Inqilab Logo

রোববার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১১ আশ্বিন ১৪২৮, ১৮ সফর ১৪৪৩ হিজরী

এবার দোভাষীরাও আফগানিস্তান ছাড়ছে

অনলাইন ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৩০ জুলাই, ২০২১, ৯:১৫ এএম

২০ বছরের যুদ্ধক্ষেত্রে ত্যাগ করে গত কয়েক মাস ধরে আফগানিস্তান ত্যাগ করছে যুক্তরাষ্ট্র ও ন্যাটোর সেনারা। এবার আফগানিস্তান ছাড়ছে শুরু করেছে দোভাষীরা।একই সময়ে বেড়ে গেছে তালিবানদের অভিযান।

আড়াই হাজার আফগান দোভাষী ও তাদের পরিবার স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার যুক্তরাষ্ট্রে পৌঁছাবে বলে জানিয়েছে বিবিসি। তাদের রাখা হবে রাজধানী ওয়াশিংটন ডিসির ফোর্ট লি আর্মি বেজে। সেখানেই তাদের বিশেষ অভিবাসী ভিসা (এসআভি) সম্পন্ন হবে।

২০০১ সালে শুরু হওয়া মার্কিন নেতৃত্বাধীন আফগান যুদ্ধে যারা দেশটির সঙ্গে কাজ করছে তাদের জন্য এই ভিসা চালু করা হয়।

আগস্টের শেষ নাগাদ আফগানিস্তান ছেড়ে যাবে মার্কিন বাহিনীর অবশিষ্টাংশ। মে মাসে ওই প্রক্রিয়া শুরুর পর থেকে তালেবানেরা দেশটির একের পর এক অংশ দখলে নিচ্ছে। এরপর থেকে জীবন নিয়ে শঙ্কায় আছেন দোভাষীরা।

এরই মধ্যে কমপক্ষে ৩০০ আফগান মিত্র ও তাদের পরিবারকে হত্যা করার খবর পাওয়া গেছে।

যুক্তরাষ্ট্রের কর্মকর্তারা জানান, ২০০৮ সাল থেকে এসআইভি পাওয়া ৭০ হাজার আফগানকে পুনর্বাসিত করা হয়েছে।

গত সপ্তাহে এক উচ্চপদস্থ কর্মকর্তারা জানান, এসআইভি আবেদনকারীর সংখ্যা ২০ হাজারের ওপর। তবে এর অর্ধেকেরও প্রথম ধাপের প্রক্রিয়া সম্পন্ন করা যায়নি।

কয়েক দিন আগে হোয়াইট হাউসের প্রেস সচিব জেন সাকি বলেন, দোভাষীদের সবাই সামরিক বা অন্যান্য দপ্তরের জন্য অনুবাদকের কাজ করতেন। তাই তারা এখন তালেবানদের লক্ষ্যবস্তু।

তবে দোভাষীদের পরিবারের ঠিক কতজন সদস্যকে অনুমতি দেওয়া হবে তা নির্দিষ্ট করে বলেননি সাকি। এটাও জানান যে, পরিবারকে নেওয়ার আবেদনের বিষয়টি বিবেচনা করা হবে।

কোনো কোনো হিসেব অনুযায়ী, প্রায় এক লাখ লোককে যুক্তরাষ্ট্রে যাওয়ার অনুমতি দেওয়া হতে পারে।

কর্মকর্তারা তখনই বলছেন, এই মাসে দোভাষী ও তাদের পরিবারকে আফগানিস্তান থেকে সরিয়ে নেওয়ার প্রক্রিয়া শুরু হবে।


সম্প্রতি তালিবানেরা জানায়, তাদের যোদ্ধারা ইতিমধ্যে আফগান ভূখণ্ডের ৮৫ ভাগ নিয়ন্ত্রণে নিয়েছে। সরকারিভাবে এ দাবির বিরোধিতা করা হলেও অন্য কিছু সূত্র বলছে, দেশটির ৪০০টির জেলার অর্ধেকের মতো দখল করে নিয়েছে তালিবানেরা। বিশেষ করে গ্রামীণ অঞ্চলগুলো দখল করে রাজধানীকে ঘিরে ফেলা তাদের লক্ষ্য। সম্প্রতি দখল নেয় ইরান, তুর্কমিনিস্তান ও পাকিস্তান সীমান্তের গুরুত্বপূর্ণ ক্রসিং।



 

Show all comments
  • MD Saiful Islam ৩০ জুলাই, ২০২১, ১০:৫২ এএম says : 0
    মনে হচ্ছে আমেরিকান কুকুররা আর একটা মাইর খাওনের লইগগা লাফালাফি করতাছে
    Total Reply(0) Reply
  • Abdur Rohman ৩০ জুলাই, ২০২১, ১০:৫৩ এএম says : 0
    আল্লাহর সাহায্য ছাড়া শান্তি কখনো আসবে না। সুতরাং আল্লাহর সাহায্য পেতে হলে তার বিধান অবশ্যই মানতে হবে
    Total Reply(0) Reply
  • Najif Masud Masud ৩০ জুলাই, ২০২১, ১০:৫৩ এএম says : 0
    আলহাদুলিল্লাহ।সেকুল্যার বা বামদের চুলকানি বেড়ে যাক।
    Total Reply(0) Reply
  • মুহাম্মাদ আবুল হুসাইন ৩০ জুলাই, ২০২১, ১০:৫৩ এএম says : 0
    ইসলামের বিজয় চলমান থাকুক৷
    Total Reply(0) Reply
  • MD Sohag ৩০ জুলাই, ২০২১, ১০:৫৩ এএম says : 0
    আল্লাহ বলেছেন অবশ্যই একটি দলকে আল্লাহ তাআলা বিজয়ী করে রাখবেন কেয়ামত পর্যন্ত
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: আফগানিস্তান


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ