Inqilab Logo

রোববার, ২৮ নভেম্বর ২০২১, ১৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ২২ রবিউস সানী ১৪৪৩ হিজরী

নিজ দেশের নাগরিকদের আফগানিস্তান ত্যাগের নির্দেশ ইরানের

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২ আগস্ট, ২০২১, ১০:২৩ এএম

আফগানিস্তানে সরকারী বাহিনীর সঙ্গে তালেবান গোষ্ঠীর তীব্র লড়াই চলছে। গ্রাম, শহর সর্বত্র ছড়িয়েছে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ। আফগানিস্তানের নিরাপত্তা পরিস্থিতি ক্রমান্বয়ে অবনতি হওয়ায় নাগরিকদের দেশটি ত্যাগের পরামর্শ দিয়েছে ইরান। স্থানীয় সময় রোববার (১ আগস্ট) কাবুলে ইরানি দূতাবাস এক বিবৃতির মাধ্যমে নিজ দেশের নাগরিকদের এই পরামর্শ দেয়।
বিবৃতিতে বলা হয়, ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরানের যেসব নাগরিক কাবুলের বাইরের জেলা ও শহরগুলোতে বসবাস বা ব্যবসা করছেন তারা অবিলম্বে আফগানিস্তান ত্যাগ করুন।
একইসঙ্গে, পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত নাগরিকদেরকে অপ্রয়োজনীয় সফরে আফগানিস্তান না যাওয়ার পরামর্শও দেওয়া হয়েছে।
বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ইরান দূতাবাসের সঙ্গে সমন্বয়ের মাধ্যমে শুধুমাত্র সংক্ষিপ্ত সফরে কাবুল ভ্রমণ করা যাবে।
প্রসঙ্গত, আফগানিস্তান তার প্রয়োজনীয় বহু পণ্য ইরান থেকে আমদানি করে। ফলে ব্যবসার কাজে অনেক ইরানি নাগরিক আফগানিস্তান সফরে যান বা দেশটিতে অবস্থান করেন।
তালেবান হামলার জের ধরে আফগানিস্তানের দক্ষিণাঞ্চলীয় কান্দাহার শহরের প্রধান বিমানবন্দরের সকল কার্যক্রম স্থগিত করে দিতে বাধ্য হওয়ার কয়েক ঘণ্টা পর ইরান এ বিবৃতি দিল।
এরইমধ্যে সাম্প্রতিক সময়ে আফগানিস্তানের নিরাপত্তা বাহিনীর ওপর তালেবানের হামলা বেড়ে যাওয়ার পরিপেক্ষিতে নিজ দেশের নাগরিকদের জীবন রক্ষায় এমন সতর্কতা জারি করল ইরান।
এদিকে, দক্ষিণ ও পশ্চিম আফগানিস্তানের তিনটি বড় শহর ঘিরে দেশটির সরকারি বাহিনীর সঙ্গে তালেবানের প্রচণ্ড লড়াই চলছে। সরকারি বাহিনীর হাত থেকে হেরাত, লস্কর গাহ ও কান্দাহারের নিয়ন্ত্রণ নিতে মরিয়া তালেবান।
আফগান সরকার জানিয়েছে, গত ২৪ ঘণ্টায় কয়েকটি বড় শহরে তাদের হামলায় এখন পর্যন্ত ২৫০ তালেবান যোদ্ধা নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরও শতাধিক।
দক্ষিণ আফগানিস্তানের কান্দাহার বিমানবন্দরে অন্তত তিনটি রকেট হামলা চালিয়েছে তালেবান। বিদ্রোহীদের এক মুখপাত্র এমন দাবি করেছেন। তিনি বলেন, আফগান সরকারি বাহিনী যাতে বিমান হামলা চালাতে না পারে তা প্রতিহত করতেই এমন পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে।
ইতোমধ্যে হেরাত, লস্কর গাহ ও কান্দাহারের বিভিন্ন অংশে প্রবেশ করেছে তালেবানরা। সেপ্টেম্বর নাগাদ যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশটি থেকে মার্কিন নেতৃত্বাধীন বিদেশি সেনা প্রত্যাহারের ঘোষণা আসার পর গ্রামীণ অঞ্চলগুলো নিয়ন্ত্রণে ব্যাপক সফলতা শেষে এবার বড় শহরে হানা দিয়েছে তালেবান।
আফগান ভূখণ্ডের অর্ধেকটা এখন তালেবানের দখলে বলে ধারণা করা হচ্ছে। বিশেষ করে পাকিস্তান ও ইরানের সঙ্গে লোভনীয় সীমান্ত ক্রসিংও এখন তাদের নিয়ন্ত্রণে। কান্দাহারের এমপি গুল আহমাদ কামিন বলেন, শহরটি তালেবানের হাতে পতন হওয়ার ঝুঁকিতে আছে। ইতিমধ্যে কয়েক হাজার বাসিন্দা বাস্তুচ্যুত হয়েছেন। মানবিক সংকট প্রকাশ্য হয়ে উঠছে।
তিনি বলেন, ঘণ্টায় ঘণ্টায় শহরের পরিস্থিতির অবনতি ঘটছে। গত ২০ বছরের মধ্যে লড়াই সবচেয়ে তীব্র রূপ নিয়েছে।
তালেবানের নজর এখন কান্দাহারের দিকে জানিয়ে তিনি বলেন, এই শহরটিকে অস্থায়ী রাজধানী করতে চায় বিদ্রোহীরা। যদি শহরটির পতন ঘটে, তবে এ অঞ্চলের পাঁচ কিংবা ছয়টি প্রদেশও সরকারের নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যাবে।



 

Show all comments
  • Anwar+Hossain ২ আগস্ট, ২০২১, ১১:৩৬ এএম says : 0
    GOOD NEWS
    Total Reply(0) Reply
  • Monjur Rashed ২ আগস্ট, ২০২১, ১:৩০ পিএম says : 0
    Afghanistan is a landlocked country. Without maintaining good relationship with Pakistan & Iran, no Government can survive in Afghanistan. Both the countries played significant role in eradicating USA from Afghanistan. Talebans should realize that Pakistan will not serve Saudi purpose in Afghanistan in future days.
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ইরান


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ