Inqilab Logo

রোববার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১১ আশ্বিন ১৪২৮, ১৮ সফর ১৪৪৩ হিজরী

দ্বিতীয়বার বাবা হচ্ছেন!

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২ আগস্ট, ২০২১, ১২:০০ এএম

ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনের মন ভেঙে গিয়েছিল। তবে এক মাস পরই সেই ভাঙা মন চাঙ্গা হয়েছে। মাস খানেক আগেই গর্ভপাত হয়েছিল স্ত্রী ক্যারি সায়মন্ডস জনসনের। এটিই ছিল মন ভেঙে যাওয়ার মূল কারণ। প্রধানমন্ত্রীর দ্বিতীয়বার বাবা হতে যাওয়ার খবরে আনন্দে ভাসছে জনসন পরিবার।
ইনস্টাগ্রামে একটি পোস্ট দিয়েই সংসারে নতুন অতিথি আসার কথা জানিয়ে দিলেন ক্যারি জনসন। তিনি লিখেছেন, বড়দিনেই ‘রেনবো বেবি’ আসার অপেক্ষায় রয়েছেন। এরপরই লেখেন, আরও একবার অন্তঃসত্ত¡া হয়ে দারুণ লাগছে। একইসঙ্গে আবার একটু নার্ভাসও অনুভব করছেন।

কী এই রেনরো বেবির অর্থ? সাধারণত গর্ভপাত হওয়ার পর কিংবা সন্তান জন্মানোর আগেই তার মৃত্যু হলে পরের সন্তানকে এই ভাষায় ব্যাখ্যা করা হয়। তাই বড়দিনেই যে ফের বাবা-মা হতে চলেছেন বরিস ও ক্যারি, তা নিয়ে আর কোনও সন্দেহ নেই।

গত ৩০ মে করোনাভাইরাসের দাপটের মাঝেই একেবারে সাদামাটাভাবে বাগদত্তার সঙ্গে বিয়ে সেরেছিলেন ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন। ওয়েস্টমিনস্টার ক্যাথিড্রালে নয়া ইনিংস শুরু করেন বরিস জনসন। তার আগেই অবশ্য প্রথম সন্তানের জন্ম দিয়েছিলেন ক্যারি।
২০১৯ সালে প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পর থেকেই ডাউনিং স্ট্রিটে একসঙ্গেই থাকেন বরিস এবং ক্যারি। গত বছরই বাগদানের কথা ঘোষণা করেছিলেন তারা। তখনই জানিয়েছিলেন, শিগগিরই মা হতে চলেছেন ক্যারি। গত বছর এপ্রিলে ছেলে উইলফ্রেডের জন্ম দেন তিনি।

এরপর শোনা গিয়েছিল, অতিমারী পরিস্থিতি কেটে গেলে একেবারে ২০২২ সালের জুলাইয়ে বিয়ে করবেন তারা। কিন্তু গত ৩০ মে মাসে ক্যারির হাত ধরে নতুন জীবনে পা রাখেন বরিস জনসন। এবার দ্বিতীয় সন্তান আসতে চলেছে তাদের সংসারে।
উল্লেখ্য, এর আগে দু’বার বিবাহবিচ্ছেদ হয়েছে বরিসের। তার ক’টি সন্তান, তা প্রকাশ্যে বলতে চান না তিনি। সূত্র : বিবিসি নিউজ, দ্য গার্ডিয়ান।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ব্রিটেন


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ