Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ২১ নভেম্বর ২০১৮, ০৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৫, ১২ রবিউল আউয়াল ১৪৪০ হিজরী

পোশাক শিল্পে উৎপাদন খরচ বাড়লেও আন্তর্জাতিক বাজারে কমেছে-বাণিজ্যমন্ত্রী

প্রকাশের সময় : ৩০ সেপ্টেম্বর, ২০১৬, ১২:০০ এএম

অর্থনৈতিক রিপোর্টার : বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ বলেন, রানা প্লাজা দুর্ঘটনার পর থেকে এ পর্যন্ত প্রায় ৩৭ হাজার কারখানা পরিদর্শন হয়েছে। যেখানে মাত্র ৩৯টি কারখানা ঝুঁকিপূর্ণ পাওয়া গেছে। আগের মতো একটি বিল্ডিংয়ে একাধিক কারখানা অনুমতি দেয়া হয় না। এসব কারণে খরচ বাড়লেও দুর্ভাগ্যজনকভাবে আন্তর্জাতিক বাজারে আমাদের পোশাকের মূল্য বাড়েনি।
রানা প্লাজা দুর্ঘটনার পর বাংলাদেশের পোশাক খাতে উল্লেখযোগ্য অগ্রগতি হলেও মূল্য বাড়েনি বলে মন্তব্য করেছেন বাংলাদেশ সফররত নেদারল্যান্ডের বৈদেশিক বাণিজ্য ও উন্নয়ন সহযোগিতাবিষয়ক মন্ত্রী লিলিয়ান প্লুমেন।
গতকাল রাজধানীর এশটি হোটেল আয়োজিত এক যৌথ সংবাদ সম্মেলনে এমন মন্তব্য করেন দুই মন্ত্রী।
এর আগে পোশাক খাতে টেকসই সোর্সিংবিষয়ক সেমিনারের উদ্বোধন শেষে উভয় মন্ত্রী দ্বিপাক্ষিক বৈঠক করেন। সংবাদ সম্মেলনে উভয় মন্ত্রীই পোশাক খাতের মূল্য না বাড়ার বিষয়ে একমত পোষণ করেন। এসময় বাণিজ্যমন্ত্রী পোশাকের মূল্য বৃদ্ধিতে উল্লেখযোগ্য পদক্ষেপ নেওয়ার আহŸান জানান। তবে এ সেক্টরের সংশ্লিষ্ট সবাইকে আলোচনা চালিয়ে যেতে হবে বলে মন্তব্য করেন ডাচ মন্ত্রী প্লুমেন।
এক প্রশ্নের জবাবে ডা মন্ত্রী বলেন, রানা প্লাজা দুর্ঘটনা শুধু বাংলাদেশ নয় বিশ্বের জন্যই ওয়েক আপ কল ছিল।
কারণ এ ঘটনার পরে অনেক ভোক্তা এবং ব্রান্ড এ দুর্ঘটনার পরে তাদের করণীয় নিয়ে সতর্ক হয়। তবে বাংলাদেশের পোশাক খাতের কর্মপরিবেশে উল্লেখযোগ্য অগ্রগতি হয়েছে। বাংলাদেশকে এখনো দু’টি চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করতে হবে। এর একটি হলো কীভাবে গ্রিন টেকনোলজিতে বিনিয়োগ এবং কীভাবে শ্রমিকদের কর্মপরিবেশ ও ন্যূনতম বেতন বাড়ানো যায়।
এর জন্য টেকসই সোর্সিং প্রয়োজন।
স¤প্রতি গুলশান হামলায় সমবেদনা জানিয়ে তিনি বলেন, সন্ত্রাসবাদ এখন একটি বৈশ্বিক সমস্যা। একটি দেশের পক্ষে এককভাবে এর মোকাবেলা করা সম্ভব নয়, এজন্য সব দেশকে সমন্বিতভাবে সন্ত্রাসবাদ মোকাবেলায় কাজ করতে হবে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।