Inqilab Logo

বুধবার, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৪ আশ্বিন ১৪২৮, ২১ সফর ১৪৪৩ হিজরী

সুনামগঞ্জে অন্তঃসত্ত্বা এক স্ত্রীকে নদীতে ফেলার চেষ্টা করলো স্বামী

সিলেট ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ৩১ জুলাই, ২০২১, ৪:১৩ পিএম

সুনামগঞ্জের তাহিরপুরে হাত-পা বেঁধে বস্তাবন্দি করে চার মাসের অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীকে নদীতে ফেলে দিতে চেয়েছিল স্বামী ও তার সহযোগীরা। ঘটনাটি টের পান তাদের এক প্রতিবেশী। সেই প্রতিবেশীর করেন সুর চিৎকারে। এতে এগিয়ে আসেন স্থানীয় এলাকার লোকজন। সেকারনে রক্ষা পেয়ে যান অন্ত:সত্ত্বা বধূ। এরপর গুরুতর অবস্থায় উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য তাহিরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন তাকে। শুক্রবার (৩০ জুলাই) রাত ৮টার দিকে সুনামগঞ্জের তাহিরপুর উপজেলার বাদাঘাট উত্তর ইউনিয়নের বোলাখালী গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় তোলপাড় সৃষ্টি হয়েছে এলাকাজুড়ে। গৃহবধূ মাইফুল নেছার মা মমতা বেগম জানান, মাইফুল নেছার (২৩) সঙ্গে দোয়ারাবাজার উপজেলার চৌধুরীপাড়া গ্রামের সাজিদুল মিয়ার পূত্র আবু তাহের জান্নাতের (২৮) বিয়ে হয় পারিবারিক আয়োজনে। বিয়ের পর আবু তাহের স্ত্রীকে নিয়ে শ্বশুর বাড়ির পাশে ভোলাখালি গ্রামে বাসা ভাড়া নিয়ে বসবাস করছিলেন। পাশাপাশি পাশেই একটি ঘরে শুরু করেন পোল্ট্রি মুরগির ব্যবসা। কয়েক মাস ধরে মাইফুলকে যৌতুকের টাকার জন্য চাপ দিচ্ছিল আবু তাহের। কিন্তু টাকা দিতে অপারগতা প্রকাশ করলে শারীরিক নির্যাতন শুরু করেন আবু তাহের। মাইফুল নেছার দুলা ভাই আশু মিয়া (২৫) ও বড় ভাই ওবায়দুল্লাহ জানান, বিয়ের পর থেকেই আমার বোনকে নির্যাতন করছিল তারা । যৌতুকের ৫০ হাজার টাকার দাবি মেটানোর পরও বন্ধ করেনি নির্যাতন। আজ হাত-পা বেঁধে আমার বোনকে ভাসিয়ে দিতে চেয়েছিল নদীতে। ঘটনার পর থেকে অভিযুক্ত আবু তাহের জান্নাত ও তার সহযোগীরা রয়েছে পলাতক। বাদাঘাট পুলিশ ক্যাম্পের সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) মো. শহিদুল ইসলাম বলেন, অন্ত:স্বত্ত্বা নারীর পক্ষে লিখিত অভিযোগ পেলে নেওয়া হবে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা। 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: স্বামী


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ