Inqilab Logo

রোববার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১১ আশ্বিন ১৪২৮, ১৮ সফর ১৪৪৩ হিজরী

কাউন্সিলর রুহুল আমিনের নামে মিথ্যা মামলার প্রত্যাহারে মুক্তিযোদ্ধাদের প্রতিবাদ সভা

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৩১ জুলাই, ২০২১, ৮:৩৩ পিএম

নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের ৮নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর রুহুল আমিন মোল্লার বিরুদ্ধে চাঁদাবাজির অভিযোগ ও আইসিটি আইনে সাজানো মামলা করেছে গোদনাইল এনায়েত নগরের এমরান।তার দায়ের করা মানহানিকর মামলা প্রত্যাহার এবং মাদকাসক্ত এমরানের বিরুদ্ধে প্রশাসনিক ব্যবস্থা নেয়ার দাবিতে প্রতিবাদ সভা করেছে জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তান বীর মুক্তিযোদ্ধারা। গতকাল ২নং ঢাকেশ্বরীস্থ ৮নং ওয়ার্ড মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কার্যালয়ে প্রতিবাদ সভাটি অনুষ্ঠিত হয়।

নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ শাহজাহান ভূঁইয়া জুলহাসের সভাপতিত্বে প্রতিবাদ সভায় বক্তব্য রাখেন গোদনাইল ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বীরমুক্তিযোদ্ধা আলহাজ মোঃ শাহ আলম, বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল মতিন, বীর মুক্তিযোদ্ধা এহসান কবির রমজান, বীর মুক্তিযোদ্ধা মজিবুর রহমান সাউদ, বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ মহিউদ্দিন মোল্লা, বীরমুক্তিযোদ্ধা আব্দুল মজিদ সাউদ, বীর মুক্তিযোদ্ধা গোলজার হোসেন, বীর মুক্তিযোদ্ধা রওশন আলী, বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ জয়নাল আবেদীন, বীর মুক্তিযোদ্ধা শরিফুল্লা সাউদ, বীর মুক্তিযোদ্ধা হাসেম ভান্ডারী, বীর মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ আলী (মহাম), বীর মুক্তিযোদ্ধা ইউসুফ মোল্লা প্রমুখ।

এসময় বক্তারা বলেন, নাসিকের সফল কাউন্সিলর মোঃ রুহুল আমিন মোল্লা পর পর ২ বার বিপুল ভোটে নির্বাচিত হয়ে অত্যন্ত দক্ষতা, সততা ও সুনামের সাথে দায়িত্ব পালন করছেন। ইতিমধ্যে সাফল্যের স্মারক হিসেবে তিনি নারায়ণগঞ্জ জেলার শ্রেষ্ঠ কাউন্সিলরের স্বীকৃতি অর্জন করেন। তার বিরুদ্ধে প্রতারক ও মাদকাসক্ত এমরানের মিথ্যা অভিযোগ একটি গভীর ষড়যন্ত্রের অংশ, যা সম্পূর্ণ উদ্দেশ্যপ্রণোদিত। এমন চরম মিথ্যাচারের বিরুদ্ধে বক্তারা তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে জেলা প্রশাসক, পুলিশ সুপার ও থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তার নিকট অশান্তি সৃষ্টিকারী ও মসজিদ কমিটি নিয়ে প্রতারণা সহ তদন্ত সাপেক্ষে তার সমস্ত অপকর্মের বিরুদ্ধে জরুরী ভিত্তিতে ব্যবস্থা গ্রহণের অনুরোধ জানান।

এমরানের মিথ্যে অভিযোগের বিষয়ে কাউন্সিলর রুহুল আমিন জানান, এমরান অংশীদারি ডিশ ব্যবসায়ের ৪০ শতাংশ লভ্যাংশ দীর্ঘদিন প্রদান না করায় বিষয়টি আমাকে অবহিত করে সাইফুল। এ বিষয়ে আমি এমরানকে ফোন দিয়ে সাইফুলকে তার প্রাপ্র্য লভ্যাংশ বুঝিয়ে দিতে বলি। এ বিষয়টিকে চাঁদাবাজি বলে এমরান আমার বিরুদ্ধে থানায় মিথ্যা অভিযোগ দিয়েছে। অপরদিকে বিভিন্ন সময় এমরানের নামে আমার কাছে নানা প্রতারণার অভিযোগ আসতে থাকে। এর মধ্যে ব্যবসায়ের অংশীদারিত্ব দেওয়ার কথা বলে টাকা নেয়া, অন্যের জমি বিক্রি করে জাল স্বাক্ষরের মাধ্যমে অর্থ আত্মসাৎ উল্লেখযোগ্য। এ বিষয়গুলো জানার পরে তাকে আমি অবহিত করলে সে আমার কাছে টাকা ফিরিয়ে দেয়ার সম্মতি প্রকাশ করলেও পরে আর তা ফেরত দেয়নি। ভুক্তভোগীরা আবারো আমার কাছে অভিযোগ করে। আমি জনপ্রতিনিধি হিসেবে সাধারণ মানুষের উদ্দেশ্যে তার সাথে কোন ধরণের লেনদেন না করার জন্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সতর্কতা মূলক পোষ্ট দেই। সে বিষয়টিকে নিয়ে আমার বিরুদ্ধে আইসিটি আইনে মিথ্যা অভিযোগ দিয়েছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: নারায়ণগঞ্জ

১৬ সেপ্টেম্বর, ২০২১

আরও
আরও পড়ুন