Inqilab Logo

মঙ্গলবার, ২৬ অক্টোবর ২০২১, ১০ কার্তিক ১৪২৮, ১৮ রবিউল আউয়াল সফর ১৪৪৩ হিজরী
শিরোনাম

সৈয়দপুরে জমি নিয়ে বিরোধের জেরে চাচাতো ভাইকে হত্যার চেষ্টা

সৈয়দপুর (নীলফামারী) উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ৩১ জুলাই, ২০২১, ৯:০৩ পিএম

নীলফামারীর সৈয়দপুরে জমি নিয়ে বিরোধের জেরে চাচাতো ভাইকে হত্যা চেষ্টার অভিযোগ পাওয়া গেছে। আহত ওই চাচাতো ভাই জাবেদ আলী (৬০) বর্তমানে সৈয়দপুর ১০০ শয্যা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। ঘটনাটি ঘটেছে শুক্রবার (৩০ জুলাই) শহরের নতুন বাবুপাড়ার পুরাতন পোস্ট অফিস এলাকায়।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, ঘটনার দিন ওই এলাকার মৃত জসিম উদ্দিনের ছেলে জাবেদ আলী তার আবাদী জমিতে কৃষি কাজ করছিলেন। এসময় একই এলাকার বাসিন্দা চাচাতো ভাই মাহবুব আলম (৫০) ও তার ছেলে নিলয় (২০), মৃত. হাফিজুলের ছেলে সাদ্দাম (৩২), নজরুল ইসলামের ছেলে বাদশাহ (৩৮) সংঘবদ্ধ হয়ে জাবেদ আলীর ওপর অতর্কিত হামলা চালায়। তাদের এলোপাথাড়ি কিল-ঘুষি ও কৃষি কাজে ব্যবহৃত কোদালের আঘাতে গুরুত্বর আহত হন জাবেদ আলী। তার আত্মচিৎকারে ছেলে আকাশ এগিয়ে এলে সংঘবদ্ধ দলটি তাকেও আঘাত করে। পরে এলাকাবাসী ছুটে এলে মাহবুব ও তার লোকজন পালিয়ে যায় এবং আহত জাবেদ আলী ও তার ছেলে আকাশকে হাসপাতালে ভর্তি করে। আকাশকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে ছেড়ে দেওয়া হলেও জাবেদ আলীর অবস্থা আশংকাজনক বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা।

জাবেদ আলী ও মাহবুব আলমের ভাগিনা মশিউর রহমান জানান, জমি নিয়ে মামাদের দ্বন্দ্ব দীর্ঘদিনের। ইতোপূর্বেও বাড়ির পাশে শত্রুতামূলক পুকুর খনন করেছিলেন মাহবুব আলম। ওই ঘটনা নিয়ে থানায় অভিযোগও হয়েছিল।

আহত জাবেদ আলীর ছেলে আকাশ বলেন, আমার চাচা মাহবুব আলম ও তার পরিবারের ধারণা আমার বাবাকে হত্যা করতে পারলে ওই জমিটি তারা দখলে নিতে পারবে।

উল্লেখ্য, মাহবুব আলম ওই এলাকার আল ফারুক একাডেমীর শিক্ষক। তিনি এক মাস আগে আজান দিতে সামান্য দেরি হওয়ায় মসজিদের মুয়াজ্জিনকে চড়-থাপ্পড় মেরে চাকুরিচ্যুত করেন। এছাড়া জমি নিয়ে বিরোধের জেরে প্রতিবেশী পান দোকানী লুৎফরকে রহমানকেও শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত ও মিথ্যা মামলায় ফাঁসানোর চেষ্টা করেন। মাহবুব আলমের কর্মকান্ডের বিষয়ে অভিযোগ করলে তার স্ত্রী তাকে মানসিক ভারসাম্যহীন বলে দাবী করেন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: নীলফারমারী


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ