই শক্ত অবস্থান থেকে তালেবানের সাথে কথা বলা উচিত ছিল। যুক্তরাষ্ট্রকে পাকিস্তান থেকে পরিচালনা করার কোন কারণ নেই, কারণ এটি পাকিস্তানকে কেবল একটি সংঘাতের দিকে টেনে তুলবে।

আফগান রাষ্ট্রদূতের কন্যা অপহরণের ঘটনা নিয়ে ইমরান খান বলেন, ‘রুটগুলোর একটি বিশদ ম্যাপিং হয়েছে যেখান দিয়ে রাষ্ট্রদূতের কন্যাকে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল।’ তিনি বলেন, ‘দুর্ভাগ্যক্রমে, রাষ্ট্রদূতের কন্যার অ্যাকাউন্টে তাকে কোথায় নিয়ে যাওয়া এবং মারধর করা হয়েছে সে সম্পর্কে তিনি যা বলেছিলেন তার সাথে মিলছে না। আমরা ফুটেজ বিশ্লেষণ করেছি এবং পুলিশ তিনটি ট্যাক্সি ড্রাইভারকেও জিজ্ঞাসাবাদ করেছে। তাকে পুরোপুরি ঠিকঠাক বসে থাকতে দেখা যায় যেখানে তিনি বলেছিলেন তাকে মারধর করা হয়েছে।’ তিনি আরও যোগ করেছেন যে, রাষ্ট্রদূত ও তার পরিবার আফগানিস্তানে ফিরে যাওয়ায় আমরা তাকে বা তার মেয়েকে প্রশ্ন করতে পারছি না। তবে ফুটেজটি আফগান প্রতিনিধিদের হাতে দেয়া হবে যাতে তারা তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করতে পারে। সূত্র : ট্রিবিউন।



 

Show all comments
  • Monjur Rashed ৩১ জুলাই, ২০২১, ১:৫৫ পিএম says : 0
    Courageous statement.
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: পাকিস্তান

২৭ সেপ্টেম্বর, ২০২১

আরও
আরও পড়ুন